• ঢাকা
  • বুধবার, ২ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ১৭ আগষ্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

কয়লা ব্যবহার না করার প্রতিশ্রুতি ১৯০টি দেশ ও সংস্থার


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ০৪ নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১১:৩২ এএম
কয়লা ব্যবহার না করার প্রতিশ্রুতি ১৯০টি দেশ ও সংস্থার

নিউজ ডেস্ক:  পোল্যান্ড, ভিয়েতনাম এবং চিলির মতো বড় বড় কয়লা ব্যবহারকারী দেশ জীবাশ্ম জ্বালানি থেকে সরে আসার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। কপ২৬ জলবায়ু সম্মেলনে এই প্রতিশ্রুতি এসেছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্য সরকার।

যুক্তরাজ্য জানিয়েছে, ১৯০টি দেশ ও সংস্থা কয়লার ব্যবহার ছাড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। তবে অস্ট্রেলিয়া, ভারত, চীন এবং যুক্তরাষ্ট্রের মতো বিশ্বের বড় বড় কয়লা নির্ভরশীল দেশগুলো এই অঙ্গীকারে সম্মত হয়নি। খবর বিবিসির

অঙ্গীকারে স্বাক্ষরকারী দেশগুলো নিজেদের দেশে এবং বিদেশে নতুন কয়লাচালিত বিদ্যুৎকেন্দ্রে বিনিয়োগ বন্ধের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। এছাড়া ২০৩০ এর দশকের মধ্যে ধাপে ধাপে কয়লা থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন থেকে বেরিয়ে আসার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। দরিদ্র দেশগুলোর ক্ষেত্রে এই সময়সীমা ২০৪০ এর দশক।

যুক্তরাজ্যের বাণিজ্য এবং জ্বালানিমন্ত্রী কোয়াসি কোয়ার্টেং বলেন, কয়লার অবসান আমরা দেখতে পাচ্ছি। বিশ্ব সঠিক পথে এগোচ্ছে। কয়লার ভাগ্য আটকে দিতে প্রস্তুত আর ক্লিন এনার্জিচালিত ভবিষ্যত গড়ার পরিবেশগত এবং আর্থিক সুবিধা আকড়ে ধরেছে।

ওই বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেছে ৪০টিরও বেশি দেশ। পোল্যান্ড, ভিয়েতনাম এবং চিলিসহ ১৫টি দেশ প্রথমবারের মতো কয়লাচালিত নতুন বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ বা বিনিয়োগ বন্ধ এবং ধাপে ধাপে সরে আসার ঘোষণা দিয়েছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্য।

তবে যুক্তরাজ্যের ছায়া বাণিজ্যমন্ত্রী এড মিলিব্যান্ড বলেছেন, চীন এবং অন্য বড় কার্বন নিঃসরণকারী দেশগুলো অভ্যন্তরীণভাবে কয়লার ব্যবহার বাড়ানো থামাতে সম্মত না হওয়ায় প্রতিশ্রুতিতে ‘বড় ফাঁক’ রয়েছে। তিনি আরও বলেন, তেল ও গ্যাসের ব্যবহার ছেড়ে আসার বিষয়েও এতে কিছু বলা হয়নি।

কপ২৬ এ গ্রিনপিসের প্রতিনিধি দলের প্রধান জুয়ান পাবলো ওসোরনিও বলেছেন, সামগ্রিকভাবে এই বিবৃতি এখনও এই গুরুত্বপূর্ণ দশকে জীবাশ্ম জ্বালানির ব্যবহার বন্ধের প্রয়োজনীয় লক্ষ্যের চেয়েও খানিকটা কম।

 

ঢাকানিউজ২৪.কম / সানোয়ার সামছী

আর্ন্তজাতিক বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image