• ঢাকা
  • শনিবার, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৩ ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

ফাইনালে পাকিস্তানের মুখোমুখি হচ্ছে ইংল্যান্ড


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১০ নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৫:৩০ পিএম
ভারতকে হারিয়ে ফাইনালে ইংল্যান্ড
ভারতকে হারিয়ে ফাইনালে ইংল্যান্ড

নিউজ ডেস্ক:   রোহিত শর্মাদের গুঁড়িয়ে ফাইনালে উঠালেন ইংল্যান্ডকে। তার কথাই সত্য হলো, ফাইনালে নেই ভারত-পাকিস্তানের পার্টি। ১৩ নভেম্বর মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে পাকিস্তানের মুখোমুখি হচ্ছে ইংল্যান্ড। ভারতকে ১০ উইকেটে হারিয়ে ১২ বছর পর ফাইনালে তারা। আগে ব্যাট করতে নেমে কোহলি ও হার্দিকের ফিফটিতে ৬ উইকেটে ১৬৮ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে ভারত। জবাবে হেলস-বাটলারের তাণ্ডবে ৪ ওভার হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে ইংলিশরা

ফাইনালে উঠার লড়াইয়ে রান তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই মারমুখি ছিল ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার আলেক্স হেলস ও জশ বাটলার। ৪.৫ ওভারে ৫০ রান করা ইংল্যান্ড শত রান পূর্ণ করে ১০.১ ওভারে। ২৮ বলে ফিফটি করেন হেলস। বাটলার সেখানে ফিফটি করতে নেন ৩৬ বল। শেষ পর্যন্ত বাটলার-হেলস জুটিকে থামানো যায়নি। ৪ ওভার হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌছায় ইংল্যান্ড। ৪৭ বলে চারটি চার ও সাত ছক্কায় সর্বোচ্চ ৮৬ রানে অপরাজিত থাকা হেলস জেতেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার। সেখানে ৭৪ বলে নয়টি চার ও তিন ছক্কায় ৮০ রানে অপরাজিত থাকেন ইংলিশ অধিনায়ক জশ বাটলার।

অ্যাডিলেডে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় টিম ইন্ডিয়া। লোকেশ রাহুলকে ৫ রানে আউট করে সাজঘরে ফেরান ক্রিস ওকস। দলীয় ৯ রানে ওপেনার রাহুল আউট হলে কিছুটা চাপে পড়ে ভারত।

এরপর চাপ সামাল দেয়ার চেষ্টা করেন অধিনায়ক রোহিত। ধীরগতির ব্যাটিংয়ে তিনিও খুব বেশি রান তুলতে পারেননি। সেমিফাইনালের ম্যাচে ৯৬.৪২ স্ট্রাইক রেটে ২৮ বলে ২৭ রান করেন তিনি। ৪টি চার হাঁকালেও মারতে পারেননি কোনো ছক্কা। ক্রিস জর্ডানের বলে আউট হন রোহিত।

দুর্দান্ত ছন্দে থাকা সূর্যকুমার ১০ বলে ১৪ রান করে আউট হন। একটি করে চার ও ছক্কা তোলেন তিনি। অন্য প্রান্তে দাঁড়িয়ে ছিলেন বিরাট কোহলি। তিনি হার্ডিক পান্ডিয়ার সঙ্গে  ৬১ রান যোগ করেন। ফিরে যাওয়ার আগে সাবেক ভারতীয় অধিনায়ক ৪০ বলে ৫০ রান করেন।

শেষটায় দারুণ এক ঝড় দেখিয়েছেন হার্ডিক। ডানহাতি পেস অলরাউন্ডার খেলেছেন ৩৩ বলে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৩ রানের ইনিংস। শেষ বলে হিট উইকেট হওয়ার আগে তিনি পাঁচটি ছক্কা ও চারটি চারের মার দেখান। এছাড়া ঋষভ পান্ত করেন ৬ রান।

মার্ক উডের জায়গায় ইংল্যান্ডের একাদশে ঢোকা ক্রিস জর্ডান ৪ ওভারে ৪৩ রান দিয়ে নিয়েছেন ৩ উইকেট। স্যাম কারেন ৪ ওভারে ৪২ রান হজম করে উইকেট শূন্য থাকেন। লেগ স্পিনার আদিল রশিদ দারুণ ব্যাটিং করেছেন। তিনি ৪ ওভারে দিয়েছেন মাত্র ২০ রান। নিয়েছেন একটি উইকেট। এছাড়া ক্রিস ওকস ৩ ওভারে ২৪ রান দিয়ে একটি উইকেট দখল করেন।

১৯৯২ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর এই প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনালে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলতে নামবে ইংল্যান্ড। ৯২-এর সেই বিশ্বকাপে পাকিস্তানের কাছে ২২ রানে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হয়েছিল ইংল্যান্ডের। ৩০ বছর পর সেই হারের প্রতিশোধ নেয়ার সুযোগ এলো ইংলিশদের।

ভারত-পাকিস্তান ফাইনালের পার্টি নষ্ট করে দেবেন বলে হুঁশিয়ারি করেছিলেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক জস বাটলার। অ্যাডিলেডে সেই কথা রাখলেন ইংলিশ দলনেতা। রোহিত শর্মাদের গুঁড়িয়ে ফাইনালে উঠালেন দলকে। তার কথাই সত্য হলো, ফাইনালে নেই ভারত-পাকিস্তানের পার্টি। ১৩ নভেম্বর মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে পাকিস্তানের মুখোমুখি হচ্ছে ইংল্যান্ড। ভারতকে ১০ উইকেটে হারিয়ে ১২ বছর পর ফাইনালে তারা। আগে ব্যাট করতে নেমে কোহলি ও হার্দিকের ফিফটিতে ৬ উইকেটে ১৬৮ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে ভারত। জবাবে হেলস-বাটলারের তাণ্ডবে ৪ ওভার হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে ইংলিশরা

ফাইনালে উঠার লড়াইয়ে রান তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই মারমুখি ছিল ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার আলেক্স হেলস ও জশ বাটলার। ৪.৫ ওভারে ৫০ রান করা ইংল্যান্ড শত রান পূর্ণ করে ১০.১ ওভারে। ২৮ বলে ফিফটি করেন হেলস। বাটলার সেখানে ফিফটি করতে নেন ৩৬ বল। শেষ পর্যন্ত বাটলার-হেলস জুটিকে থামানো যায়নি। ৪ ওভার হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌছায় ইংল্যান্ড। ৪৭ বলে চারটি চার ও সাত ছক্কায় সর্বোচ্চ ৮৬ রানে অপরাজিত থাকা হেলস জেতেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার। সেখানে ৭৪ বলে নয়টি চার ও তিন ছক্কায় ৮০ রানে অপরাজিত থাকেন ইংলিশ অধিনায়ক জশ বাটলার।

ভারত-পাকিস্তান ফাইনালের পার্টি নষ্ট করে দেবেন বলে হুঁশিয়ারি করেছিলেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক জস বাটলার। অ্যাডিলেডে সেই কথা রাখলেন ইংলিশ দলনেতা। রোহিত শর্মাদের গুঁড়িয়ে ফাইনালে উঠালেন দলকে। তার কথাই সত্য হলো, ফাইনালে নেই ভারত-পাকিস্তানের পার্টি। ১৩ নভেম্বর মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে পাকিস্তানের মুখোমুখি হচ্ছে ইংল্যান্ড। ভারতকে ১০ উইকেটে হারিয়ে ১২ বছর পর ফাইনালে তারা। আগে ব্যাট করতে নেমে কোহলি ও হার্দিকের ফিফটিতে ৬ উইকেটে ১৬৮ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে ভারত। জবাবে হেলস-বাটলারের তাণ্ডবে ৪ ওভার হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে ইংলিশরা

ফাইনালে উঠার লড়াইয়ে রান তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই মারমুখি ছিল ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার আলেক্স হেলস ও জশ বাটলার। ৪.৫ ওভারে ৫০ রান করা ইংল্যান্ড শত রান পূর্ণ করে ১০.১ ওভারে। ২৮ বলে ফিফটি করেন হেলস। বাটলার সেখানে ফিফটি করতে নেন ৩৬ বল। শেষ পর্যন্ত বাটলার-হেলস জুটিকে থামানো যায়নি। ৪ ওভার হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌছায় ইংল্যান্ড। ৪৭ বলে চারটি চার ও সাত ছক্কায় সর্বোচ্চ ৮৬ রানে অপরাজিত থাকা হেলস জেতেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার। সেখানে ৭৪ বলে নয়টি চার ও তিন ছক্কায় ৮০ রানে অপরাজিত থাকেন ইংলিশ অধিনায়ক জশ বাটলার।

ঢাকানিউজ২৪.কম / Sanowar samsy

খেলা বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image