• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২২ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৭ অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

আরও ২ বছর খেলতে চান 


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১২:২৭ পিএম
মাহমুদউল্লাহ আরও ২ বছর খেলতে চান 

নিউজ ডেস্ক : টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলে জায়গা হয়নি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের। ধারণা করা হচ্ছিল, দল থেকে বাদ পড়ে হয়তো অবসরের পথে হাঁটবেন বাংলাদেশ দলের এ সাইলেন্ট কিলার। তাই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) আলোচনা করে তাকে ত্রিদেশীয় সিরিজে মাঠ থেকে অবসরের আমন্ত্রণ জানিয়েছিল। কিন্তু রিয়াদ আরও দুই বছর দলে খেলতে চান বলে বোর্ডের এ আমন্ত্রণে রাজি হননি। 

টি-টোয়েন্টিতে নতুন ক্রিকেটের সূচনা করতে চায় বাংলাদেশ। সংক্ষিপ্ত সংস্করণের ক্রিকেটে টাইগারদের ধারাবাহিক ব্যর্থতার লাগাম টানতে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে টেকনিক্যাল কনসালট্যান্ট শ্রীধরন শ্রীরামকে। বিশ্বকাপের দল তৈরিতে তিনি ছিলেন নেপথ্যে। নির্বাচকদের সঙ্গে আলোচনা করে শ্রীধরন বাদ দিয়েছেন মাহমুদউল্লাহকে।

মূলত ভবিষ্যৎ পরিকল্পনায় এবং পারফরম্যান্সের তুলনায় ইমপ্যাক্ট ক্রিকেটকে গুরুত্ব দিতে বাদ দেয়া হয়েছে টি-টোয়েন্টিতে টাইগারদের সবচেয়ে অভিজ্ঞ মাহমুদউল্লাহকে। তার জায়গায় টাইগারদের জন্য এ সংস্করণে সম্ভাবনাময় ক্রিকেটার হিসেবে দলে ডাকা হয়েছে ইয়াসির রাব্বিকে।

বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দল ঘোষণার সময় শ্রীরাম বলেন, আমার মনে হয় রাব্বি খুব সম্ভাবনাময় ক্রিকেটার। বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলে যে পাওয়ার হিটারের ঘাটতি ছিল সেটা তার আছে। সে এমন একজন যে বল সীমানা ছাড়া করতে পারে, বাউন্ডারি হাঁকাতে পারে।

মাহমুদউল্লাহকে বাদ দেয়াটাও কঠিন সিদ্ধান্ত ছিল বলে জানান শ্রীধরন। তিনি বলেন, মাহমুদউল্লাহকে বাদ দেয়ার আলাপটা সহজ ছিল না। সে বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি টি-টোয়েন্টি খেলেছে। ওর জন্য আমার সর্বোচ্চ সম্মান রইল। ওর বিষয়ে আলাপের সময় আমাকে খারাপ মানুষ হতে হয়েছে।

এর আগে এশিয়া কাপে ব্যর্থ মিশন শেষে সমালোচনার মুখে অবসরের সিদ্ধান্ত নেন মুশফিকুর রহিম। সমালোচনা চলছিল মাহমুদউল্লাহকে নিয়েও। ধারণা করা হচ্ছিল, বিশ্বকাপ দলে জায়গা না পেলে তিনিও নিতে পারেন অবসরের সিদ্ধান্ত।

মুশফিকের আগে টাইগার ওপেনার তামিম ইকবাল টি-টোয়েন্টি থেকে অবসরের সিদ্ধান্ত নেন।  দুজনেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অবসরের ঘোষণা দেয়ায় কিছুটা আক্ষেপ প্রকাশ করে বোর্ড। বিসিবি চায় দেশের ক্রিকেটের এ তারকা ক্রিকেটাররা যেন মাঠ থেকে সম্মানের সঙ্গেই অবসর নেন। মিরপুরে গত ১৩ সেপ্টেম্বর গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসার পাপন বলেছিলেন, ‘আমরা যদি ওকে (মাহমুদউল্লাহ) দলে জায়গা না দিতে পারি, ওকে যদি অবসর নিতেই হয়, তাহলে তাকে ন্যূনতম সম্মানটা তো দেয়া উচিত। মাঠ থেকে অবসরের সুযোগ দেয়া উচিত। কারণ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের অবদান খাটো করে দেখার কোনো সুযোগ নেই। বহু ম্যাচ জিতিয়েছে আমাদের।’

শেষ পর্যন্ত যখন তার দলে জায়গা হয়নি, তখন বিসিবি তার সঙ্গে অবসরের বিষয়ে আলোচনা করে। সামাজিক মাধ্যমে ঘোষণা না দিয়ে যেন মাঠ থেকে অবসর নিতে পারেন, সেজন্য ত্রিদেশীয় সিরিজে খেলার জন্য তাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। কিন্তু রিয়াদ তাতে অস্বীকৃতি জানান। টাইগারদের সাবেক টি-টোয়েন্টি অধিনায়কের বয়সটা ৩৬ হলেও তিনি এখনই দমে যেতে চান না। এ সংস্করণে নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করে দেশের হয়ে খেলতে চান আরও দুই বছর।

এ বিষয়ে ক্রিকবাজকে বিসিবির এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, মাহমুদউল্লাহ এ বিষয়ে রাজি হয়নি। তিনি এখনই বিদায় নিতে চান না। তিনি জানিয়েছেন, আরও দুই বছরের মতো খেলতে চান। জাতীয় দলে তার জায়গা ফিরে পেতে চান।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

খেলা বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image