• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৪ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ১৮ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

বিএনপি-জামায়াতের আসল উদ্দেশ্য নিরপেক্ষ নির্বাচন নয়: ইনু


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শনিবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৬:১৩ পিএম
মূল বিরোধ নিরপেক্ষ নির্বাচন
জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু

ডেস্ক রিপোর্টার: বিএনপি-জামায়াতের আসল উদ্দেশ্য নিরপেক্ষ নির্বাচন নয় বলেছেন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি।

তিনি বলেন, বিএনপি-জামাত ও তাদের রাজনৈতিক শরীকদের ভাব দেখে মনে হচ্ছে, তারা নির্বাচনের আগেই ক্ষমতার প্রশ্ন ফয়সালা করতে চায়। তাদের আসল দাবি কি নিরপেক্ষ নির্বাচন, না সরকার উৎখাত?

হাসানুল হক ইনু আজ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে একথা বলেন।  রাজধানীর শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

তিনি  বলেন, বাংলাদেশে চলমান রাজনীতির প্রধান প্রশ্ন, মূল বিরোধ নিরপেক্ষ নির্বাচন, না-কি ২০০৮ সাল থেকে রাষ্ট্রীয় সাংবিধানিক রাজনীতিতে যে পরিবর্তনের ধারার সূত্রপাত হয় তা রোধ করা, পাল্টে দেয়া? নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠান, নির্বাচন কমিশন গঠনের আইন প্রণয়ন, নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন, নির্বাচনকালীন সরকারের ধরণ, ধারণ, ক্ষমতা, এখতিয়ার, ভূমিকা ইত্যাদি কি আসল বিষয় না-কি নির্দলীয় সরকারের নামে বর্তমান সরকারকে হঠিয়ে বা পদত্যাগে বাধ্য করা বা উৎখাত করা আসল বিষয়?
 
জাসদ সভাপতি বলেন, দেশে ক্ষমতার বিরোধ হচ্ছে, সংঘাত হচ্ছে। এই বিরোধে একপক্ষ বাংলাদেশ রাষ্ট্রের অস্তিত্ব ভিত্তি মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, সংবিধানের মৌলিক নীতিমালা, মীমাংসিত মৌলিক বিষয় বিরোধী পাকিস্তানপন্থী ধর্মান্ধ সাম্প্রদায়িক ধারা, আরেকপক্ষে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পক্ষে অসাম্প্রদায়িক শক্তি। তাই শুধু নিরপেক্ষ নির্বাচন এই রাজনৈতিক বিরোধ, ক্ষমতার বিরোধের অবসান করে গণতন্ত্র, রাজনৈতিক শান্তি স্থিতিশীলতা দিতে পারছে না।

তিনি বলেন, অতীতে আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত নিরপেক্ষ নির্বাচনের পর এই মীমাংসিত মৌলিক রাজনৈতিক বিরোধের সমাধান হয়নি।  যুদ্ধাপরাধীদের সাথে নিয়ে নির্বাচনের পর সরকার গঠিত হয়েছে। ক্ষমতায় থেকেই রাষ্ট্রীয় মদদ দিয়ে বাংলাভাই, জেএমবির মত তালেবানি শক্তি তৈরি করেছে। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে শারীরিকভাবে নিশ্চিন্থ করতে ২১ আগস্টের মত ঘটনা ঘটিয়েছে।  

তিনি বলেন, এই যুদ্ধ পরিস্থিতির অবসান, বিরোধের অবসান, সংঘাতের অবসান করে গণতন্ত্র ও রাজনৈতিক শান্তি চাইলে শুধুমাত্র নির্বাচন না, মীমাংসিত মৌলিক রাজনৈতিক প্রশ্নে ঐকমত্য প্রয়োজন।

সভায় দেশের সর্বশেষ রাজনৈতিক পরিস্থিতির উপর খসড়া রাজনৈতিক রিপোর্ট উপস্থাপন করেন দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি। খসড়া রাজনৈতিক রিপোর্টের উপর আলোচনা করেন দলের সহ-সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদুল ইসলাম, বীরমুক্তিযোদ্ধা শফি উদ্দিন মোল্লা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাদের চৌধুরী, সাখাওয়াত হোসেন রাঙ্গা, অধ্যাপক মোখলেছুর রহমান মুক্তাদির, আব্দুল্লাহহিল কাইয়ূম  প্রমূখ।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

রাজনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image