• ঢাকা
  • বুধবার, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২৪ জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

ঢাকার ৬২টি ইউনিয়নে চালু হচ্ছে ক্যাশলেস স্মার্ট সেবা


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০৬:৩৩ পিএম
ঢাকার, ৬২টি ইউনিয়নে, চালু হচ্ছে, ক্যাশলেস স্মার্ট সেবা

নিজস্ব প্রতিবেদক : ক্যাশলেস স্মার্ট ইউনিয়ন পরিষদ সেবার আওতায় ঢাকা জেলার ৬২টি ইউনিয়নের নাগরিকরা এখন থেকে নিজস্ব ইউনিক আইডি ব্যবহার করে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ঘরে বসেই হোল্ডিং ট্যাক্স প্রদান করতে পারবেন। ট্যাক্স প্রদান করার সাথে সাথে ট্যাক্স প্রদানের রশিদ দেখা ও ডাউনলোড করা যাবে।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) ঢাকা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি জানান জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান। আগামী শনিবার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ক্যাশলেস স্মার্ট সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম এমপি।

জানা যায়, এই সেবার আওতায় নাগরিকরা বিকাশের মাধ্যমে ঘরে বসেই হোল্ডিং ট্যাক্স প্রদান করতে পারবেন। ট্যাক্স প্রদান করার সাথে সাথে রশিদও দেখতে ও ডাউনলোড করতে পারবেন।

ঢাকা জেলার ৬২টি ইউনিয়নের সকলের ব্যক্তিগত তথ্য, খানা জরিপ তথ্য, আবাসন তথ্য, হোল্ডিং তথ্যের সমন্বয়ে প্রায় ৪ লক্ষ ডেটা এন্ট্রি করা হয়েছে। আদর্শ কর তফসিল ২০১৩ অনুযায়ী ধার্য করা হয়েছে কর, যার ফলে রাজস্ব আদায় বৃদ্ধি পেয়েছে। গত ৩০ এপ্রিল ঢাকা জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আনিসুর রহমান বিকাশ লিমিটেডের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

ইউনিয়ন পরিষদের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের উপস্থিতি, স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা, এবং নাগরিক সেবা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে প্রতিটি ইউনিয়নে অনলাইন বায়োমেট্রিক হাজিরা মেশিন স্থাপন করা হয়েছে, যা সেন্ট্রালি মনিটর করা যায়। হোল্ডিং ট্যাক্স ছাড়াও ঢাকায় নাগরিক, ওয়ারিশ, পারিবারিক, ট্রেড লাইসেন্সসহ বিভিন্ন ধরণের অনলাইন সেবা দেওয়া হচ্ছে।

সনদ যাচাইয়ের জন্য QR কোড স্ক্যান করে ভূমি অফিস, পাসপোর্ট অফিস, ব্যাংকসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান সনদ/ট্রেড লাইসেন্সের সঠিকতা যাচাই করতে পারছে। স্মার্ট ইউপি, ঢাকা মোবাইল অ্যাপ বা ওয়েবসাইটের (smartup.gov.bd) মাধ্যমে সকল ইউনিয়ন পরিষদের সেবা পাওয়া যাবে।

ঢাকা জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের অন্যান্য সকল সেবার ফি বিকাশের মাধ্যমে প্রদানের প্লাটফর্ম চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে, যা জনগণের সময়, খরচ ও ইউনিয়ন পরিষদে যাতায়াত কমাবে। প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে এবং নাগরিক সেবা সহজীকরণের ক্ষেত্রে এই কার্যক্রম একটি উদাহরণ স্থাপন করবে।

 

ঢাকানিউজ২৪.কম / জেডএস/সানি

আরো পড়ুন

banner image
banner image