• ঢাকা
  • শনিবার, ১৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ২৮ জানুয়ারী, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে দক্ষিণ যুবলীগের সমাবেশ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বুধবার, ১১ জানুয়ারী, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০৪:২৮ পিএম
বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস
ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সমাবেশ

স্টাফ রিপোর্টার, জহিরুল ইসলাম সানি : গতকাল ১০ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

বুধবার (১১ জানুয়ারি) সকালে জাতীয় শহীদ মিনারের পাদদেশে বাংলাদেশ আওয়ামী দক্ষিণ যুবলীগের  অবস্থান কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত মাইনউদ্দিন রানা। অনুষ্ঠানে সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন রেজাউল করিম রেজা।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেছেন, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস। ১৯৭২ সালের এই দিনে তিনি যুদ্ধবিধ্বস্ত স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশের মাটিতে পা রেখেছিলেন। সেই থেকে ১০ জানুয়ারি দিনটিকে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

তিনি বলেন, দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য যে বাংলাদেশের একটা তথাকথিত বিরোধী দল, বিএনপি- জামায়াত আজ অপপ্রচারের আশ্রয় নিয়ে বিভিন্ন রকমের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত, শেখ হাসিনার জনবান্ধব সরকারকে পরাস্ত করে কীভাবে ক্ষমতায় আসা যায়, কীভাবে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা রোধ করা যায়, তাদের উদ্দেশ্য ছিল বাংলাদেশকে মৌলবাদী, ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করা। আমি বিশ্বাস করি আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ-সহ সব সহযোগী সংগঠনের মধ্যে যদি ঐক্য-সমন্বয় থাকে, তাহলে কোনো যুদ্ধপরাধী, রাজাকার, আল বদরের বংশধররা বাংলাদেশের মুক্তিযদ্ধের পক্ষের শক্তিকে পরাজিত করতে পারবে না।'


বিএমপি'র উদ্দেশ্যে যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, আপনারা যে ৭৫ এর অপশক্তিকে বাংলাদেশে ক্ষমতায় আনতে চান, যুবলীগ বেঁচে থাকতে তা কখনো সম্ভব না। আমরা রাজনী‌তির মাঠে থেকেই রাজনৈ‌তিকভাবে বিএন‌পি‌কে জবাব দেওয়া হবে। এ‌ লক্ষেই দল‌টির নেতা-কর্মীরা রাজপথে। বিএন‌পি গণঅবস্থান কর্মসূ‌চির নামে কোন নাশকতার চেষ্টা‌ করলে, তা কঠোরভাবে জবাব দিবে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ।

এ সময় ২০২৪ সালে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে যে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে, সে নির্বাচনে আমরা বিপুল ভোটে আওয়ামী লীগকে জয়ী করব। এজন্য যুবলীগ-কে মাঠে থাকার আহ্বান জানান তিনি।

উক্ত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, ইতিহাসের মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবিসংবাদিত নেতৃত্বে দীর্ঘ আন্দোলন সংগ্রামের পথপরিক্রমায় পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে দুর্বার প্রতিরোধ গড়ে তোলে বাঙালি জাতি। বাঙালি জাতিকে মুক্তির মহামন্ত্রে উজ্জীবিত করে স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের পথে এগিয়ে নিয়ে যান বঙ্গবন্ধু। তিনি বলেন-বঙ্গবন্ধু ২৯০দিন পাকিস্তানের কারাগারে প্রতি মূহুর্তে মৃত্যুর প্রহর গুনতে গুনতে ১৯৭২ সালের ৮ জানুয়ারি মুক্তি পান। মুক্তি পেয়ে লন্ডনের হিথ্রো বিমান বন্দর থেকে দিল্লি হয়ে ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি বাংলার মাটিতে পা রাখেন বাঙালি জাতির ইতিহাসের মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনি আরও বলেন-সদ্য স্বাধীন যুদ্ধ-বিধ্বস্ত বাংলাদেশের কিছুই ছিল না। সব ঐ ফেরাউনের দলেরা শেষ করে দিয়ে গিয়েছিল। মাত্র সাড়ে তিন বছরের শাসনামলে যুদ্ধ-বিধ্বস্ত বাংলাদেশকে একটি সুন্দর কাঠামোর উপর দাঁড় করান জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনি আরও বলেন-প্রশাসনের এমন কোন সেক্টর নেই যেখানে তিনি তাঁর মেধা ও প্রজ্ঞা স্বাক্ষর রাখেননি। তাঁরই দেখানো পথে, তাঁরই অসমাপ্ত কাজ স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছেন বঙ্গবন্ধুকন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সফল রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা। 

তিনি আরও বলেন-এই বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ, এই বাংলাদেশ  মুসলমান, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান-সহ সকল ধর্মাবলম্বীদের। এই বাংলাদেশকে নিয়ে, বাংলাদেশের উন্নয়নকে নিয়ে, বঙ্গবন্ধুকন্যা রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনাকে নিয়ে যারাই ষড়যন্ত্র করবে বা ষড়যন্ত্র করার ধৃষ্টতা দেখাবে, তাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ এর নেতৃত্বে আমরা যুবলীগের প্রতিটি নেতা-কর্মীরা রুখে দাঁড়াবো, তাদের সকল ষড়যন্ত্রের দাঁতভাঙ্গা জবাব দিব-বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে এই হোক যুবলীগের অঙ্গীকার।


অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক-সম্পাদক মির্জা আজম, এমপি।

এছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী যুবলীগের যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোঃ হাবিবুর রহমান পবন, ড. সাজ্জাদ হাওলাদার লিটন, ইঞ্জিনিয়ার মিনাল কান্তি জোয়ারদার, মোঃ জসিম মাতব্বর, সহ-সম্পাদক মোঃ বাবলুর রহমান, সহ-সম্পাদক হিমেলুর রহমান হিমেল, সহ-সম্পাদক আহতাসামুল হাসান ভূঁইয়া রুমি, সহ-সম্পাদক আবু রায়হান রুবেল, সহ-সম্পাদক মনিরুল ইসলাম আকাশ, সাংস্কৃতিক-সম্পাদক বিপ্লব মোস্তাফিজ, পরিবেশ-সম্পাদক মোঃ হারিস মিয়া শেখ সাগর, মহিলা-সম্পাদক এ্যাড মুক্তা আক্তার, উপ-তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি-সম্পাদক এন আই আহমেদ সৈকত, উপ ক্রিয়া-সম্পাদক আব্দুর রহমান ও কার্যনির্বাহী সদস্য মানিক লাল ঘোষ, মোঃ মুজিবুল রহমান মুজিব, এ বি এম আরিফ হোসেন, মোঃ বজলুল করিম মির, এ্যা শেখ মোঃ তরিকুল ইসলাম, মোঃ আরিফুর ইসলাম উজ্জল, ড. মোঃ রায়হান সরকার রিজভী।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

রাজনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image