• ঢাকা
  • শনিবার, ১৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ২৮ জানুয়ারী, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

স্মার্ট বাংলাদেশ গড়াই আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের অঙ্গীকার


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শনিবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৪:১৫ পিএম
শনিবার,সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে, আওয়ামী লীগ
শনিবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ২২তম জাতীয় সম্মেলনের মঞ্চ পরিদর্শন করেন আওয়ামী লীগ নেতারা

মোহাম্মদ রুবেল

আগামী দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচন, বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দা বিবেচনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনিমার্ণের লক্ষ্য নিয়ে আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় সম্মেলন অত্যন্ত অর্থবহ হবে। একইসঙ্গে সম্মেলনের মাধ্যমে যে নতুন নেতৃত্ব আসবে সেই নেতৃত্বের অধীনেই ২০২৪ সালের শুরুতে জাতীয় নির্বাচনের মধ্য দিয়ে শেখ হাসিনাকে চতুর্থবারে মতো টানা প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার অঙ্গীকার থাকবে বলে জানিয়েছেন দলটির নেতারা।

শনিবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ২২তম জাতীয় সম্মেলনকে সামনে রেখে মঞ্চ ও সাজসজ্জা উপ-কমিটির পক্ষ থেকে সম্মেলনস্থলে পরিদর্শনে এসে নেতারা এমন প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন। 

সম্মেলনস্থল ঘুরে দেখে জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, ‘বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ একটি প্রাচীনতম রাজনৈতিক দল। এই দলটি বলেছিল ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করবে। সেই লক্ষ্য বাস্তবায়নের পর এবার আসন্ন কাউন্সিল আমাদের বক্তব্য আসছে, নতুন প্রত্যয়বাদ আসছে। আমরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্মার্ট বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করবো। আগামী ২৪ ডিসেম্বর শনিবার জাতীয় কাউন্সিল বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দার কারণে অত্যন্ত সাদামাটা ও সংক্ষিপ্ত পরিসরে করার জন্য আমাদের নেত্রীর নির্দেশনা রয়েছে।’ 

তিনি আরও বলেন,বাংলাদেশের প্রাচীনতম ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ। দীর্ঘ সময় ধরে দুই দিনব্যাপী আমাদের কাউন্সিল সম্পন্ন হয়ে আসছিল। কিন্তু এবার প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে একদিনেই তা সম্পন্ন করা হবে। 

আওয়ামী লীগের কাউন্সিলকে সামনে রেখে ঢাকা শহরসহ সারাদেশে নতুন সাজে সজ্জিত করার ইতিহাস রয়েছে। কিন্তু এবার আমরা ঢাকা মহানগরসহ বাংলাদেশের কোথাও সাজসজ্জার দিকে যাচ্ছি না। সম্মেলন সাদামাটা করা হলেও লাখো আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী, কাউন্সিলর, ডেলিগেটরা আসবেন। তাদের উচ্ছ্বাসের কোনো ঘাটতি থাকবে না। 

তিনি বলেন, আমরা কাউন্সিলের সমস্ত আয়োজন সম্পন্ন করছি। ইতোমধ্যে মঞ্চ প্যান্ডেলসহ আনুষঙ্গিক সব কিছু তৈরি করার দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। আশা করি, আগামী ২১ ডিসেম্বরে মধ্যে পরিপূর্ণভাবে সমস্ত আয়োজন সম্পন্ন করতে পারব।

কাউন্সিলে বিএনপিকে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আমন্ত্রণ জানানো হবে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে সভাপতিমণ্ডলীর এ সদস্য বলেন, এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে আমরা প্রতিবারই তাদের আমন্ত্রণ জানিয়ে থাকি।

দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, এটা একটা বিশাল মিলন-মেলায় পরিণত হবে। এই মিলন-মেলায় তরুণ-প্রবীণ নেতাকর্মীরা যারা আওয়ামী লীগের সঙ্গে, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সঙ্গে সারাজীবন কাজ করেছে, তাদের অংশগ্রহণ নতুন অধ্যায়ের সূচনা করবে। 

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম বলেন, এ সম্মেলন আমাদের বিশাল কর্মযজ্ঞ। যদিও সাদামাটাভাবে এবারের সম্মেলন করার নির্দেশনা রয়েছে। এ সম্মেলনের মাধমে যে নতুন নেতৃত্ব আসবে সেই নেতৃত্বের অধীনেই ২০২৪ সালের জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সেই নির্বাচনে মধ্য দিয়ে আমাদের নেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে চতুর্থবারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করব। 

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন দলের সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, আইন সম্পাদক নজিবুল্লাহ হিরু, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, বন ও পরিবেশ সম্পাদক দেলোয়োর হোসেন, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য এবিএম রিয়াজুল কবির কাওসার প্রমুখ।

ঢাকানিউজ২৪.কম / এমআর

রাজনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image