• ঢাকা
  • শনিবার, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২০ জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

গৌরীপুর-ঢাকা সড়কে ৩দিন যাবৎ বাস চলাচল বন্ধ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ০২ জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০১:৩৬ পিএম
গৌরীপুর-ঢাকা সড়কে
৩দিন যাবৎ বাস চলাচল বন্ধ

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ময়মনসিংহ ও গৌরীপুর মালিক সমিতির দ্বন্দ্বে তিনদিন যাবৎ গৌরীপুর থেকে সরাসরি ঢাকা বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। 

রবিবার (৩০ জুন) থেকে এই বাস সার্ভিস বন্ধ হয়ে যায়। এতেকরে গৌরীপুর থেকে ঢাকা এবং ঢাকা থেকে গৌরীপুরে আসা-যাওয়া করা যাত্রীরা চরম বিপাকে পড়েছে। শনিবার ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া ধূমকেতু পরিবহনের যাত্রীদের ময়মনসিংহ ব্রিজে মালিক সমিতি ও কর্মচারী ইউনিয়নের শ্রমিকরা নামিয়ে দেন। 

এ ঘটনার প্রতিবাদে গৌরীপুর মালিক ও শ্রমিকরা রবিবার গৌরীপুর থেকে ঢাকা সড়কে চলাচলকারী বাস সার্ভিস বন্ধ করে দিয়েছে।

জানা যায়, ধূমকেতু ট্রাভেলসের চেয়ারম্যান মো. মাহবুবুর রহমান গত ২জুন মালিক সমিতির সদস্য শাহীনুর রহমানের গাড়ি (ঢাকা মেট্টো ব-১৫-৫২৭৫) কে সকাল ৪টায় ও নুরুল ইসলামের গাড়ি (ঢাকা মেট্টো-ব- ১৫-৬৩১২) গাড়িকে সকাল সাড়ে ৪টায় ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়ার অনুমতি দেয়। এ নির্দেশনা অনুযায়ী মান্নান পরিবহনের গাড়ি শনিবার সকাল ৪টায় ও ধূমকেতু পরিবহনের গাড়িটি সকাল সাড়ে ৪টায় ছেড়ে যায়। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেন মান্নান পরিবহনের বুকিং মাস্টার আরিফ মিয়া। তিনি বলেন, আমি দাঁড়িয়ে থেকে ওই গাড়ী বিদায় করেছি। ধূমকেতু পরিবহনের মালিক মো. নুরুল ইসলাম বলেন, তাদের বেঁধে দেয়া নির্ধারিত সময়ে গাড়ি ছাড়ার পরও যাত্রীদের হেনস্তা করা হয়েছে। যাত্রীরা বাসের শ্রমিকদের মারধর করতে এসেছে। তাই শ্রমিকদের নিরাপত্তা না থাকায় ও যাত্রীদের হেনস্তা করার কারণে আমরা বাস সার্ভিস বন্ধ করে দিয়েছি।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মঙ্গলবার (২জুলাই) কোনো বাস ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়নি। মটরযান কর্মচারী ইউনিয়ন কার্যালয়ের দু’প্রান্তে ধূমকেতু ট্রাভেলসের দু’টি কাউন্টারের সাইবোর্ড ঝুলছে। কাউন্টারে কেউ নেই। দীর্ঘদিনের প্রথা অনুযায়ী ভোর ৪টা ও ৪টা ১০মিনিটে কয়েকজন যাত্রী এসে বাস টার্মিনাল থেকে ফিরে গেছেন।

স্ট্যান্ডের একাধিক শ্রমিক বলেন, গৌরীপুরের বাস ৪টা আর ৪টা ১০মিনিটে ছাড়লে ঢাকায় গিয়ে যাত্রীরা অফিস করতে পারে। সেখানে হঠাৎ করে ৪টা ৩০মিনিট করায় যাত্রীদের সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। এখান থেকে ৭টি বাস গেলে পর্যায়ক্রমে সপ্তাহে একদিন সবাই ফাস্টটিপ পেয়েছে। সেখানে একটি বাসকে ফাস্টটিপ নির্ধারণ করে দেয়া সম্পূর্ণ অনিয়ম। পূর্বের নিয়মেই বাস চলাচল করা উচিত।

অপরদিকে এসব অনিয়মের প্রতিবাদে ও ৬জুন ভোরে ময়মনসিংহ ব্রিজে যাত্রী নামিয়ে হয়রানির প্রতিবাদে ওইদিন ক্ষুব্দ বাসমালিক ও শ্রমিক ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের গৌরীপুর উপজেলার রামগোপালপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় সড়ক অবরোধ করেন। এ সময় রাস্তার দু’দিকে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে গৌরীপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ মো. সুমন মিয়ার নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। তিনি এ সময়, আন্দোলনকারীদেরকে দাবি পূরণে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে দ্রæত সমাধানের আশ^াস দেন।
গৌরীপুরের বাসমালিক ও পৌরসভার কাউন্সিলর মো. নুরুল ইসলাম জানান, বাসের যাত্রীদের ব্রিজে নামিয়ে দেয়ায় চালক-হেলপাড় যাত্রীদের নিকট লাঞ্চিত হয়েছেন। বিক্ষুব্দ যাত্রীদের রোষানলে পড়ছি আমরাও। শ্রমিকরা এ ঘটনার প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ করেছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শাকিল আহমেদ বলেন, আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে এ বিষয়টির সুরাহা করবো।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image