• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ৭ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ২০ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী সকলের ঐক্য চাই: মন্টু


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ০৮:১৬ পিএম
বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তফা মোহসীন মন্টু বলেন একাত্তর সালে জীবনের ঝুকি নিয়ে
প্রেসক্লাবে গণফোরাম আয়োজিত আলোচনা সভা

নিউজ ডেস্ক:  স্বাধীনতার সূর্বণজয়ন্তী উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাবে গণফোরাম আয়োজিত "দুঃশাসন উত্তরনে বীর মুক্তিযোদ্ধার চোখো আজ ও আগামীর বাংলাদেশ" শীষক আলোচনা সভায় দলের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তফা মোহসীন মন্টুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয় । সভায় বক্তব্য রাখনে জে এস ডি সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আসম আব্দুর রব, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী বীর বিক্রম, ডা. জাফর উল্লাহ চৌধুরী, অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ, এডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, এডভোকেট জগলুল হায়দার আফ্রিক, আব্দুল হাসিব চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা খান সিদ্দিকুর রহমান , এডভোকেট মো হিলাল উদ্দিন , নিলুফার ইয়াসমিন শাপলা প্রমূখ।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তফা মোহসীন মন্টু বলেন একাত্তর সালে জীবনের ঝুকি নিয়ে দেশমাতৃকাকে মুক্ত ও স্বাধীনতার করার জন্য বঙ্গবন্ধুর ডাকে মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়ে ছিলাম। একটাই প্রতিঞ্গা ছিল দেশকে হানাদার পাকিস্তানী বাহিনীর হাত থেকে মুক্ত করব । কিছু সংখ্যক পাকিস্তানী, রাজাকার আলবদর, আল সামস ছাড়া সকলেই আমাদের সহায়তা করেছে । আমরা এক্যবদ্ধ হতে পেরেছিলাম বলেই বিজয় অর্জন সম্ভব হয়েছেিল ।  ভারত রাশিয়া আমাদের মুক্তি যুদ্ধে সর্বাতক সহায়তা করেছে । আমরা তাদের কাছে । সারাদেশের মানুষ মুক্তিযুদ্ধের বিজয় ও স্বাধীনতার সূর্বণজয়ন্তী উদযাপন করছে। সরকার রাষ্ট্রীয় অর্থ ও সম্পদ অপচয় করে অনুষ্ঠান করছে । মুক্তিযোদ্ধারা আজ বন্চিত ।

তিনি বলেন আজ আমরা স্বাধীন ভূখন্ড পেয়েছি, বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্র পেয়েছি, বাকী রয়েছে সমাজ-রাষ্ট্রে গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা ও অর্থনৈতিক মুক্তি । গনতন্ত্রের জন্য সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করে সরকার প্রতিষ্ঠা করলাম । তারা  দুঃশাসন প্রতিষ্ঠা করেছে ।  মানুষের ভোটের অধিকার ছিনিয়ে নিয়েছে । এর বিরুদ্ধে চাই মুক্তি যুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী সকল মানুষের ঐক্য ।

সর্বজনীন শ্রদ্ধেয় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাষ্টি ডা. জাফরউল্লাহ চৌধুরী বলেন, আজকে অনেকেই উন্নয়নের কথা বলেন উন্নয়ন ধুয়ে কি পানি খাবো? গণতন্ত্র না থাকলে সত্যিকারের উন্নয়ন হয়না আমরা ১৯৭১ এ যুদ্ধ করেছিলাম ভোটের অধিকারের জন্য সেটা যদি না থাকে, খোলা মনে যদি কথা বলতে না পারি তবে লাভটা কি?

বাংলাদেশের প্রথম পতাকা উত্তোলন কারী ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) সভাপতি আ.স.ম. আব্দুর রব বলেন, আমি তরুণদের বলছি দেশ তোমাদের এই দেশ রক্ষার জন্য যুদ্ধ তোমাদেরই করতে হবে এই দুর্দশা থেকে জাতিকে রক্ষা করতে হবে। বর্তমান শি ক্ষা ব্যবস্হার সমালোচনা করে বলেন একটা কথা মনে রাখবেন সম্পদ হারালে সম্পদ পাওয়া যায় কিন্তু মেধা ধ্বংস করে দিলে তা সহজে তৈরী করা যায় না । বিজ্ঞান ও গবেষণায় জোর দিয়ে ভবিষ্যৎ এ শক্তিশালী জাতি গড়তে হবে।

কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সভাপতি বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী (বীর উত্তম) বলেন, গণফোরামকে বলছি আপনাদেরকে রাস্তায় নামতে হবে ছাদের নিচে বসে প্রোগ্রাম করলে হবে না। বঙ্গবন্ধুর শ্রেষ্ঠ অর্জন ছিলো ভীত বাঙ্গালীকে সাহসী করেছিলেন আর বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার অর্জন তিনি সেই সাহসী বাঙ্গালীকে রাস্তার ফকির বানিয়ে দিয়েছেন।  সম্মিলিত মানুষ সবচেয়ে বড় শক্তি তারাই রাষ্ট্রের নিয়ন্ত্রক তাদের ক্ষমতা বাড়াতে হবে। তবেই মিলবে মানুষের মুক্তি, ফিরে আসবে গণতন্ত্র।

ঢাকানিউজ২৪.কম /

রাজনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image