• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ২৮ জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

অবিলম্বে বন্যা দুর্গতদের এক হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হোক: গণফোরাম


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বুধবার, ২২ জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১১:৪২ এএম
অবিলম্বে বন্যা দুর্গতদের এক হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হোক
গণফোরাম

ডেস্ক রিপোর্টার: গণফোরাম সভাপতি জননেতা মোস্তফা মোহসীন মন্টু তার নিজ কার্যালয়ে গণফোরাম নির্বাহী পরিষদের সভায় বলেন- অবিলম্বে বন্যা দুর্গতদের জন্য এক হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হোক। এই সহায়তা কার্যক্রম সরাসরি সেনাবাহিনী কর্তৃক পরিচালিত হবে। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার জনগণের খাদ্য, বাসস্থান ও চিকিৎসার সকল দায়ভার সরকার কে বহন করতে হবে।

ভবিষ্যতে প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় কার্যকরী পদক্ষেপ নিয়ে বিশেষভাবে পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা করতে হবে। নদীর পানিপ্রবাহ বাঁধার সৃষ্টি তো করা যাবেই না বরঞ্চ নদী-খাল-বিল-হাওর-বাওর খনন করার দ্রুত উদ্যোগ নিয়ে দেশকে রক্ষা করতে হবে।

ভারতের সাথে রাষ্ট্রীয় জরুরী বৈঠকের মাধ্যমে পানির সমস্যা সমাধানের যথাযথ ব্যবস্থা করতে হবে। শুধু বড় বড় বুলি না আওড়িয়ে জনগণের জান-মালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার কার্যকরী উদ্যোগ নিতে উদাত্ত আহবান করেন মোস্তফা মোহসীন মন্টু।

গণফোরাম নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ বলেন- সমগ্র বাজেট দুর্নীতিবাজদের লুটপাট করার সুবিধা দেওয়ার জন্য করা হয়েছে সাধারণ জনগণ পুরোপুরিভাবে উপেক্ষিত হবে। সংবিধান লঙ্ঘন করে অবৈধ সম্পদ অর্জনের যে জন্য পাচারকৃত অর্থ বৈধ করার সুযোগ দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে তা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ। রাষ্ট্রের নৈতিকতা পুরোপুরিভাবে ধ্বংস করতে পরিকল্পিত ভাবে অনুপার্জিত আয়ে উৎসাহী করা হচ্ছে। রাষ্ট্র এতে ভয়াবহ হুমকির সম্মুখীন হবে এবং তলাবিহীন ঝুড়িতে রূপান্তরিত হবে। এ বাজেট দুর্নীতিবাজ-লুটেরাদের পক্ষের বাজেট গণফোরাম এ বাজেট প্রত্যাখ্যান করছে।

গণফোরাম সাধারণ সম্পাদক সিনিয়র এডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বলেন- সাধারণ জনগণ যখন জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে শংকিত তখন আপনারা তথাকথিত উন্নয়নের নামে আনন্দ মিছিল বের করে জনতার সাথে তামাশা করছেন। পদ্মা সেতুর জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের বরাদ্দ অর্থ বন্যা দুর্গতদের জন্য ও ভবিষ্যৎ দুর্যোগ মোকাবেলায় বরাদ্দ করুন। গণফোরাম জনগণের ক্ষমতায়নের জন্য লড়াই করে সেখানে নির্দলীয় অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের অধীন ব্যতীত কোন সুষ্ঠু নির্বাচনের সুযোগ নেই। এই অবৈধ ক্ষমতাসীন সরকারকে মসনদে রেখে সেখানে ভোট ইভিএমে হবে নাকি হবেনা? এই আলোচনা করা অর্থহীন।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন গণফোরাম নির্বাহী সভাপতি এডভোকেট এ.কে.এম. জগলুল হায়দার আফ্রিক, এডভোকেট মহিউদ্দিন আবদুল কাদের ও সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব খান ফারুক।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

রাজনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image