• ঢাকা
  • সোমবার, ৩ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ১৭ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

১৫ থেকে ১৯ বছর বয়সে গর্ভবতী হচ্ছে ২৮ শতাংশ নারী


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২১ ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১২:৩৮ এএম
আর আগের মতো অবস্থানে আসা সম্ভব হয় না
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আয়োজিত সেবা ও প্রচার সপ্তাহের উদ্বোধন

মনিরুজ্জামান মনির, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা  প্রতিনিধিঃ  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আয়োজিত সেবা ও প্রচার সপ্তাহের উদ্বোধন উপলক্ষে এ প্রচারপত্র বিলি করা হয় বাংলাদেশে শতকরা ২৮ ভাগ কিশোরী  ১৫ থেকে ১৯ বছর বয়সে গর্ভবতী হয়। শুধু তাই নয় ২০ থেকে ২৪ বছর বয়সী নারীদের মধ্যে শতকরা ৫৯ জনের বিয়ে হয় ১৮ বছরের আগেই, যা বিশ্বে চতুর্থ নিম্নতম অবস্থানে রয়েছে।

অথচ বাংলাদেশে মেয়েদের বিয়ের আইনগত বয়স ১৮ বছর। পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহ উপলক্ষে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের প্রচারপত্রে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রচারপত্রে ২০১৭-২০১৮ সালের জরিপের কথা উল্লেখ করে এ তথ্য দেওয়া হয়েছে। রবিবার । প্রচারপত্রে  উল্লেখ করা হয়, কিশোরী মায়ের গর্ভে শিশুর বৃদ্ধি ব্যাহত হওয়া, কম ওজন, প্রজননতন্ত্রের সংক্রমণ ইত্যাদি কারণে কিশোরী মেয়েরা স্বাস্থ্য ঝুঁকির মধ্যে থাকে। পরিণামে তাদের  প্রসবকালে বা প্রসব পরবর্তী মৃত্যু ঝুঁকি বাড়ে।

দুপুরে পৌর এলাকার মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে সেবা সপ্তাহের উদ্বোধন করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন ডা. মো. একরাম উল্লাহ। পরিবার ও পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক মো. মতিউর রহমানের সভাপতিত্বে ও সহকারি পরিচালক মো. মোস্তফা কামাল এর সঞ্চালনায় এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের মেডিক্যাল অফিসার শিরিন সুলতানা, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের মেডিকেল অফিসার মো. সাজ্জাদ হোসেন।

বক্তারা বলেন, ‘অপরিণত বয়সে বাল্য বিয়ে ব্যক্তি জীবনে ঝুঁকি বাড়ায়। ওই কিশোরীকে আর আগের মতো অবস্থানে আসা সম্ভব হয় না। বাল্য বিয়ে রোধ নিয়ে আমাদেরকে কাজ করতে হবে। মাতৃমৃত্যু শূণ্য করার ক্ষেত্রে বাল্য বিয়ে প্রধান অন্তরায়।’

টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্য অনুযায়ী বাংলাদেশে মাতৃমৃত্যু ২০৩০ সালের মধ্যে ৭০-এ নামিয়ে আনার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারিত হয়েছে। 

ঢাকানিউজ২৪.কম /

নারী ও শিশু বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image