• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০১ জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

পুরান ঢাকায় পালিত হচ্ছে ঘুড়ি উৎসব পৌষ সংক্রান্তি


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শুক্রবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০২:২৭ পিএম
ঘুড়ি
পুরান ঢাকার একটি ঘুড়ির দোকান, ফাইল ছবি

সুমন দত্ত:  পুরান ঢাকায় পালিত হচ্ছে পৌষ সংক্রান্তি। প্রতি বছর বাংলা মাস পৌষের ৩০ তারিখ ও ইংরেজি ১৪ জানুয়ারি এই উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। পৌষ সংক্রান্তিতে পুরান ঢাকার একাংশের মানুষ বাড়ির ছাদে ঘুড়ি উড়িয়ে নেচে গেয়ে দিন পার করে। সূত্রাপুর, লক্ষ্মীবাজার, ফরাশগঞ্জ, শাঁখারি বাজার, তাঁতি বাজার, কাগজিটোলা, সিংটোলা, গেণ্ডারিয়া, দক্ষিণ মৈশুন্ডি, নারিন্দা, ধোলাইখাল। এই এলাকাগুলোতে প্রতি বছর পৌষ সংক্রান্তি পালন করে থাকেন। পৌষ সংক্রান্তির অনুষ্ঠান চলে সকাল ৮ টা থেকে রাত ১২ টা পর্যন্ত। দিনের বেলা ঘুড়ি উড়ানো শেষে সন্ধ্যা বেলা আতশবাজি পুড়িয়ে উৎসবের ইতি টানা হয়। এরপর শুরু হয় ডিজে পার্টি। এতে যোগ দেয় নতুন ঢাকা থেকে আগত অতিথিরা। পুরো অনুষ্ঠানই সম্পন্ন হয় প্রতিটি বাড়ির ছাদে। এদিন নারী পুরুষ সব বয়সের ছেলে মেয়েরা আনন্দ ফুর্তিতে মেতে উঠে। 

পৌষ সংক্রান্তি সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় অনুষ্ঠান হলেও এটা এখন সার্বজনীন উৎসব হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। এদিন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা বিশেষ পূজা দেন। অনেকে পুণ্যস্নান করেন। তিলা কদমা দই মিষ্টি দিয়ে ঠাকুরকে ভোগ নিবেদন করেন। অনেক হিন্দু পরিবার এদিন নিরামিষ ভোজন করেন। তবে ঘুড়ি উড়ানো অনুষ্ঠানে সবাই এক সঙ্গে যোগ দেন। তখন থাকে না কোনো সম্প্রদায়গত বাধা।  সন্ধ্যা মশাল জ্বালিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। তবে ইদানীং এ অনুষ্ঠানে কিছুটা পরিবর্তন এসেছে। আগে ছাদে ডিজে পার্টির অনুষ্ঠান হতো না। এখন ডিজে পার্টির অনুষ্ঠান হয়। লাল নীল বাতিতে ছেয়ে যায় পুরো পুরান ঢাকা। 

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে মকর সংক্রান্তি বা পৌষ সংক্রান্তিতে মূলত নতুন ফসলের উৎসব ‘পৌষ পার্বণ’ উদযাপিত হয়। নতুন ধান, খেজুরের গুড় ও পাটালি দিয়ে বিভিন্ন ধরনের ঐতিহ্যবাহী পিঠা তৈরি করা হয়, যার জন্য প্রয়োজন হয় চালের গুঁড়া, নারিকেল, দুধ আর খেজুরের গুড়। 

মকর সংক্রান্তি নতুন ফসলের উৎসব ছাড়াও ভারতীয় সংস্কৃতিতে ‘উত্তরায়ণের সূচনা’ হিসেবে পরিচিত। একে অশুভ সময়ের শেষ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। পঞ্জিকা মতে, জানুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে শুরু হয়। এই দিনে দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলার অন্তর্গত সাগরদ্বীপে মকর সংক্রান্তি উপলক্ষে কপিল মুনির আশ্রমকে কেন্দ্র করে পুণ্যস্নান ও বিরাট মেলা অনুষ্ঠিত হয়। সহস্রাধিক পুণ্যার্থে ও অন্যান্য রাজ্য থেকে আগত দর্শনার্থীদের সমাগম হয় এই মেলায়।

ঢাকানিউজ২৪.কম / এসডি

উৎসব / দিবস বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image