• ঢাকা
  • বুধবার, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ১৭ জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

ময়মনসিংহে কোরবানির বর্জ্য ১২ ঘন্টায়  অপসারণ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বুধবার, ১৯ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০৭:৩০ পিএম
কোরবানির বর্জ্য ১২ ঘন্টায়  অপসারণ
ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন

নিজস্ব প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ : ঈদুল আজহা উপলক্ষে কোরবানীর পর দ্রুততম সময়ে বর্জ্য অপসারণ করতে সক্ষম হয়েছে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন। ৫শ' টনেরও বেশি কোরবানী বর্জ্য মাত্র  ১২ ঘন্টার মধ্যে অপসারন করা হয়েছে। যা ইতিমধ্যেই নগরবাসীর প্রশংসা কুড়িয়েছে। 

নগর ভবন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, মসিক মেয়র মোঃ ইকরামুল টিটুর নির্দেশনায় ঈদুল আজহার পশু কোরবানী পরবর্তী বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় মহানগরীর ৩৩টি ওয়ার্ডে ৫০৮টি পয়েন্টসহ বিভিন্ন বাসাবাড়িতে পশু কোরবানী দেয়া হয়। এসব পয়েন্টে যথাসময়ে বর্জ্য সংগ্রহের জন্য বস্তা, ব্লিচিং পাওডার ও ফিনাইল সরবারহ করা হয়েছিল। পশু কোরবানী বর্জ্য ও কোরবানী হাটের বর্জ্য দ্রুততম সময়ে অপসারণে পূর্ব থেকেই ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছিল।

মসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ  ইউসুফ আলী বলেন, পবিত্র ঈদুল আজহার কোরবানির বর্জ্য অপসারণে পর্যাপ্ত পরিমাণে ব্লিচিং পাউডার, ফিনাইলসহ প্রদান করা হয়েছিল। এ ছাড়াও, বর্জ্য সংগ্রহে কোরবানির পয়েন্ট, হাট ইত্যাদি স্থানে ২৫ হাজার বস্তা সরবরাহ করা হয়েছিল। এছাড়া জনগণকে সচেতন করতে কোরবানির পয়েন্টের নামসহ লিফলেট মসজিদ, হাট ও অন্যান্য জনবহুল স্থানে বিতরণ করা হয়েছিল। যার সুফল হিসেবে পরিচ্ছন্ন ময়মনসিংহ নগরী উপহার দিতে পেরেছে সিটি কর্পোরেশন। 

পবিত্র ঈদ উল আজহায় ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন এর কোরবানী বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় ৬শ' পরিচ্ছন্নতা কর্মী, ১টি এক্সকাভেটর, ২টি লোডার, বর্জ্য সংগ্রহকারী ২৪টি গাড়ি এবং জীবাণুনাশক পানি ছিটানোর জন্য ৭টি ট্যাঙ্কার গাড়ি এ কাজে নিয়োজিত ছিল। একই সাথে ৫ হাজার কেজি ব্লিচিং পাউডার এবং ২শ' বোতল ফিনাইল প্রয়োগ করা হয়েছে। এছাড়াও ৩টি ভিজিল্যান্স টিমের নের্তৃত্বে ৩৩ জন স্বেচ্ছাসেবক পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার বিষয়টি নিয়মিত তদারকি করেছেন বলে জানিয়েছেন সিটি কর্পোরেশনের প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা আরিফুর রহমান। 

মসিক মেয়র মোঃ ইকরামুল টিটু নগরবাসীকে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার কাজে সহযোগিতা করার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, প্রতিটি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর এবং অন্যান্য দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের তত্ত্বাবধানে পরিচ্ছন্ন কর্মীরা তৎপর ছিল বলেই দ্রুততম সময়ে শতভাগ বর্জ্য অপসারণ করা সম্ভব হয়েছে।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image