• ঢাকা
  • শনিবার, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৩ ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

ইমরানের অবস্থার উন্নতি, লং মার্চ চলবে


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শুক্রবার, ০৪ নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৪:৩১ পিএম
ইমরানের অবস্থার উন্নতি
পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পায়ে গুলিবিদ্ধ পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের শারীরিক অবস্থার আরও উন্নতি হয়েছে। শুক্রবার লাহোরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ইমরানকে দেখে এসে এ তথ্য জানিয়েছেন দেশটির পাঞ্জাব প্রদেশের শিক্ষামন্ত্রী মুরাদ রাস।

পাঞ্জাবের ওয়াজিরাবাদের আল্লাহু চক এলাকায় বৃহস্পতিবার বিকেলে হামলা হয় পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) দলের চেয়ারম্যান ইমরানের ওপর।

এতে পিটিআইয়ের আরও ছয় সদস্য আহত হয়েছেন। প্রাণ গেছে মুয়াজ্জাম নওয়াজ নামে এক কর্মীর। হামলার পরপরই উদ্ধার করে আহতদের হাসপাতালে নেয়া হয়।

মন্ত্রী মুরাদ বলেন, ইমরান খানের শারীরিক অবস্থার আরও উন্নতি হয়েছে। দেখা যাক চিকিৎসক কী পরামর্শ দেন। ইমরান খান উপস্থিত থাকতে না পারলেও তাদের চলমান লং মার্চের কর্মসূচি চলতে থাকবে বলে জানান তিনি।

এ ছাড়া ইমরানের দলের পক্ষ থেকে দেশজুড়ে জুমার নামাজের পর বিক্ষোভের কর্মসূচিও ঘোষণা করা হয়েছে।

পিটিআই নেতা আসাদ ওমর জানান, ইমরান খানের ওপর হামলার প্রতিবাদে জুমার নামাজের পর দেশজুড়ে বিক্ষোভ হবে। লং মার্চও চলবে।

সাবেক প্রধানমন্ত্রীর পায়ে দুটি গুলি লেগেছে বলে জানান তিনি।

সমর্থকদের কারণেই প্রাণে বেঁচে গেছেন সাবেক ক্রিকেট তারকা ইমরান খান। গুলি শুরুর পরপরই সহকর্মীরা ‘মানববর্ম’ তৈরি করে ফেলায় প্রাণ রক্ষা হয় তার।

পিটিআই নেতা ফাওয়াদ চৌধুরী বলেন, ‘স্পষ্টতই এটা হত্যাচেষ্টা ছিল। বন্দুকধারীকে যদি স্থানীয়রা না থামাত, তবে পিটিআইয়ের পুরো নেতৃত্ব নিশ্চিহ্ন হয়ে যেত।’

টেলিভিশনে প্রচার হওয়া ফুটেজে দেখা যায়, গুলিবিদ্ধ ইমরান তার সমর্থকদের দিকে হাত নাড়ছেন। তারপর তাকে তার বুলেটপ্রুফ পিকআপ ট্রাকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

আরেকটি ফুটেজে দেখা যায়, সন্দেহভাজনকে পিটিআই সমর্থকরা জাপটে ধরেছেন। তারপর তাকে পুলিশ সদস্যরা ধরে নিয়ে যান।

হামলার শিকার হওয়ার পর প্রায় আড়াই ঘণ্টার রাস্তা পেরিয়ে লাহোরের হাসপাতালে নেয়া হয় ইমরান খানকে।

৭০ বছর বয়সী সাবেক তারকা ক্রিকেটার ২০১৮ থেকে ২০২২ সালের এপ্রিল পর্যন্ত পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে ছিলেন। অভিযোগ ওঠে, এ সময়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করে রাষ্ট্রীয় দখলে থাকা উপহার কেনাবেচা করেছেন ইমরান। বলা হচ্ছে, লেনদেন করা এসব উপহারের মূল্য ৬ লাখ ৩৫ হাজার ডলারের বেশি।

এই অভিযোগের ভিত্তিতে ২১ অক্টোবর পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন ইমরান খানকে ভোটে অযোগ্য ঘোষণা করে। তার বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা হবে বলেও জানায় কমিশন।

ওই রায়ের প্রতিবাদে ইমরানের সমর্থকরা বিক্ষোভ শুরু করেন; যা রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তায় জর্জরিত পাকিস্তানকে আরও অন্ধকারে ঠেলে দিয়েছে।

আগাম জাতীয় নির্বাচনের দাবিতে ২৫ অক্টোবর রাজধানীমুখী লং মার্চের ঘোষণা দেন ইমরান। তার নেতৃত্বে ২৮ অক্টোবর লাহোর থেকে লং মার্চ শুরু করে পিটিআই। ৪ নভেম্বর ইসলামাবাদ পৌঁছানোর কথা ছিল ইমরানের।

আইনসভায় অনাস্থা ভোটে এপ্রিলে প্রধানমন্ত্রীর পদ ছাড়তে হয় ইমরান খানকে। সেই থেকে আগাম নির্বাচনের আহ্বান জানিয়ে পাকিস্তানজুড়ে বিক্ষোভ করছেন তিনি। তবে সরকার সাফ জানিয়ে দিয়েছে, আগামী বছরের অক্টোবর বা নভেম্বরের আগে নির্বাচন হবে না।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আর্ন্তজাতিক বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image