• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৪ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ১৮ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

জাওয়াদের হানা উপকূল থেকে সরানো হল হাজারো মানুষ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ০৩:০৬ পিএম
সরানো হল হাজারো মানুষ
ঘূর্ণিঝড়, জাওয়াদ

ডেস্ক রিপোর্টার: ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ শনিবার সন্ধ্যায় মধ্য বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। রবিবার ওড়িশার পুরী উপকূল ছোঁয়ার কথা ঘূর্ণিঝড়ের। তারপর শক্তি হারিয়ে উত্তর-পূর্ব অভিমুখে ধেয়ে আসার কথা জাওয়াদের। এই পরিস্থিতিতে আবহাওয়া দফতর সতর্ক করা মাত্রই উপকূল থেকে সরানো হল লোকজনকে। নামানো হল এনডিআরএফ।

তবে আলিপুর আবহাওয়া দফতর শনিবার তাদের শেষ আপডেটে জানিয়েছে, বাংলার উপকূলে ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা নেই। কারণ ওড়িশা উপকূলে ধাক্কা খেয়েই শক্তি হারাবে ঘূর্ণিঝড়। ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ শক্তি হারিয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে। তবু ঘূর্ণিঝড় দুর্বল হয়ে গেলেও গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে দুর্যোগ হবে বাংলায়।

আবহাওয়া দফতর উপকূলবর্তী জেলাগুলিতে ভারী বৃষ্টি এবং ঝোড়ো হাওয়ার পূর্বাভাস দিয়েছে। সমুদ্র উত্তাল থাকবে। জলোচ্ছ্বাসেরও সম্ভাবনা রয়েছে সমুদ্র উপকূলে। সেই কারমেই আগাম সাবধানতা নেওয়া হয়েছে। উপকূলবর্তী অঞ্চল থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে স্থানীয় লোকজনকে। সমুদ্র উপকূলগুলিতে নামানো হয়েছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীকে।

মৌসম ভবন সূ্ত্রে জানানো হয়েছে, ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ বিশাখাপত্তনমের অনতিদূরে অবস্থান করছে। ওড়িশা উপকূল ছোঁয়ার আগেই দুর্বল হতে শুরু করবে জাওয়াদ। তারপরে ওড়িশার পুরী সংলগ্ন উপকূলে ধাক্কা খেয়ে ফের দুর্বল হয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে। ৫ ডিসেম্বর দুপুরের দিকে পুরীর কাছে পৌঁছবে জাওয়াদ।

এরপর ঘূর্ণিঝড়টি পরবর্তীকালে আরও দুর্বল হয়ে ওড়িশার উপকূল বরাবর উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে পশ্চিমবঙ্গের উপকূলের দিকে অগ্রসর হবে। তবে এই ঘূর্ণিঝড়ের দাপট আর থাকবে না। তবে গভীর নিম্নচাপ হিসেবে বঙ্গ উপকূল সংলগ্ন সমুদ্রে অবস্থান করায় দুর্যোগ চলবে সোমবার পর্যন্ত।

আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, উপকূলের দুই জেলা পূর্ব মেদিনীপুর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার পাশাপাশি উত্তর ২৪ পরগনা, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, কলকাতা, হাওড়া ও হুগলি জেলায় প্রবল বৃষ্টি হবে। উপকূল সংলগ্ন এলাকায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝড় বইবে। আর জলোচ্ছ্বাসের সম্ভাবনা থাকছে।

সেই কারণেই বাংলার সমস্ত উপকূলে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীকে নামানো হয়েছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে। ওড়িশা ও অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূলেও নামানো হয়েছে এনডিআরএফ। ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ রুখতে তৈরি ছিল সমস্ত রাজ্য প্রশাসন। এখন ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ সরাসরি আছড়ে না পড়লেও তার প্রভাব আটকাতে সমস্ত ব্যবস্থা প্রস্তুত রেখেছে রাজ্য প্রশাসন। ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ নিম্নচাপে পরিণত হয়ে বাংলাদেশ অভিমুখে চলে যাবে বলে মনে করছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

সারাদেশ বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image