• ঢাকা
  • বুধবার, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২৪ জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

ক্রেতা সংকটে বাজার, তবুও নিত্য পণ্যের দাম বেশি


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শুক্রবার, ২১ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০৪:২৭ পিএম
ক্রেতা সংকটে, বাজার, তবুও নিত্য, পণ্যের দাম, বেশি

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঈদের ছুটির পর রাজধানীতে এখনো অনেক মানুষ ফিরেনি, ফলে বেশিরভাগ দোকানপাট বন্ধ এবং বাজারে ক্রেতার সংখ্যা কম। তবে ক্রেতা সংকটের বাজারেও নিত্যপণ্যের চড়া দাম হাঁকছেন ব্যবসায়ীরা। বিশেষ করে ব্রয়লার মুরগি, ডিম, আলু, কাঁচামরিচ, শসা, টমেটোর মতো কিছু পণ্যের দাম বেশি।

ব্যবসায়ীদের মতে, ঈদের ছুটির কারণে কৃষকরা ক্ষেত থেকে সবজি তুলছেন না, আর ব্রয়লারের চাহিদা থাকলেও সরবরাহ কম। এই কারণে পণ্যের দাম বেড়েছে। সরবরাহ স্বাভাবিক হলে দাম কমে আসবে বলে আশা করছেন তারা।

গতকাল বৃহস্পতিবার (২০ জুন) ঢাকার নিউ মার্কেট কাঁচা বাজার, আজিমপুর পলাশী বাজার, কারওয়ান বাজার, মগবাজার ঘুরে দেখা গেছে, বেশিরভাগ সবজি ও মুরগির দোকান বন্ধ। যেগুলো খোলা রয়েছে, সেগুলোর পণ্য সরবরাহ কম। কোরবানির ঈদের পর সাধারণত ব্রয়লারের চাহিদা কম থাকে, কিন্তু এবার তা হয়নি। ব্রয়লারের কেজি ১৮০-১৯০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে, কিছু দোকানে ১৯৫ টাকাও নেওয়া হচ্ছে। সোনালি মুরগির কেজি মানভেদে ৩১০-৩৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গত সপ্তাহেও এই দর ছিল, তবে দরকষাকষি করলে বড় বাজারে ১৭০ টাকায়ও ব্রয়লার কেনা যেত।

ডিমের বাজারেও বিশৃঙ্খলা দেখা গেছে। পাইকারি বাজারে ফার্মের বাদামি ডিম ১৫০-১৫৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে, কিন্তু মহল্লার দোকানে ১৬০-১৬৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

কাঁচামরিচের কেজি ঈদের দু'দিন আগে ৩০০ টাকা ছুঁয়েছিল, পরে ২০০ টাকায় নেমে আসে। কিন্তু আবার দাম বেড়ে গতকাল ২৬০-২৮০ টাকা হয়েছে।

কোরবানির সময় শসা ও টমেটোর চাহিদা বেশি থাকে, ফলে এগুলোর দামও বেশি। শসার কেজি ১০০-১৩০ টাকা এবং টমেটোর কেজি ১১০-১২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আলুর বাজারেও অস্বাভাবিক অবস্থা, প্রতি কেজি ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

পেঁয়াজ, রসুন ও আদার দামও কমেনি। আমদানির অনুমতি থাকলেও ভারত থেকে পেঁয়াজ কম আসছে, ফলে দেশি পেঁয়াজ দিয়ে চাহিদা মেটাতে হচ্ছে। দেশি পেঁয়াজের কেজি ৮৫-৯০ টাকা এবং হাইব্রিড পেঁয়াজের কেজি ৮০-৮৫ টাকা। দেশি রসুনের কেজি ২০০-২১০ টাকা এবং আমদানি করা রসুনের কেজি ২৩০-২৫০ টাকা। দেশি আদার কেজি ২৫০-২৬০ টাকা এবং আমদানি করা আদার কেজি ২৮০-৩০০ টাকা।

সবজির বাজার কিছুটা স্বাভাবিক, কাঁকরোল ও কচুর মুখির কেজি ৭০-৯০ টাকা, বেগুনের কেজি ৬০-৭০ টাকা, পটোল ও ঢ্যাঁড়শের কেজি ৪০-৬০ টাকা এবং ধুন্দল ও ঝিঙ্গের কেজি ৫০-৬০ টাকা।

 

ঢাকানিউজ২৪.কম / জেডএস/সানি

আরো পড়ুন

banner image
banner image