• ঢাকা
  • সোমবার, ৪ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ১৭ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

রাণীশংকৈল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিকল চিকিৎসার সামগ্রী


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১৭ আগষ্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ০৪:০৫ পিএম
রাণীশংকৈলে জরুরি চিকিৎসা যন্ত্রাংশ অকেজো
এম্বুলেন্সের ছবি

গৌতম চন্দ্র বর্মন, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: জরুরি চিকিৎসা যন্ত্রাংশ অকেজো হয়ে পড়ে রয়েছে ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরের বিভিন্ন স্থানে। 
বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে সবচেয়ে জরুরি প্রয়োজনীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অ্যাম্বুলেন্স দুটি দীর্ঘদিন ধরে বিকল হয়ে পড়ে আছে। তাছাড়া শিশু ও কিশোরীদের টিকা সংরক্ষণের রেফ্রিজেটরগুলোও নষ্ট। অপারেটরের অভাবে চালানো যাচ্ছে না আধুনিক এক্স-রে মেশিন। বিকল হয়ে রয়েছে আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিন।

এছাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আয়রন বেডসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য চিকিংসা যন্ত্রাংশও নষ্ট অবস্থায় পড়ে রয়েছে। সম্প্রতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বর্তমান সভাকক্ষের পাশেই পুরনো একটি অ্যাম্বুলেন্স ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য কর্মকর্তার কার্যালয়ের পেছনে আড়াই বছর আগে কেনা আধুনিক একটি অ্যাম্বুলেন্স পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে।

জানা যায়, প্রথম অ্যাম্বুলেন্সটি বিভিন্ন যন্ত্রাংশের সমস্যায় আর আধুনিক অ্যাম্বুলেন্সটি সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হয়ে মেরামতের অভাবে পড়ে রয়েছে।এছাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দ্বিতীয়তলার বারান্দায় আয়রন বেডসহ সংশ্লিষ্ট জিনিসপত্র যথাযথ ব্যবহারের অভাবে এবং টিকা সংরক্ষণের ৯টি রেফ্রিজারেটর নষ্ট ও নতুন এক্স-রে মেশিন স্থাপন ও অপারেটরের অভাবে এবং আল্টাসনোগ্রাম মেশিন বিকল হয়ে দীর্ঘদিন ধরে পড়ে রয়েছে। এসব জরুরি দ্রব্যাদি পড়ে থাকায় এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাসেবায় ব্যাঘাত ঘটছে বলে মনে করছেন স্থানীয় সচেতন মহল।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আব্দুস সামাদ চৌধুরী বলেন, বিকল হয়ে পড়া থাকা চিকিৎসাসামগ্রী মেরামতের জন্য একাধিকবার উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে পত্র দিয়েছি। বরাদ্দের অভাবে এগুলো মেরামত করা যাচ্ছে না।ঠাকুরগাঁও সিভিল সার্জন মাহফুজার রহমান সরকার মুঠোফোনে বলেন, জেলা থেকে এত কিছু দেখা সম্ভব নয়। স্থানীয় স্বাস্থ্য কর্মকর্তা রয়েছেন, তিনি এগুলো দেখভাল করবেন। তারপরও যেহেতু আপনি বললেন মেরামতযোগ্য চিকিৎসাসামগ্রী পড়ে থাকলে অবশ্যই তা মেরামত করা হবে। 

তিনি বলেন, আমাদের লোকবল কম। তাছাড়া করোনার কার্যক্রম নিয়ে আমরা ব্যস্ততায় রয়েছি।

ঢাকানিউজ২৪.কম / গৌতম চন্দ্র বর্মন

স্বাস্থ্য বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image