• ঢাকা
  • শুক্রবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ২০ মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

শাবিপ্রবির ভিসির কুশপুত্তলিকা দাহ করেছে ছাত্র ফোরাম


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বুধবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৯:৪৯ পিএম
অন্যায়ের বিরুদ্ধে ছাত্র নির্যাতনকার
শাবিপ্রবির ভিসির কুশপুত্তলিকা দাহ

নিউজ ডেস্ক: সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সংহতি প্রকাশ করে শাবিপ্রবির ভিসি ফরিদ উদ্দিনের কুশপুত্তলিকা দাহ,  পদত্যাগ এবং শিক্ষার্থীদের উপর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবী করে ছাত্র ফোরাম।

প্রথমে পুলিশ বাঁধা দেয় তারপর নেতৃবৃন্দ তাদের বুঝাতে সক্ষম হয় এটা অন্যায়ের বিরুদ্ধে ছাত্র নির্যাতনকারী ভিসির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ। “ছাত্র ফোরাম” এর কেন্দ্রীয় কমিটির আহবায়ক মোঃ সানজিদ রহমান শুভ এর সভাপতিত্বে কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়।

সভাপতির বক্তব্যে বলেন শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীদের চলমান যৌক্তিক আন্দোলনে পুলিশের হামলার ঘটনা অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক ও দুঃখজনক যা বিরাজমান ফ্যাসিবাদী রাষ্ট্রের প্রতিচ্ছবি বহণ করে। বিশেষ করে নারী শিক্ষার্থীদের উপর কাপুরুচিত হামলার মতো ঘটনা খুবই ঘৃণিত ও নিন্দনীয়। ছাত্র সমাজের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে এইধরনের ন্যক্কারজনক হামলা দেশের গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক আন্দোলনের জন্য অশনী সংকেত। যারা ছাত্র সমাজের গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে হামলা এবং পুলিশ দিয়ে দাবিয়ে রাখতে চায় তারা গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ বিশ্বাস করে না। বর্তমান নির্লজ্জ ভিসিকে অপসারন করে শিক্ষার্থী বান্ধব ভিসি নিয়োগের জন্য রাষ্ট্রপতির কাছে দাবী জানাচ্ছি।

গণফোরাম এর তথ্য ও গণমাধ্যম সম্পাদক সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছাত্র ফোরাম(ঐক্যবদ্ধ ছাত্র সমাজ) মুহাম্মদ উল্লাহ মধু বলেন- শিক্ষার্থীদের ন্যায্য দাবী মেনে নিতে এত সমস্যা কিসের? মহামান্য রাষ্ট্রপতি বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য আপনি কেন উপাচার্যকে পদত্যাগে বাধ্য করছেন না বা বহিষ্কার করছেন না! এই রাষ্ট্র কি প্রশাসনের সহায়তায় সাধারণদের উপর দমন নিপীড়নে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে । এই রাষ্ট্র জনতার নয় সাধারণ শিক্ষার্থীদের নয় লুটেরাদের পক্ষে কথা বলব। তাই এই সকল অনিয়ম অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

বক্তরা অবিলম্বে ভিসির পদত্যাগ ও শিক্ষার্থীদের বি রুদ্ধে সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবী করেন।

ছাত্র ফোরামের সদস্য সৈয়দ সামিউল ইসলাম বলেন- আমরা জানি শিক্ষকেরা জাতি গড়ার কারিগর। ছোটবেলা থেকেই আমরা শুনে বড় হয়েছি বাবা মায়ের পরে আমাদের সবচেয়ে বড় অভিভাবক আমাদের শিক্ষক। কিন্তু গত কয়েক দিনে আমরা শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় নয়, গোটা দেশের শিক্ষক সমাজ কলুষিত করে। তাই আমরা আমাদের এই সমাবেশ থেকে দাবী জানাই অনতিবিলম্বে এই কুলাঙ্গার ভিসির পদত্যাগ চাই।

উপস্থিত ছিলেন গণফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কামাল উদ্দিন সুমন, ছাত্র ফোরাম সদস্য রিয়াদ হোসেন, আনোয়ার ইব্রাহীম প্রমুখ।

ঢাকানিউজ২৪.কম /

সংগঠন সংবাদ বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image