• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৪ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ১৮ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

বুধবার থেকে শিথিল হচ্ছে বিধিনিষেধ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: সোমবার, ০৯ আগষ্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ০৮:৫৬ এএম;
গণপরিবহনে আসন পূর্ণ করে যাত্রী সেবা চলবে
জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন

নিউজ ডেস্ক:    করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে চলমান বিধিনিষেধ আগামী বুধবার থেকে শিথিল হচ্ছে। ওইদিন দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও পর্যটনকেন্দ্র ছাড়া অন্য সব কিছু স্বাভাবিক হবে। অফিস-আদালতের পাশাপাশি মার্কেট-শপিংমলও খুলে দেওয়া হচ্ছে। খোলা থাকবে সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। গণপরিবহনে আসন পূর্ণ করে যাত্রী সেবা চলবে। একইভাবে চলবে ট্রেন। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন রবিবার সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। তিনি জানান, ধাপে ধাপে বিধিনিষেধ শিথিল করা হবে। এ ছাড়া এ সংক্রান্ত একটি অফিস আদেশও জারি করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

করোনার ব্যাপক সংক্রমণে দেশের পরিস্থিতি এখনো ভয়াবহ। টানা ১৯ দিনের কঠোর বিধিনিষেধের সমাপ্তি টানতে হচ্ছে সরকারকে। কারণ জীবন-জীবিকার বাস্তবতা। এই কঠিন বাস্তবতা বিবেচনাতেই চলমান বিধিনিষেধের বেশিরভাগ শর্ত আগামী বুধবার থেকে শিথিল করা হয়েছে। উপসচিব মো. রেজাউল ইসলাম স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ১১ আগস্ট থেকে সব ধরনের সরকারি-বেসরকারি অফিস, যানবাহন, বিপণিবিতান ও দোকানপাট স্বাস্থ্যবিধি মেনে চালু করার অনুমতি দেওয়া
হয়েছে।

শিল্পকারখানা ১ আগস্ট থেকেই খোলা রয়েছে। গণপরিবহনের ক্ষেত্রে প্রত্যেক এলাকার প্রতিদিন মোট যানবাহনের অর্ধেক গাড়ি রাস্তায় নামানোর শর্ত দেওয়া হয়েছে। শপিংমল, মার্কেট, দোকানপাট সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে খোলা রাখা যাবে। খাবারের দোকান, হোটেল-রেস্তোরাঁ অর্ধেক আসন খালি রেখে সকাল ৮টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে। এ ছাড়া আদালতগুলোর কার্যক্রম বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেবেন সুপ্রিমকোর্ট।

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতামত উপেক্ষা করেই কোরবানির ঈদ উপলক্ষে ১৫ থেকে ২২ জুলাই ৯ দিন লকডাউন শিথিল করে সরকার। ঈদের একদিন পর ২৩ জুলাই থেকে ফের লকডাউন শুরু হয়। হঠাৎ ১ আগস্ট থেকে শিল্পকারখানা খোলার সিদ্ধান্ত দেয় সরকার। কিন্তু ছুটিতে বাড়িতে চলে যাওয়া শ্রমিক-কর্মীদের ফেরাতে কোনো পরিবহনের ব্যবস্থা রাখা হয়নি। ফলে হেঁটেই হাজার হাজার মানুষকে ঢাকায় ফিরতে দেখা গেছে। পরে সমালোচনার মুখে দেড় দিনের জন্য বাস ও লঞ্চ চলাচলের অনুমতি দেয় সরকার।

 সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, কাজের প্রয়োজনে যারা বাড়ির বাইরে থেকে আসছে, তাদের টিকায় অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। যেহেতু দোকানপাট খুলতে হবে- সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। আমরা চাইব সবাই যেন মাস্ক পরে। দোকানদার, ইমাম-মুয়াজ্জিন, ড্রাইভার-হেলপারদের প্রাধান্য দিয়েছি টিকা কার্যক্রমে। কারণ তাদের বাইরে যেতে হয়। মানুষের সঙ্গে মিশতে হয়।

ঢাকানিউজ২৪.কম /

জাতীয় বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image