• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ৭ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ২০ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

সরকারকে মানুষের জীবনের দিকে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে: জিএম কাদের


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বুধবার, ১৮ আগষ্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ০৭:৪২ পিএম
মাসে ১০ হাজার টাকা করে সহায়তার দাবী
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের এমপি

পারভেজ ইসলাম, রংপুর প্রতিনিধি : জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের এমপি বলেছেন, সরকার লকডাউন দিয়ে ব্যর্থ হয়েছে। আমরা করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ ২ কোটি মানুষকে প্রতি মাসে ১০ হাজার টাকা করে সহায়তা দেয়ার জন্য সরকারের কাছে দাবী করেছিলাম। এ জন্য প্রতি মাসে সরকারের প্রয়োজন ছিল ২০ হাজার কোটি টাকা। এক মাস এ অর্থ সহায়তা দিলে দেশে করোনা নিয়ন্ত্রণে চলে আসতো। যে দেশে মানুষের পেটে খাবার নেই, যাদের বাচ্চা দুধের জন্য কাঁদে, যারা ঔষধের অভাবে মারা যায় সেসব মানুষকে ঘরের ভেতরে আটকে রাখা সম্ভব নয়। তাই সরকারকে মানুষের জীবনের দিকে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে।

লালমনিরহাটে ৪ দিনের সফরে যাওয়ার পথে বুধবার দুপুরে রংপুর দর্শনাস্থ পল্লী নিবাস বাসভবনে প্রয়াত জাপা চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদের কবর জিয়ারত শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

জিএম কাদের বলেন, সবকিছুর উর্ধ্বে জীবন। জীবনের জন্য আমরা রাজনীতি করি। উন্নয়নসহ সবকিছু আমাদের সুন্দরভাবে বেঁচে থাকার জন্য। যদি জীবন না থাকলে তাহলে রাজনীতি ও উন্নয়নের কোন অর্থ থাকে না। আমরা সংসদে, গণমাধ্যমে বলেছি প্রান্তিক পর্যায়ে করোনা রোগীদের চিকিৎসায় স্বাস্থ্য বিভাগের সক্ষমতা বাড়াতে
হবে। সরকার ইতোমধ্যে কিছু কাজ প্রান্তিক পর্যায়ে বাস্তবায়ন করেছে যা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল।

জিএম কদের আরও বলেন, সরকার যে বাজেট করেছে সেই অর্থের যোগান দাতা আমরাই। যদি মানুষ বেঁচে না থাকে তাহলে বাজেট বাস্তবায়ন হবে না। যদি বাজেট বাস্তবায়ন হয় তবে সেটির সুফল দেশবাসী ভোগ করতে পারবে না।করোনার টিকা নিয়ে জিএম কাদের বলেন, সরকার যেভাবে টিকা প্রদান করছে এতে আমরা সন্তুষ্ট নই।
বিশ্বের বেশিরভাগ দেশে শতকরা ৭০ থেকে ৮০ ভাগ মানুষ টিকার আওতায় এসেছে। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় টিকা প্রদানের ক্ষেত্রে আমরা তলানীতে রয়েছি। আমাদের দেশে এ পর্যন্ত মাত্র ২ থেকে ৩ ভাগ মানুষ টিকার আওতায় এসেছে।

এছাড়া টিকা প্রদানে চরম বিশৃঙ্খলা লক্ষ্য করা গেছে। করোনা সংক্রমণ রোধে টিকা নিতে কেন্দ্র মানুষ এসে সংক্রমিত হচ্ছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, সংসদ সদস্য আহসান আদেলুর রহমান, মহানগর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক এসএম ইয়াসির, জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, জাতীয় ছাত্র সমাজ কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আল মামুন, মহানগর যুব সংহতির সভাপতি শাহীন হোসেন জাকির, সাধারণ সম্পাদক আলাল উদ্দিন কাদেরী শান্তিসহ স্থানীয় জাতীয় পার্টি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।

 

ঢাকানিউজ২৪.কম /

রাজনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image