• ঢাকা
  • রবিবার, ১০ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ২৩ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

গণফোরামের নবনির্বাচিত সম্পাদক পরিষদের সভা অনুষ্ঠিত


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শনিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ০৩:৪১ পিএম
নবনির্বাচিত সম্পাদক পরিষদের সভা
গণফোরামের নবনির্বাচিত সম্পাদকদের সভা অনুষ্ঠিত

ডেস্ক রিপোর্টার: গণফোরামের নব নির্বাচিত সম্পাদক পরিষদের সভা ১১ ডিসেম্বর, শনিবার সকাল ১০ টায় গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক সিনিয়র এডভোকেট সুব্রত চৌধুরীর সভাপতিত্বে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।
 
সভাপতির স্বাগত বক্তব্যে তিনি বলেন, দেশে বর্তমানে গুমট পরিস্থিতি বিরাজ করছে। কোথায়ও কেউ শান্তিতে নেই। দুর্নীতি, লুটপাট, জবরদখল, নৈরাজ্য, নিপীড়ন-নির্যাতন সর্বক্ষেত্রে সীমা অতিক্রম করছে। জনগণনিয়ে ভাবান করো সময় নেই।

সড়কে প্রতিনিয়ত মৃত্যুর মিছিল! এদেশের আপামর ছাত্র সমাজ এর প্রতিবাদে রাজপথে অবস্থান নিলে কি আশ্চর্য জনক ভাবে দেশের সর্বোচ্চ দায়িত্বশীল জায়গা থেকে তাচ্ছিল্যের সুরে বলা হচ্ছে শিক্ষার্থীরা কেন রাজপথ অবরোধ করছে? গাড়ি ভাংচুর করছে? তাদের তো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে থাকার কথা। আপনি নি ভূলে গেছেন সেই ৫২ ভাষা আন্দোলন হতে সকল অন্যায় অত্যাচারের বিরুদ্ধে যুগ যুগ ধরে ছাত্র সমাজই রাজপথে সকলের আগে অবস্থান নিয়েছে।

৬২ শিক্ষা আন্দোলন, ৬৯ গণ অভ্যুত্থান, ৭১ মহান মুক্তিযুদ্ধ ও ৯০ এর স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে এদেশের ছাত্র সমাজের ভূমিকা অনস্বীকার্য। অথচ আপনাদের এই অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সহ্য হয় না। বিচারব্যবস্থা, নির্বাচনব্যবস্থা, অর্থনৈতিক অবস্থা ও শিক্ষাব্যবস্থা সম্পূর্ণ ধ্বংস করে দিয়ে গণতন্ত্রের নামে এক ফ্যাসীবাদী ব্যবস্থা এদেশের জনগণের উপর চাপিয়ে দিয়েছেন।

ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য আমাদের এই দুঃশাসন হটিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে হবে তবেই মিলবে জনগণের মুক্তি। একটি অবাধ নিরপেক্ষ সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে দলমত নির্বিশেষে জনগণের ঐক্য গড়ে তুলবে গণফোরাম।

সারাদেশে সাংগঠনিক কর্মতৎপরতা বৃদ্ধির তাগিদ দিয়ে তিনি আরো বলেন, দেশে যে সুস্থধারার রাজনীতির শূন্যতা বিরাজ করছে তা পুরনে জনগণের দ্বারে দ্বারে তৃনমূল পর্যায়ে আপনাদের গণফোরামের আদর্শ ও লক্ষ্য নিয়ে যেতে হবে।

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি এডভোকেট এ.কে.এম জগলুল হায়দার আফ্রিক, এডভোকেট মহসিন রশিদ, এডভোকেট মহিউদ্দিন আব্দুল কাদের, বীর মুক্তিযোদ্ধা খান সিদ্দিকুর রহমান, আতাউর রহমান, সিনিয়র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব খান ফারুক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মোঃ হেলাল উদ্দিন, লতিফুল বারী হামিম, সাংগঠনিক সম্পাদক রওশন ইয়াজদানী (ঢাকা বিভাগ), এডভোকেট তরিকুর রউফ (চট্টগ্রাম বিভাগ), আলীনূর খান বাবুল (খুলনা বিভাগ), মামুনূর রশিদ মামুন (রাজশাহী বিভাগ), মীর্জা হাসান (রংপুর বিভাগ), এডভোকেট রায়হান উদ্দিন (ময়মনসিংহ বিভাগ), দফতর সম্পাদক মো: আব্দুল হান্নান মাষ্টার, তথ্য ও গণমাধ্যম সম্পাদক মুহাম্মদ উল্লাহ মধু, ত্রান ও সমাজ কল্যান সম্পাদক মো: নাসির হোসেন, শিক্ষা সম্পাদক অধ্যাপক বরুন ভট্টাচার্য্য, আইন ও মানবাধিকার সম্পাদক এডভোকেট বিশ্বজীৎ গাঙ্গুলী, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক তাজুল ইসলাম, শ্রম সম্পাদক এডভোকেট মোশারফ হোসেন তালুকদার, কৃষি সম্পাদক আবদুল আউয়াল, মহিলা সম্পাদক নিলুফার ইয়াসমিন শাপলা, জলবায়ু ও পরিবেশ সম্পাদক রনজিৎ শিকদার, গবেষনা-পরিকল্পনা ও প্রশিক্ষন সম্পাদক আজিজুর রহমান ভূঁইয়া মজনু ও ছাত্র সম্পাদক এডভোকেট মোঃ সানজিদ রহামন শুভ।

সম্পাদকবৃন্দ তাদের স্ব স্ব বিভাগের কর্ম পরিধি ও পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা করেন এবং দেশের বর্তমান অব্যবস্থাপনা স্বৈরাচারী শাসন, দুর্নীতি, লুটপাট হটিয়ে কীভাবে জনপ্রতিনিধিত্ব মূলক সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা যায় সে বিষয়ে আলোকপাত করেন।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

রাজনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image