• ঢাকা
  • সোমবার, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ১৫ আগষ্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

মুম্বাইয়ের বেশকিছু এলাকা পানির নিচে, রেড এলার্ট


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শুক্রবার, ০৮ জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৭:০৭ পিএম
মুম্বাইয়ের বন্যায় রেড এলার্ট
মুম্বাইয়ের বন্যা পরিস্থিতি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের মুম্বাই শহরে প্রায় এক সপ্তাহ ধরে টানা বৃষ্টিপাত হচ্ছে। এতে মুম্বাই শহরে ব্যাপক বন্যা দেখা দিয়েছে। প্রবল বর্ষণের কারণে পানি জমে শহরের বেশকিছু এলাকা প্লাবিত হয়েছে। কোনো কোনো এলাকায় পানি কোমর সমান। ফলে জীবনযাত্রা স্থগিত হয়ে পড়েছে।

শুক্রবার (৮ জুলাই) বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বছরের এ সময়টাতে মুম্বাই শহরে বৃষ্টিপাত সাধারণ একটা ব্যাপার। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জলবায়ু পরিবর্তন ও অপরিকল্পিতভাবে নগর উন্নয়নের কারণে বৃষ্টিপাতের তীব্রতা অনেক বেড়েছে।

জানা গেছে, গত সোমবার থেকে একটানা বৃষ্টি হচ্ছে। দেশটির আবহাওয়া বিভাগ শুক্রবার মুম্বাই ও এর আশপাশের জেলাগুলোতে রেড এলার্ট জারি করেছে। বলেছে, শহরে ভারি থেকে অতি ভারি বৃষ্টিপাত হতে পারে। ফলে বন্যা পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে।

প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ কাজের সন্ধানে মুম্বাই শহরে আসেন। বিশাল সংখ্যক মানুষের আবাসনের জন্য অবকাঠামো নির্মাণ চলছে বেপরোয়াভাবে। এসব অবকাঠামোর বেশিরভাগই অনিয়ন্ত্রিত উপায়ে গড়ে উঠছে। এর ফলে বৃষ্টির পানি বের হতে পারছে না।

এছাড়া বহু এলাকার পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা অনেক পুরনো। এর ফলে বন্যা দেখা দিচ্ছে। আবহাওয়া পূর্বাভাস বিষয়ক এজেন্সি বলেছে, ভারি বর্ষণের আশঙ্কা আছে। ফলে আগামী কয়েকদিন সমুদ্র সৈকতে ঘুরতে যাওয়া নিষিদ্ধ করেছে মুম্বাই কর্তৃপক্ষ।

তবে গত কয়েক দশক ধরে মুম্বাই শহরের আশপাশের জলাভূমিজুড়ে বিস্তৃত ম্যানগ্রোভ বন গড়ে তোলা হয়েছে যা বন্যার বিরুদ্ধে প্রাকৃতিক বাধা হিসেবে কাজ করছে।

জলাবদ্ধতার কারণে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। শহরবাসীকে তলিয়ে যাওয়া রাস্তাগুলোর নোংরা পানি ভেঙে যাতায়াত করতে হচ্ছে।

বহু এলাকা তলিয়ে থাকায় শহরটির পরিবহন ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। বাস সার্ভিস ও যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচলও বিঘ্নিত হচ্ছে। এতে অনেক মানুষ ঘণ্টার পর ঘণ্টা স্টেশনগুলোতে আটকা পড়ে থাকছেন।

টানা ভারি বৃষ্টিতে মুম্বাইয়ের আশপাশের জেলাগুলোর জনজীবনও ব্যাহত হচ্ছে। চিপলুন শহরে ভূমিধসের ঘটনা ঘটার পর মুম্বাই ও গোয়ার মধ্যবর্তী জাতীয় মহাসড়কের একটি অংশ বন্ধ হয়ে গেছে, ‍যানবাহনগুলোকে অন্য রাস্তা দিয়ে গন্তব্যে পাঠানো হচ্ছে।

ভারি বৃষ্টির কারণে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কেরালা ও উত্তরাঞ্চলীয় হিমালয় রাজ্য হিমাচল প্রদেশের কিছু অংশেও বন্যা সতর্কতা জারি করেছে ভারতের আবহাওয়া বিভাগ।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আর্ন্তজাতিক বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image