• ঢাকা
  • বুধবার, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ১৭ জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

আমি নিশ্চিত ভোটে নৌকার জয় হবে: আজমতউল্লা খান


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২৫ মে, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১২:১৫ পিএম
আমার মাঝে অন্যরকম এক অনুভূতি কাজ করছে
আজমতউল্লা খান

নিউজ ডেস্ক:  ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) চলছে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ভোটগ্রহণ। বৃহস্পতিবার (২৫ মে) সকাল ৮টায় শুরু হওয়া এ ভোটগ্রহণ বিরতিহীনভাবে চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে প্রতিটি কেন্দ্র রয়েছে সিসি ক্যামেরার আওতায়।

এদিন সকালে টঙ্গী দারুস সালাম মাদ্রাসা, বউ বাজার রোড, আরিচপুর কালভার্ট এলাকায় প্রথমবার ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট দেন মেয়র প্রার্থী আজমতউল্লা খান। ভোট দেওয়ার পর গণমাধ্যমের সাথে কথা বলেন তিনি।

আজমতউল্লা খান বলেন, প্রথমবার ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট দিলাম, তাই আমার মাঝে অন্যরকম এক অনুভূতি কাজ করছে। জয় পরাজয় আল্লাহ কর্তৃক নির্ধারিত। কিন্তু ইতিমধ্যে জনগনের কাছ থেকে আমি যে পরিমাণ সাড়া পেয়েছি, সমর্থন ও ভালোবাসা পেয়েছি তাতে আমি নিশ্চিত জয় নৌকারই হবে। তবে নির্বাচনে যেকোনো রেজাল্ট আসুক না কেনো আমি তা মেনে নিয়ে মানুষের সেবাই কাজ করে যাবো।     

মেয়র পদপ্রার্থী জায়েদা খাতুন তার নির্বাচনি হলফনামায় নিজেকে গৃহিণী ও স্বশিক্ষিত বলে উল্লেখ করেছেন। তার স্বামী মো. মিজানুর রহমান চার-পাঁচ বছর আগে মারা যান। বর্তমানে জাহাঙ্গীর আলমসহ তার দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছেন বলে জানা গেছে। তিনি যথার্থই গৃহিণী হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন। কারণ মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করার আগে রাজনীতি বা সামাজিক কোনো ক্ষেত্রে তার নাম শোনা যায়নি। তবে এলাকায় তিনি জনদরদি হিসেবে পরিচিত। বিভিন্ন পারিবারিক ও সামাজিক আচার-অনুষ্ঠানে এবং শিক্ষার্থীসহ গরিব-দুঃখী মানুষকে বরাবরই আর্থিক সহায়তা করেন।

এবারের নির্বাচনে মেয়র পদে আটজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। প্রার্থীরা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আজমতউল্লা খান (নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী জায়েদা খাতুন (টেবিল ঘড়ি), জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী এম এম নিয়াজ উদ্দিন (লাঙ্গল), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মনোনীত প্রার্থী গাজী আতাউর রহমান (হাতপাখা), জাকের পার্টির মনোনীত প্রার্থী রাজু আহমেদ (গোলাপ ফুল), গণফ্রন্টের আতিকুল ইসলাম (মাছ), স্বতন্ত্র প্রার্থী সরকার শাহনুর ইসলাম রনি (হাতি) ও হারুন অর রশিদ (ঘোড়া)।

এর মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আজমতউল্লা খান দলীয় অবস্থানের কারণে শক্তিশালী প্রার্থী। দলীয় সিদ্ধান্তের কারণে নির্বাচনে বিএনপির কোনো প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা না করায় বিজয়ের ব্যাপারে তাকে যেমন নির্ভার মনে হচ্ছে, বাস্তবে তা এখন আর তেমন দেখা যাচ্ছে না। কারণ সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেও ঋণখেলাপির দায়ে তার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে যায়। জাহাঙ্গীর আলমের মা জায়েদা খাতুন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। একপর্যায়ে জায়েদা খাতুনই আজমতউল্লা খানের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে ওঠেন। তাই মেয়র পদে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে আজমতউল্লা খান ও জায়েদা খাতুনের মধ্যে—এমন অভিমত ভোটার ও নগরবাসীর।

ঢাকানিউজ২৪.কম /

আরো পড়ুন

banner image
banner image