• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ৬ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ২০ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

বার্লিনে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালিত


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ০৯:৪১ এএম
বাংলাদেশি কমিউনিটির সদস্যবৃন্দ, বিদেশি অতিথিবৃন্দ
বাংলাদেশ দূতাবাস বার্লিন

নিউজ ডেস্ক:  স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী লগ্নে বাংলাদেশ দূতাবাস, বার্লিনে যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের সাথে ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে  ‘বিজয় দিবস-২০২১’ পালন করা হয়েছে। জার্মানিতে বিদ্যমান করোনা পরিস্থিতির অবনতি বিবেচনায় ও স্বাগতিক দেশের নিয়ম অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে জার্মানি, কসোভো এবং চেক রিপাবলিক-এ অবস্থানরত বাংলাদেশি কমিউনিটির সদস্যবৃন্দ, বিদেশি অতিথিবৃন্দ,  এবং দূতাবাসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ অনলাইনে আলোচনা সভায় যোগদান করেন।   

দিবসটি পালন উপলক্ষ্যে সকালে অনুষ্ঠানের শুরুতেই রাষ্ট্রদূত জনাব মোঃ মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, এনডিসি,দূতাবাসের সকল কর্মচারীর উপস্থিতিতে দূতাবাস প্রাঙ্গনে জাতীয় সংগীত বাজিয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের সাথে জাতির পিতা ও জাতীয় স্মৃতি সৌধের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয় ।  

ভার্চুয়াল আলোচনার শুরুতেই মহান বিজয় দিবস-২০২১ উপলক্ষ্যে প্রেরিত জাতীয় নেতৃবৃন্দের বাণীসমূহ পাঠ করা হয়। দূতাবাসের মিনিস্টার, জনাব এম. মুর্শিদুল হক খান, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ এর মহামান্য রাষ্ট্রপতির বাণী এবং কাউন্সেলর জনাব তানভীর কবির গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন ।

জার্মানি, কসোভো এবং চেক রিপাবলিক-এ অবস্থানরত বাংলাদেশী কমিউনিটির সদস্যবৃন্দ অনলাইনে চমৎকার এই অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য দূতাবাসকে ধন্যবাদ জানানোর পাশাপাশি স্বদেশ, স্বাধীনতা এবং বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে তাদের নিজ নিজ অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

ঢাকায় অনুষ্ঠিত মুজিববর্ষ ও বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক পঠিত শপথ বাক্যটি সকলকে পাঠ করে শোনানোর পাশাপাশি রাষ্ট্রদূত তাঁর বক্তব্যের মাধ্যমে গত ৫০ বছরে বাংলাদেশের অর্জন এবং বর্তমান সরকারের গৃহীত বিবিধ উন্নয়ন কর্মসূচীর ফলে বাংলাদেশ কিভাবে “উন্নয়ন বিস্ময়” হিসেবে বিশ্ব দরবারে পরিচিতি লাভ করেছে।

তিনি বলেন যে, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও নেতৃত্বের গুণাবলী ধারণ করে তাঁর কন্যা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা অর্থনৈতিক উন্নয়ন, বলিষ্ঠ ও নিরপেক্ষ কূটনীতি, অভ্যন্তরীণ স্থিতিশীলতা ইত্যাদির মাধ্যমে বাংলাদেশের মর্যাদাকে অনন্য উচ্চতায় প্রতিষ্ঠিত করেছেন।     

পরবর্তীতে জাতির পিতা ও তাঁর পরিবারের সকল শহিদ সদস্যদের জন্য, সকল শহিদ ও জীবিত মুক্তিযোদ্ধা ও জাতীয় নেতৃবৃন্দের জন্য, বিশেষ করে বাংলাদেশ ও জনগণের জন্য দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করা হয়।

ঢাকানিউজ২৪.কম /

প্রবাস জীবন বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image