• ঢাকা
  • শনিবার, ২১ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৪ ফেরুয়ারী, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

জাতীয় সংসদ এখন ‘ আওয়ামী ক্লাব’: মির্জা ফখরুল


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: সোমবার, ২৩ জানুয়ারী, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০৫:২৭ পিএম
জাতীয়, সংসদ,  আওয়ামী ক্লাব
জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন মির্জা ফখরু

নিজস্ব প্রতিবেদক

জাতীয় সংসদ এখন ‘একদলীয় ক্লাবে’।‘ইটস এ ক্লাব অব আওয়ামী লীগ। অর্থাৎ জাতীয় সংসদকে আওয়ামী লীগ ক্লাবে পরিণত করেছে এ সরকা। এমন মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

তিনি বলেন, গণতান্ত্রিক যতগুলো প্রতিষ্ঠান আছে, প্রতিটি প্রতিষ্ঠান তারা (বর্তমান সরকার) ধ্বংস করেছে। ফখরুলের  ভাষায়, ‘ইটস এ ক্লাব অব আওয়ামী লীগ।’ সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় এসব মন্তব্য করেন। 

বিএনপি ঘোষিত ‘রাষ্ট্রকাঠামো মেরামতে রূপরেখা ব্যাখ্যা ও বিশ্লেষণ’ শীর্ষক এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ (বিএসপিপি)। 

বিরোধীদলীয় এনেতা নির্বাচনী ব্যবস্থার ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে অভিযোগ তুলে বলেন, ‘গণতন্ত্রের গেটওয়ে হচ্ছে নির্বাচনব্যবস্থা। নির্বাচন করে আপনি দেশ চালনার জন্য পার্লামেন্ট তৈরি করবেন, মন্ত্রিসভা গঠন করবেন। সেই নির্বাচনী ব্যবস্থাটাকে তারা ধ্বংস করে দিয়েছে। মানুষ ভোটই দিতে যান না। ভোট দিয়ে কী হবে? ভোট তো আমার থাকবে না, আমার ভোট তো অন্য কেউ নিয়ে যাবে।’ 

বিএনপির মহাসচিব বলেন, এ জন্য যত কিছু কারসাজি করা দরকার, তারা (বর্তমান সরকার) করেছে। কখনো ১৫৪ জনকে অপ্রতিদ্বন্দ্বী ঘোষণা করে দেওয়া, কখনো যে তারিখে ভোট তার আগের রাত্রে ভোট নিয়ে নেওয়া এবং সমস্ত রাষ্ট্রব্যবস্থাকে তাদের পক্ষে ঘোষণা দেওয়ার জন্য ব্যবস্থা করা। এভাবে কাঠামোটাকে তারা নষ্ট করেছে।

অনুষ্ঠানে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল বলেন, প্রতিটা জিনিসের উত্থান-পতন আছে। যে ঢেউ শুরু হয়েছে উত্তাল তরঙ্গের মতো, সমুদ্রের মতো, তারা (ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ) ভেসে যাবে। কারণ, তাদের সঙ্গে জনগণ নেই, জনগণ থাকবে না।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমাদের শেষ কথা, ভোটের অধিকারকে ফিরে পাওয়ার জন্য আমরা যে ১০ দফা দিয়েছি, সেই ১০ দফার প্রথমেই এ সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে। সংসদকে বিলুপ্ত করতে হবে। এ সংসদের কোনো মূল্য নেই এবং একটা তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠন করতে হবে। সেই সরকারের অধীন নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করে নতুন নির্বাচন হবে। সেই নির্বাচনে আমরা জাতীয় ঐক্য সৃষ্টি করে আমরা জয়ী হব।’

দলের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘অনেকের কথায় হতাশার একটু ছাপ খুঁজে পাই। কেন হতাশ হবেন? আমরা তো সাকসেসফুল হচ্ছি, প্রতিটা স্টেপে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। আজকে আমি জেলে গেছি, আমি একা জেলে যাইনি তো। হাজার হাজার আমাদের নেতা-কর্মী জেলে গেছেন। তাদের মুখে আমি এতটুকু হতাশার ছাপ দেখিনি।’

 ‘আমাদের প্রতিপক্ষ যারা, তারা প্রবল প্রতাপশালী, ক্ষমতাশালী। তাদের হাতে পুরো রাষ্ট্রযন্ত্র, তাদের হাতে বন্দুক, তাদের হাতে পিস্তল-গ্রেনেড। অবলীলাক্রমে তারা সেগুলো মারে, উল্টো আমাদের বিরুদ্ধে মামলা দেয় এমন অভিযোগ ফখরুলের।’

সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক এ জেড এম জাহিদ হোসেন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। সদস্যসচিব কাদের গনি চৌধুরী এ অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমানউল্লাহ আমান, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আবদুল লতিফ মাসুম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক বোরহান উদ্দিন খান জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি কামাল উদ্দিন সবুজ প্রমুখ।

ঢাকানিউজ২৪.কম / এম আর

রাজনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image