• ঢাকা
  • রবিবার, ১০ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ২৩ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

মমেক হাসপাতালে আগষ্টে করোনায় দুই শিশুসহ, মৃত্যু ৪৩৯ 


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ৩১ আগষ্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১১:৩০ এএম
মাস্ক পড়ার বিষয়ে কর্মীদের উৎসাহিত করতে হবে
মমেক হাসপাতালের ছবি

মো. নজরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ: করোনাভাইরাসের হটসপট ময়মনসিংহ বিভাগ এখন কিছুটি কমছে। আক্রান্ত ও মৃত্যু কমলেও ঝুঁকি, আতংক এই বিভাগে রয়েই গেছে। ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (মমেকহা) করোনা ডেডিকেটেড ইউনিটে করোনায় ও উপসর্গ নিয়ে গত আগষ্ট’ ২০২১ মাসে দুই নবজাতক শিশুসহ ৪৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এছাড়াও বেসরকারি কমিউনিটি বেজড মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল বাংলাদেশ (সিবিএমসিবি) করোনা ইউনিটে ৩জনের মুত্য হয়েছে। গত জুলাই’ ২০২১ মাসে মৃত্যুবরণ করেছিল মোট ৪৬৯জন । সরকার বাইরে সকলকে মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক করলেও অধিকাংশ মানুষই মাস্ক পড়ছে না। সংক্রমণ কমলেও স্বাস্থ্যবিধি না মানার কারণে আবারো বাড়ার আশংকা স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের। 

এদিকে ময়মনসিংহ জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৮৪ নমুনা পরীক্ষা ১০৩জন রোগী করোনায় শনাক্ত হয়েছে সনাক্তের হার ১৫.০৫ বলে জানিয়েছেন জেলা সিভিল সার্জন।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (মমেকহা) করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. মহিউদ্দিন খান মুন জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ইউনিটে করোনায় ও উপসর্গ নিয়ে ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। আইসিইউতে ১১জনসহ ভর্তি ১৫৮জন। 

ডাঃ মুন আরও জানান,  প্রত্যেক জেলা হাসপাতালগুলোর করোনা ইউনিটে অক্সিজেন সিলিন্ডারসহ করোনা চিকিৎসার ব্যবস্থা থাকলেও ময়মনসিংহ বিভাগের চার জেলা জামালুর, শেরপুর, ময়মনসিংহ, নেত্রকোণা এবং গাজীপুর, টাঙ্গাইল, সিরাজগঞ্জ, কুড়িগ্রাম, সুনামগঞ্জ ও কিশোরগঞ্জ জেলাসহ কমপক্ষে ১০ জেলার করোনী রোগীরা ভীড় করছে মমেক হাসপাতালে। 

বিএমএ ময়মনসিংহ জেলা শাখার সভাপতি ও ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ডাঃ মতিউর রহমান ভূঁইয়া জানান, প্রশাসনের কড়াকড়ি সত্তে¡ও অসংখ্য মানুষ মাস্ক বিহীন বাইরে অযথা ঘুরাফেরা করছে। স্বাস্থ্য বিভাগও করোনা সংক্রমণ কমাতে কার্যকর কোনো ভূমিকা পালন করছে না। করোনায় আক্রান্ত রোগীরা বাইরে অহরহ ঘুরাফেরা করছে। অথচ আক্রান্ত রোগীদের বাসায় আইসোলেশনে থাকার ব্যাপারে তাদের কোনো ভূমিকা নেই।

সচেতনতা বাড়াতে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। বিধি নিষেধ মানাতে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে আরও মনযোগী হতে হবে। এন্টিজেন টেস্ট বহুগুণ বাড়াতে হবে।  রাজনৈতিক ব্যক্তি বর্গ ও জনপ্রতিনিধির  নিজেরা মাস্ক পরে কর্মীদের উৎসাহিত করতে হবে বলে বিএমএ জেলা সভাপতি জানান।

ময়মনসিংহ জেলার সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম জানান, সরকার সঠিক পথে আছে। সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ের সকলেই ঐক্যবদ্ধভাবে এই করোনা অতিমারি মোকাবেলায় সচেতন হতে হবে। প্রত্যেক মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মানা উচিত। যে কোনো মূল্যে সংক্রমণ কমাতে সকলকে আন্তরিকতার  সকলকে সাথে কাজ করতে হবে।

ঢাকানিউজ২৪.কম / মো. নজরুল ইসলাম

স্বাস্থ্য বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image