• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০১ জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

ফুটপাতের দোকানগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শুক্রবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১১:৩০ এএম
দোকানগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না
ফুটপাতের দোকান

নিউজ ডেস্ক:  করোনা শনাক্তের হার বৃদ্ধি পাওয়ায় সরকারের দেওয়া ১১ দফা বিধিনিষেধ বৃহস্পতিবার থেকে জারি হয়েছে। বিধিনিষেধের প্রথম শর্তে বলা হয়েছে, দোকানপাট, শপিং মলে প্রবেশে বাধ্যতামূলকভাবে সবাইকে মাস্ক পরতে হবে। না হলে শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে। কিন্তু রাজধানীর বেশিরভাগ মার্কেট ও ফুটপাতের দোকানগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না।

যমুনা ফিউচার পার্ক, বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্স, ইস্টার্ন প্লাজা, ইস্টার্ন মল্লিকাসহ হতে গোনা কয়েকটি বিপণিবিতানে দেখা যায় প্রবেশদ্বারে জীবাণুনাশক টানেল বা জীবাণুনাশক তরল পদার্থ ছিটিয়ে ও মাস্ক নিশ্চিত করে ক্রেতাদের প্রবেশ করানো হচ্ছে। তবে বিপণিবিতানের ভেতরে অনেক ক্রেতাকেই মাস্ক ছাড়া ঘোরাফেরা করতে দেখা যায়।

এদিকে, রাজধানীর বহু মার্কেটে ক্রেতারা স্বাস্থ্যবিধি মানছে না। বিভিন্ন মার্কেটে মাস্ক ছাড়া দিব্যি ঘুরে বেড়াতে দেখা যাচ্ছে ক্রেতাদের। স্বাস্থ্যবিধি না মানার প্রবণতা দেখা গেছে পথচারীদের মধ্যেও।

ধানমন্ডি হকার্স মার্কেটে গিয়ে দেখা যায়, প্রবেশপথে অরক্ষিত অবস্থায় পড়ে রয়েছে জীবাণুনাশক টানেল। ক্রেতারা ইচ্ছেমতো ভিড় ঠেলেই মাস্ক ছাড়া প্রবেশ করছে। কোনো দূরত্ব মানা হচ্ছে না। নিউ মার্কেট, নিউ সুপার ও চন্দ্রিমা সুপার মার্কেট, গাউছিয়ার মূলফটকের সামনে কোনো জীবাণুনাশক টানেল দেখা যায়নি। দুই-তিনটি পুরনো টানেল থাকলেও তা অকার্যকর অবস্থায় পড়ে আছে।  তবে উত্তরা, মিরপুরের কয়েকটি মার্কেটে দেখা যায়, প্রবেশদ্বারে স্থাপন করা হয়েছে জীবাণুনাশক টানেল।

শীতকে কেন্দ্র করে ভিড়

গরম পোশাক কেনার জন্য ইতোমধ্যে শপিংমল-মার্কেটের ভেতরে ক্রেতাদের ভিড় দেখা যায়। তবে স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা কেউ করছেন তা মনে হয়নি। মৌচাক, পলওয়েল, নিউ মার্কেট, চাঁদনি চক ঘুরে ক্রেতাদের ভিড় দেখা যায়। বেশিরভাগ ক্রেতাই শীতের কাপড় কিনছেন। ফলে মার্কেটের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে যেতেই দীর্ঘক্ষণ লেগে যাচ্ছে।  

ধানমন্ডি হকার্স মার্কেটের কাপড় ব্যবসায়ী আমজাদ শরীফ বলেন, ক্রেতারা স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। পৌষ মাস শেষ হয়েছে। মাঘের শীত ঠেকাতে ক্রেতারা গরম কাপড় কিনতেই এখন মার্কেটে আসছেন। আর এই মৌসুমের অপেক্ষাই করেন বিক্রেতারা। ফলে ক্রেতারা যেমন যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি মানছে না, আবার অনেক বিক্রেতাও মানতে পারছে না।

বসুন্ধরা সিটির ইনচার্জ এবং ঊর্ধ্বতন নির্বাহী পরিচালক (হিসাব ও অর্থ) শেখ আব্দুল আলীম জানান, করোনার শুরু থেকেই শপিংমলে আসা ক্রেতাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় বসুন্ধরা সিটির প্রবেশপথ সমূহে জীবাণুনাশক টানেল, হাত ধোয়ার বেসিন এবং স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সভাপতি হেলাল উদ্দিন বলেন, শনিবার থেকে নিয়ম মানতে প্রচার-প্রচারণা শুরু করব।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার শাহবাগে ওমিক্রন নিয়ন্ত্রণে মাস্ক না পরায় ১১ জনকে জরিমানা করেছে ডিএমপির ভ্রাম্যমাণ আদালত।

ঢাকানিউজ২৪.কম /

অর্থনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image