• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৬ ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

আইএমএফ-বিএসইসি বৈঠকে গুরুত্ব পেয়েছে অটোমেশন


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: সোমবার, ০৭ নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০২:৫২ পিএম
আইএমএফ-বিএসইসি বৈঠকে অটোমেশন
আইএমএফ-বিএসইসি

নিউজ ডেস্ক : আইএমএফ প্রতিনিধিদল আলোচনায় কোনো সুপারিশ করেনি বলেছেন, বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম। তারা মূলত দেশের পুঁজিবাজার উন্নয়নে রিস্ক ম্যানেজমেন্টসহ অবকাঠামো উন্নয়নে কথা বলেছে। এ ছাড়া তারা অটোমেশনের ওপর জোর দিয়েছে।

দেশের পুঁজিবাজারের সার্বিক অবকাঠামো নিয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থার (বিএসইসি) সঙ্গে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) প্রতিনিধিদলের আলোচনায় অটোমেশন গুরুত্ব পেয়েছে। তবে ফ্লোর প্রাইস নিয়ে কথা হয়নি।

সোমবার আইএমএফের সঙ্গে আলোচনা শেষে এসব কথা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম।

আইএমএফের একটি প্রতিনিধিদল সকাল সাড়ে ১০টায় বিএসইসিতে আসে। বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামের নেতৃত্বে প্রতিনিধিদলটি আইএমএফের সঙ্গে বৈঠক করে।

নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, এটি একটি রুটিন বৈঠক। আইএমএফ যতবার বাংলাদেশে আসে প্রতিবার কমিশনের সঙ্গে বসে। প্রতিবার আইএমএফ এ ধরনের সভা করে। আলোচনায় অটোমেশন পেয়েছে বিশেষ গুরুত্ব। তবে ফ্লোর প্রাইস নিয়ে কথা হয়নি।

তিনি জানান, আইএমএফ আলোচনা করেছে বিএসইসি পুঁজিবাজারের উন্নয়নে কী কী উদ্যোগ নিয়েছে সেটা নিয়ে। ক্যাপিটাল মার্কেট স্টাবেলাইজেশন ফান্ডের ব্যাপারে তারা খুব সন্তোষ প্রকাশ করেছে। এটা একটি ভালো উদ্যোগ বলে জানিয়েছেন তারা। এটা বাজার উন্নয়নে অনেক ভূমিকা রাখবে বলে তারা কমিশনকে ধন্যবাদ জানায়।

‘রিয়েল এস্টেট ইনভেস্টমেন্ট ট্রাস্ট (রিটস) এ ধরনের প্রোডাক্ট ডেরিভেটিবসহ নতুন নতুন পণ্য কীভাবে আনা যায় সে বিষয়ে তারা সার্বিক সহযোগিতা করবে বলে জানিয়েছে। এসব বিষয়ে আরও বেশি উদ্যোগ নেয়ার জন্য তারা বিএসইসিকে অনুরোধ করেছে,’ যোগ করেন মোহাম্মদ রেজাউল করিম।

‘এ ছাড়া কমোডিটি এক্সচেঞ্জসহ পুঁজিবাজার অবকাঠামো উন্নয়নে তারা কারিগরি সহযোগিতা করবে। বিএসইসি যে কমোডিটি এক্সচেঞ্জ নিয়ে কাজ এগিয়েছে সেটা নিয়ে তারা সন্তোষ প্রকাশ করেছে। এ ছাড়া পরিবেশবান্ধব বন্ড বাজারে আনতে তারা সহযোগিতা করবে বলে জানিয়েছে। এ ধরনের বন্ডের চাহিদা ও জোগান বাড়াতে তারা সহযোগিতা করতে চেয়েছে,’ যোগ করেন তিনি।

‘তারা কোনো সুপারিশ করেনি। তারা মূলত দেশের পুঁজিবাজার উন্নয়নে রিস্ক ম্যানেজমন্টসহ অবকাঠামো উন্নয়নে কথা বলেছে। এ ছাড়া তারা অটোমেশনের ওপর জোর দিয়েছে,’ যোগ করেন তিনি।

ফ্লোর প্রাইস নিয়ে আলোচনা হয়েছে কি না, এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘ফ্লোর প্রাইস কনসেপ্টটি তাদের জানা নেই। ফ্লোর প্রাইস নিয়ে কোনো আলোচনার সুযোগই ছিল না। কোনো নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাজার উন্নয়নে যদি কোনো সিদ্ধান্ত নেয়, এসব বিষয়ে তাদের কোনো সুপারিশ থাকে না। ফ্লোর প্রাইস কোনো আলোচনায় আসেনি,’ যোগ করেন বিএসইসি নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম।

বেলা সাড়ে ১১টার সময় আইএমএফের প্রতিনিধিদল আলোচনার অংশ নিতে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ-বিডার কার্যালয়ে যায়।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

অর্থনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image