• ঢাকা
  • সোমবার, ৩ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ১৭ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

পীরগঞ্জে মাল্টা চাষে কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বুধবার, ০১ ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ০২:০৮ পিএম
মাল্টা চাষে কৃষকদের আগ্রহ
মাল্টা বাগান

পীরগঞ্জ প্রতিনিধি, রংপুর: রংপুরের পীরগঞ্জ ‍উপজেলার কৃষকেরা বানিজ্যিক ভাবে মাল্টা চাষে বেশ আগ্রহী হয়ে উঠেছেন । অনেকেই এখন নিজেদের কৃষি জমিতে মাল্টা চাষ করে সফলও হচ্ছেন। ইতিমধ্যে পীরগঞ্জে ক্ষুদ্র ও বড় মিলে দু’শতাধিক মাল্টার বাগান গড়ে উঠেছে।

একাধিক সুত্র জানায়, মাল্টা সাইট্রাস পরিবারভুক্ত একটি বিদেশী ফল। কমলা আর বাতাবি লেবুর সঙ্করায়নে এ ফলের সৃষ্টি। এর আদি উৎপত্তিস্থল ভিয়েতনাম, দক্ষিণ চীন এবং উত্তর-পশ্চিম ভারত। রোগির পথ্য হিসেবে মাল্টা ফল বেশ উপকারী। যা খেতে সুস্বাদু ও পুষ্টিকর। পীরগঞ্জের কুমেদপুর ইউনিয়নের শিবপুর গ্রামের মাল্টা চাষী কৃষক মালয়েশিয়া প্রবাসী মিজানুর রহমান ।

তার সঙ্গে কথা বলে জাসা গেছে, বিগত ২০১৬ সালে দেড় একর জমিতে ৪শ’টি মাল্টার চারা রোপন করেন । এখন সেটি মাল্টার বাগানে পরিণত হয়েছে । গত ৫ বছরের মধ্যে তিনি এখন একজন সফল মাল্টা চাষি। তার এ বাগান থেকে বছরে  প্রায় ৮ লাখ টাকার মাল্টা বিক্রি হচ্ছে। মালয়েশিয়ায় থাকা অবস্থায় চ্যানেল আইয়ের ‘হৃদয়ে মাটি ও মানুষ’ অনুষ্ঠানের প্রতিবেদন থেকে শিক্ষা নিয়ে তিনি মাল্টা চাষে আগ্রহী হন এবং প্রবাস থেকে দেশে ফিরে মাল্টা চাষ শুরু করেন। বর্তমানে তার বাগানে ৪শ’টি মাল্টা গাছ সহ নানান ফলের গাছ রয়েছে।

এ মাল্টা খেতে অনেক সুস্বাধু ও মিষ্টি। বর্তমানে এই মাল্টা নিজ এলাকা ছাড়িয়ে দিনাজপুর, রংপুর, ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বাজারজাত করা হচ্ছে। বাগানে মাল্টার পাশাপাশি সৌদি আরবের খেজুর, কমলা ও লিচুও চাষ করা হচ্ছে। অবশ্য মাল্টা চাষের প্রতি সর্বাধিক গুরত্ব দিচ্ছেন । বাগানটিতে চারা রোপণের দুই বছরের মধ্যে ফলন শুরু হয়। তিনি এখন নিজে মাল্টার চারাও উৎপাদন করছেন।

তার সঙ্গে কথা বলে আরও জানা গেছে, প্রায় এক যুগ প্রবাসী জীবন কাটানোর পর দেশে ফিরে ফিরে  গরুর খামার, মাছচাষ ও বিভিন্ন ফলের চাষ নিয়ে নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন। মিজানুরের অনুপস্থিতিতে বাগানের নিয়মিত পরির্চচা করেন তার ছোট ভাই মাসুদ রানা। উপজেলার আরও ক’জন মাল্টাচাষী ভেন্ডাবাড়ির ইউনিয়নের জোতবাজ গ্রামের সাইফুল ইসলাম, মিল্কি গ্রামের মিলন মিয়া, বড়দরগাহ ইউনিয়নের ছোট মির্জাপুরের রয়েল মিয়া । তারাও মাল্টা চাষে বেশ সুফল পাচ্ছেন বলে জানান ।

পীরগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সাদেকুজ্জামান সরকার এ ব্যাপারে তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, পীরগঞ্জে প্রায় ৩০ একর জমিতে মাল্টা চাষ হচ্ছে। এনএটিপি-২ প্রকল্পের মাধ্যমে কৃষকদেও বিনামুল্যে চারা ও সার  দিয়ে মাল্টা চাষে কৃষকদেও আগ্রহী করা হচ্ছে । এছাড়াও রাজস্ব খাতে মাল্টাচাষীদের বিভিন্ন সহায়তা চলমান রয়েছে।

ঢাকানিউজ২৪.কম / বখতিয়ার রহমান/কেএন

কৃষি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image