• ঢাকা
  • বুধবার, ২০ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৫ অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

বিরামপুর রেল কোসিং এর যানজটে মানুষের দূর্ভোগ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ২১ আগষ্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১১:২৭ এএম
রেল কোসিং এর যানজটে মানুষের দূর্ভোগ
রেল কোসিং যানজটে মানুষ

রেজওয়ান আলী বিরামপুর প্রতিনিধি, দিনাজপুর: দিনাজপুর বিরামপুর রেল স্টেশনের দক্ষিণ পার্শ্বের রেল কোসিং এ জনসাধারণের পারাপারে চরম দূর্ভোগ ভোগান্তি নিয়ে জনসাধারণের অভিযোগ।

২০ আগষ্ট বিরামপুর রেল স্টেশনের দক্ষিণ পার্শ্বের রেল কোসিং এ যাতায়াতে চরম দূর্ভোগে পড়েছে চলাচলরত জনসাধারণ। এবিষয়ে সরজমিন পর্যবেক্ষনে জানা যায় যে,বিরামপুর উপজেলার অর্ন্তরগত ঢাকা মহাসড়ক বিরামপুর ঢাকা মোড় থেকে কোসিং পাকা রাস্তাটি শহরের হাজী মার্কেট,আলামিন মার্কেটের পাশ দিয়ে বিএনপি মোড় হয়ে রেল লাইন কোর্সিং হয়ে ফসি উদ্দিন মার্কেট শাল বাগান হয়ে পার্শ্ববর্তী নবাবগঞ্জ উপজেলায় প্রবেশ করেছে।

রাস্তাটি একটি জনবহুল রাস্তা এই রাস্তা দিয়ে পার্শ্ববর্তী উপজেলা সহ বিরামপুর উপজেলায় বসবাসরত বিরামপুর শহরে জনসাধারণের প্রবেশের একমাত্র দ্বার। উক্ত পাকা রাস্তাটি প্রায় সময় জনসাধারণের যাতায়াতে ব্যাস্ত সময় পার করেন। এরই মধ্যে রেললাইন কেসিং পয়েন্ট দিয়ে পার হয়ে শহরে প্রবেশ করতে হয়। যখনই ট্রেন যাতায়াত করে ঠিক ঐ সময়ে রাস্তাটি ঢাকা মোড় থেকে শালবাগান পর্যন্ত যানজট লেগে যায়। উক্ত রেল কোসিং পারাপার হওয়ার আর কোন বিকল্প রাস্তা নাই। এত যানযট লেগে যায় তাহা ক্লিয়ার হতে সময় লাগে প্রায় ১-২ ঘন্টা। বিশেষ করে উক্ত রাস্তাটি রেললাইন কেসিং পার হতে জরুরি অসুস্থ্য মানুষের এ্যামবুলেন্সে থাকা রুগিরা পড়ে যায় কঠিন বিপদে। পক্ষান্তরে আরও জানা যায়,বিরামপুর রেলস্টেশন একটি অত্যাধুনিক ডিজাইনে তৈরির কাজ অব্যাহত রয়েছে।

উক্ত আধুনিক ডিজাইনে রেলস্টেশনের কাজ সমাপ্ত হলে জনসাধারণের যাতায়াতের চলাচল আরও বেড়ে যাবে। বর্তমান যে অবস্থা একটি ট্রেন যাওয়ার সাথে সাথে যানযটে জনসাধারণ কঠিন বিপদে পড়ে যায়। বিরামপুর রেলস্টেশন একটি আধুনিক রেলস্টেশন রুপ নিতে যাচ্ছে,এরই ধাঁরাবাহিকতায় রেলস্টেশনের পূর্ব পশ্চিম উত্তর এবং দক্ষিণ দিকে অবৈধ অনেক স্হাপনা।

বিশেষ করে উক্ত অবৈধ দোকানপাট স্হাপনা থাকায় রাস্তায় যানযটের একমাত্র কারন। রাস্তার দুই পার্শ্বে অবৈধ দোকানপাট স্হাপনা না সরানো হলে আধুনিক রেলস্টেশনের পূর্ণ রুপ পাবে না। সেই লক্ষে দক্ষিণে রেল কোসিং এর দুই সাইট একান্তভাবে উচ্ছেদ করা প্রয়োজন বলে জনসাধারণের একান্ত দাবী। রেল কোসিং এর উত্তর ও দক্ষিণ পার্শ্বে বসেছে রেলের জায়গার উপর অবৈধ দোকানপাট। এরই জন্যই রেল কোসিং এ জনসাধারণের পারাপারের এত যানযটের দৃশ্য। এবিষয়ে স্হানীয় জনসাধারণের নিকট জানতে চাইলে তারা বলেন,একাধারে বহুবার

রেল কতৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে কিন্তু এতে কোন ফায়দা হয় নাই। বারবার প্রতি নিয়ত জনসাধারণ রাস্তা চলাচলে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। তারা আরও বলেন রেল কতৃপক্ষ এই কাজটি করতে চায় কিন্তু স্হানীয় নেতৃবৃন্দের কারনে তা বন্ধ হয়ে যায়। এবিষয়ে স্হানীয় জনসাধারণ উপর মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

সারাদেশ বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image