• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ১২ জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

সিলেটের শুল্ক স্টেশনগুলোতে চুনাপাথর আমদানি বেড়েছে 


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০৮:২২ পিএম
সিলেটের শুল্ক স্টেশনগুলোতে
চুনাপাথর আমদানি বেড়েছে 

সিলেট প্রতিনিধি : দেশের রাজস্ব আদায়ে বড় ধরনের অবদান রাখছে চুনাপাথর আমদানিতে। এর পেছনের কারিগর হচ্ছেন আমদানি কারক ব্যবসায়ীরা। সিলেট জেলার সুনামগঞ্জের ছাতক স্টেশন রোডে নিয়মিত আমদানি করা হয় চুনাপাথর, দীর্ঘ দিন ধরে এ রোডে পাথর ভারত থেকে বাংলাদেশে আসলে ইতোপূর্বে এ ব্যবসায় লোকসান দিলেও ব্যবসায়ীরা এখন তাদের মুখে হাসি ফুঁটেছেন। সুনামগঞ্জের ছাতক অঞ্চলের স্থল শুল্ক স্টেশনে ভারত থেকে চুনাপাথর আমদানিতে সরকারি রাজস্ব আদায় বেড়েছে। কমেছে উপজেলার আওতাধীন চেলা ও ইছামতী স্থল শুল্ক স্টেশনের রাজস্ব আদায়। তবে ৩টি রুটে রাজস্ব আদায়ে গড় লক্ষ্যমাত্রা বেড়েছে।

গত বছরের বন্যা ও ডলার সংকটে এলসি জটিলতার কারণে ছাতক শুল্ক স্টেশন দিয়ে চুনাপাথর আমদানি কম হলেও রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। ২০২২-২৩ অর্থ বছরে তিনটি শুল্ক স্টেশনে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৯১ কোটি টাকা। বিপরীতে রাজস্ব আদায় হয়েছে ১৩৯ কোটি ১৫ লাখ ৪ হাজার টাকা। চলমান ২০২৩-২৪ অর্থ বছরে ছাতক রুটে ১০৭ কোটি ৪৬ লাখ ৩৯ হাজার, চেলা রুটে ১ কোটি ১৯ লাখ ৯৪ হাজার এবং ইছামতী রুটে ২  কোটি ৩২ লাখ ১২ হাজার টাকা নির্ধারণ করে তিনটি রুটে মোট রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করা হয়েছে ১১০ কোটি ৯৮ লাখ ৪৫ হাজার টাকা।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গত অর্থ বছরে ছাতক রুটে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৮৪ কোটি টাকা। চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত আদায় হয়েছে ১৩৪ কোটি ৪১ লাখ ৯৩ হাজার টাকা, যা লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ৫০ কোটি ৪১ লাখ ৯৩ হাজার টাকা  বেশি। চেলা রুটে লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২ কোটি ৯৯ লাখ ৯৯ হাজার টাকা। রাজস্ব আদায় হয়েছে ১ কোটি ৬১ লাখ ১৮ হাজার টাকা, যা লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ১ কোটি ৩৮ লাখ ৮১ হাজার টাকা কম।

তৃতীয় রুট ইছামতীতে লক্ষ্যমাত্রা ৪ কোটি ১ হাজার টাকা ধরা হলেও আদায় হয়েছে ৩ কোটি ১১ লাখ ৯৩ হাজার টাকা, যা লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ৮৮ লাখ ৮ হাজার টাকা কম। এ রুটে গত ২০২১-২২ অর্থবছরে রাজস্ব আদায় হয়েছিল ৩ কোটি ৪৪ লাখ ৫২ হাজার টাকা, যা একই অর্থ বছরের লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ৩২ লাখ ৫৯ হাজার টাকা কম।

ছাতক শুল্ক স্টেশনের আওতায় তিনটি রুটে এ অঞ্চলের ছোট-বড় ব্যবসায়ী ছাড়াও এশিয়ার বৃহত্তর সিমেন্ট উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান লাফার্জ- হোলসিম সিমেন্ট কোম্পানি ও রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান ছাতক সিমেন্ট কোম্পানি চুনাপাথর আমদানি করে। ছাতক সিমেন্ট কোম্পানির আধুনিকায়নে নতুন প্রকল্প শুরু হওয়ায় চুনাপাথর আমদানি বন্ধ রয়েছে।

ছাতক শুল্ক স্টেশনের দায়িত্ব প্রাপ্ত রাজস্ব কর্মকর্তা জানান, মাঝে-মাঝে নানা জটিলতায় চুনাপাথর আমদানি সাময়িক বন্ধ থাকে। তবে সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী অর্থ বছরে রাজস্ব আদায়ের নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image