• ঢাকা
  • শুক্রবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ২০ মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

জনস্থানে ও গনপরিবহনে নারী ও কন্যা শিশুদের যৌন হয়রানি বন্ধের দাবী


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: সোমবার, ১৪ মার্চ, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১২:৩৮ পিএম
বন্ধে বিদ্যামান আইন ও নীতিমালা গুলো যথেষ্ট নয়
সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) মতবিনিময় সভা

নিউজ ডেস্ক;   জনস্থানে ও গনপরিবহনে নারী ও কন্যা শিশুদের উপর যৌন হয়রানি ও সহিংসতা নিত্য দিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। জনস্থানে নারী ও কন্যা শিশুর উপর হয়রানি বন্ধে বিদ্যামান আইন ও নীতিমালাগুলো যথেষ্ট নয়। অনলাইন প্লাটফর্মসহ জনস্থান সমূহে নারীদের জন্য আরও নিরাপদ ও স্বস্তিকর পরিবেশ নিশ্চিত করতে পর্যাপ্ত, সম্মিলিত ও সমন্বিত পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন।

বরিশালে জনস্থানে নারীর নিরাপত্তা প্রাচারাভিযান নিয়ে এক মতবিনিময় সভার বক্তারা এসব কথা বলেছেন।  

রবিবার নগরীর ফকিরবাড়ি রোডস্থ আইসিডিএ মিলনায়তনে সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই), তরুণদের প্লাটফর্ম ইয়াং বাংলা, জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচির (ইউএনডিপি) মানবাধিকার কর্মসূচি এবং জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সহযোগিতায় ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস এ সভার আয়োজন করে।
 
মূল উপস্থাপনায় বলা হয়, বাংলাদেশের সংবিধানের ২৮.২ এবং ৩৫ নম্বর অনুচ্ছেদে রাষ্ট্রীয় ও জনজীবনের সবক্ষেত্রে নারীদের সমান অধিকার এবং চলাফেরার স্বাধীনতার নিশ্চয়তা দেয়া হয়েছে। জাতীয় নারী উন্নয়ন নীতি ২০১১ অনুযায়ী শ্রমবাজার ও কর্মক্ষত্রে সমান অধিকারসহ সব ধরনের জাতীয় অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে নারীর সক্রিয় অংশগ্রহণের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করা হয়েছে। তবে প্রতীয়মান যে, জনস্থানে নারী ও মেয়ে শিশুদের ওপর হয়রানি বন্ধে বিদ্যামান আইন ও নীতিমালা গুলো যথেষ্ট নয়।

এসময় বক্তারা বলেন,  জনসমাগম স্থল ও চলার পথকে নারীদের জন্য নিরাপদ করতে আরো বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। নারীর প্রতি সহিংসতা ও হয়রানি রোধে জনসচেতনতার কোন বিকল্প নেই। একজন নারীর নিরাপত্তা ও চলার পথকে মসৃন করতে হলে, তাঁকে অবশ্যই উপযুক্ত পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে। নারীর নিরাপত্তা বিষয়ে সংশ্লিষ্ট অংশীজনসহ তরুণ সমাজ ও নাগরিকদের ধারণা, দৃষ্টিভঙ্গি ও আচরণে ইতিবাচক পরিবর্তন আনা দরকার বলে বক্তারা উল্লেখ করেন।

সংলাপে প্রতীকি যুব সংসদের চেয়ারপারসন মো: আমিনুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণমাধ্যমকর্মী ও নারীনেত্রী অধ্যাপক শাহ সাজেদা। ইয়ুথ নেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস নির্বাহী সমন্বয়কারী সোহানুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে একাত্তর টেলিভিশনের বরিশাল ব্যুরো প্রধান বিধান সরকার, দৈনিক দক্ষিনের কাগজের বার্তা সম্পাদক শাওন খান, মাই টিভি বরিশাল প্রতিনিধি পারভেজ রাসেল, যুগান্তরের ব্যুরো রিপোর্টার অনিকেত মাসুদ, আজকের পরিবর্তনের স্টাফ রিপোর্টার হেলাল উদ্দিন, হ্যালো বরিশালের বার্তা সম্পাদক জিয়াউল করিম মিনারসহ বিভিন্ন পত্রিকার সাংবাদিকরা আলোচনায় অংশ নেন।

ঢাকানিউজ২৪.কম /

নারী ও শিশু বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image