• ঢাকা
  • শুক্রবার, ৭ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ২১ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

নাঈমের নামে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের ঘোষণা


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বুধবার, ০১ ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ০৪:৪৩ পিএম
নাঈমের নামে ফুটওভার ব্রিজ
ডিএসসিসি'র মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস

ডেস্ক রিপোর্টার: ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস ঘোষণা দিয়েছেন, নটরডেম কলেজের শিক্ষার্থী নাঈম হাসানের নামে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করা হবে।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে গণমাধ্যমকে তিনি এ কথা বলেন।

মেয়র তাপস বলেন, এখানে আগে থেকেই পথচারী পারাপারে আন্ডারপাসের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। কিন্তু এই পথচারী পারাপারের ব্যবস্থা বিভিন্ন দখলের কারণে অকার্যকর হয়ে আছে। যার কারণে সাধারণ মানুষ নিচে নেমে পার না হয়ে সড়কের ওপর দিয়ে পার হতে বাধ্য হন। সুতরাং আমাদের নতুনভাবে চিন্তা করতে হচ্ছে। আমরা আন্ডারপাস কার্যকর করব। যত দিন যাবে, মানুষের চলাচল তত বাড়বে। আমার মতে, আন্ডারপাস যথেষ্ট না, যে কারণে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আরও বলেন, উপর দিয়ে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করা যায় কি না সেটা বিশ্লেষণ করতে পরিদর্শন করেছি আমরা। সিদ্ধান্ত নিয়েছি এখানে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করা হবে। সেটা নাঈমের নামে উৎসর্গ করা হবে।

ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা প্রসঙ্গে তাপস বলেন, পুরো চত্বর নিয়ে একটি ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম নিশ্চিত করতে হবে। অতীতে অনেক উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে, সেটাকে কার্যকর করা যায়নি। এখানে কয়েকমুখী যাতায়াত ব্যবস্থা। তাই প্রতিটি পথের যাতায়াতকে পরিকল্পনার মাধ্যমে সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার আওতায় আনতে হবে। আমরা সেটাই এখন গ্রহণ করব।

মেয়র বলেন, সুদূরপ্রসারী চিন্তা করতে হলে একটা কিছু করে ফেললেই সেটা কাজে দেবে না। আমরা চাই কার্যকর পরিস্থিতি। কারণ যত দিন যাবে এই জায়গায় যান চলাচল বাড়বে। তাই আগামী ১৫ বছর মাথায় রেখে আমাদের কাজ করতে হবে।

সিটি করপোরেশনের গাড়ির ধাক্কায় শিক্ষার্থী নিহতের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি দায়িত্ব নেয়ার পরে যখন লক্ষ্য করি আমাদের পর্যাপ্ত গাড়িচালক নেই তখন নিয়োগের উদ্যোগ নিয়েছি। আমরা ৫০ জন ভারী গাড়িচালক নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দিয়েছিলাম। ৩২ জনের চূড়ান্ত তালিকা করতে পেরেছিলাম। কিন্তু বিআরটিএ থেকে যথাসময়ে লাইসেন্স না দেওয়ার কারণে মাত্র ১৯ জনকে নিয়োগ দিতে পেরেছি।

কাঠামোতে ১৮৩টি পদ আছে কিন্তু সে অনুযায়ী আমাদের পর্যাপ্ত গাড়িচালক নেই। কিন্তু যে ঘটনাটা ঘটেছে, আমাদের নিয়মিত গাড়িচালককেই দায়িত্ব দেওয়ার ছিল। সে দায়িত্ব অবহেলা করে-গাফিলতি করে আরেকজনকে ভাড়া দিয়েছে, যা জঘন্যতম অন্যায় হয়েছে। এর মধ্যে আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। আমরা আরেকজনকে শনাক্ত করেছি যে দায়িত্ব অবহেলা করেছে, তাকেও আমরা সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছি। এই বিষয়টি আমরা কঠোরভাবে মোকাবিলা করব।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

জাতীয় বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image