• ঢাকা
  • বুধবার, ১৩ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ২৬ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

ভুল বোঝাবুঝি শিগগির সমাধান হবে: মো. তাজুল ইসলাম


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ২২ আগষ্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১১:৫৬ পিএম
ভুল বোঝাবুঝি শিগগির সমাধান হবে
মো. তাজুল ইসলাম

নিউজ  ডেস্ক:  বরিশাল সদর উপজেলা চত্বরে ব্যানার-ফেস্টুন ছেঁড়াকে কেন্দ্র করে জেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনাকে ‘তুচ্ছ’ হিসেবে উল্লেখ করে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন ওই ঘটনার সমাধান দ্রুতই হবে।

রোববার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন,‘বরিশালে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সিটি করপোরেশন ও প্রশাসনের মধ্যে যে ভুল বোঝাবুঝি সৃষ্টি হয়েছে তা খুব শিগগির সমাধান হবে।’

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, ‘একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে কখনও কখনও ভুল বোঝাবুঝি হয়, আবার সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তা নিরসনও হয়। বরিশালে যে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাটি ঘটেছে, তা সমাধানের দিকে যাচ্ছে। সংশ্লিষ্ট সবাই নিজ নিজ অবস্থান থেকে আন্তরিকতার সাথে কাজ করছে। আমি আশা করি এটি খুব দ্রুত সমাধান হয়ে যাবে।’

মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ‘প্রাপ্ত তথ্যমতে সিটি করপোরেশনের লোকজন সেখানে কিছু অপ্রয়োজনীয় পোস্টার, বর্জ্য অপসারন করার জন্য গেলে প্রশাসনের কর্মচারীর সঙ্গে কিছু ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও সিটি করপোরেশনের মেয়র সেখানে সমস্যা মীমাংসা করতে যান।’

এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘সেখানে অবশ্যই কিছু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে, যে কারণে ইউএনও হয়তো অসন্তুষ্ট হয়েছেন। আবার রাজনৈতিক নেতারা বলছেন, তারা মীমাংসা করার জন্য সেখানে গেছেন। সেখানে আসলে কি হয়েছিল, সেটি এখন সময়ের ব্যবধানে জানা যাবে। আমরা সবাই স্ব স্ব পদে দায়িত্বশীল, সবাই প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আস্থাশীল, সে কারণে আশা করি সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে।’

সিটি করপোরেশন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অধীন হওয়ায় এ বিষয়ে কোনো তদন্ত করা হচ্ছে কি না এমন প্রশ্নের উত্তরে তাজুল ইসলাম বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে যেহেতু মামলা হয়েছে, পুলিশ তদন্ত করবে। আমাদের পক্ষ থেকে যদি তদন্ত করার দরকার হয়, প্রয়োজনে ঘটনার তদন্ত অবশ্যই করা হবে।’  

সংঘর্ষের ঘটনায় ইউএনও ও ‍পুলিশ বাদী হয়ে দুটি মামলা দায়ের করে বরিশালের কোতোয়ালি থানায়। দুটি মামলায় আসামি করা হয় বরিশালের সিটি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহকে।

ইউএনওর বাসভবনে হামলার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বিবৃতি দেয় প্রশাসন ক্যাডারদের সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অ্যাসোসিয়েশন। হামলার ঘটনায় জড়িত আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের ‘রাজনৈতিক দুর্বৃত্ত’ বলে ওই বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।

সেই বিবৃতি আসার পর বরিশাল মহানগরে বিক্ষোভ করছে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সংগঠন।

রোববার বিকেলে সদরের ইউএনও মো. মুনিবুর রহমানের বিরুদ্ধে দুটি মামলা এবং  কোতোয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলামের বিরুদ্ধে বরিশালের কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করেন প্যানেল মেয়র অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন।

ঢাকানিউজ২৪.কম /

জাতীয় বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image