• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৪ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ১৮ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে প্রচারণায় ব্যস্ত আইভী-তৈমূর


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শুক্রবার, ০৭ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১২:৫৫ পিএম
সন্ত্রাস নির্মূলের কাজ হলো আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর
নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন

নিউজ ডেস্ক:  নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা। মেয়র প্রার্থীরা প্রতিদিন অন্ততপক্ষে দুইটি করে ওয়ার্ডে যাচ্ছেন। পাশাপাশি আইভী ও তৈমূরের সমর্থকরা নৌকা এবং হাতি প্রতীকে ভোট চেয়ে পাড়া-মহল্লা চষে বেড়াচ্ছেন। নাসিকে মেয়র পদে সাত জন প্রার্থী থাকলেও মাঠে তৈমূর ও আইভী ছাড়া ইসলামী আন্দোলনের হাতপাখা মার্কা এবং খেলাফত মজলিসের দেওয়াল ঘড়ি মার্কার প্রার্থীরা প্রচারণা চালাচ্ছেন। অপর তিন প্রার্থীকে মাঠে দেখা যাচ্ছে না।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী সকালে ১০ নম্বর ওয়ার্ডে ও বিকালে ২৫ নম্বর ওয়ার্ডে নির্বাচনি প্রচারণাকালে নৌকা মার্কায় ভোট চেয়ে বলেন, ‘নৌকার জোয়ার উঠেছে। বিজয় সুনিশ্চিত।’ এ সময় আইভী বলেন, আমার দায়িত্ব হলো নেক্সট টার্মে যদি আসি তাহলে আসব মানুষের খেদমত করার জন্যই। প্রতিটা ওয়ার্ডে পানি পৌঁছে দেওয়া, ওয়ার্ডগুলোতে খেলার মাঠের ব্যবস্হা করে দেওয়া হবে। আইভী তাকে জয়যুক্ত করার জন্য নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আরেক বার সেবা করার সুযোগ চান।

মাদক ও সন্ত্রাস প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি হয়তো সবাইকে এসব বিষয়ে সচেতন করতে পারবো। তবে মাদক ও সন্ত্রাস নির্মূলের কাজ হলো আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর। আমাদের শহরে কোথায় মাদক বিক্রি হচ্ছে, কারা বিক্রি করছে—এগুলো আইনশৃঙ্খলা বাহিনী লক্ষ করবে। তারা চাইলে তা রোধ করতে পারে। আমাদের হেল্প লাগলে দেব। আমি মাদকের বিরুদ্ধে বরাবর সোচ্চার ছিলাম, এখনো আছি।’ এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমি নারীদের জন্য অনেক কাজ করেছি। তাদের জন্য ক্ষুদ্র ব্যবসার ব্যবস্হা করেছি, লোন দিচ্ছি, তাদের ছেলেমেয়েদের লেখাপড়ার জন্য বই-খাতা কিনে দিচ্ছি, সেলাইকাজ শেখাচ্ছি। নারীদের স্বাবলম্বী করতে সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবে তাদের মর্যাদা বৃদ্ধির জন্যও কাজ করছি। নারীদের ডিমান্ড অনুযায়ী কাজ করতে চাই।’ তিনি আরো বলেন, আমি জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী।

স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বিএনপি নেতা তৈমূর আলম খন্দকার গতকাল নাসিকের ৭ ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডে নির্বাচনি প্রচারণাকালে বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জের মানুষ এবার ভুল করতে রাজি নয়। আওয়ামী লীগের যিনি প্রধান তিনিই বলেছেন তৈমূর আলম উইনেবল ক্যান্ডিডেট। তিনি তিন বার বলেছেন—তৈমূর জেতার মতো লোক। নারায়ণগঞ্জের মানুষ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কথা বিশ্বাস করবে নাকি সরকারি দলের এমপি-মন্ত্রীদের কাহিনী বিশ্বাস করবে।’

তৈমূর বলেন, নারায়ণগঞ্জবাসী একটা প্রার্থী দীর্ঘদিন যাবত খুঁজছিল। আমি কয়েক বার দাঁড়াইনি আর একবার আমার দল নিজেই বসে গেছে। তখন আমার কিছু করার ছিল না যেহেতু আমি দলের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করেছি। আমি জনগণের ফুলের মালা পাচ্ছি এখন।

ঢাকানিউজ২৪.কম /

সারাদেশ বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image