• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২৩ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

বিজিএমইএ'র নির্বাচন: সম্মিলিত পরিষদের ইশতিহার ঘোষণা


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ২৫ ফেরুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০৪:৪৫ পিএম
বিজিএমইএ'র নির্বাচন: সম্মিলিত পরিষদের ইশতিহার ঘোষণা
বিজিএমইএ নির্বাচনে 'সম্মিলিত পরিষদ'।

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি 'বিজিএমইএ'র পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচনে 'সম্মিলিত পরিষদ' প্যানেলের নির্বাচনী ইশতিহার ঘোষণা করা হয়েছে।

রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মাধ্যমে এ ঘোষণা করা হয়।

সম্মিলিত পরিষদের পক্ষে টেকসই শিল্পায়ন বাস্তবায়নসহ ১৫ দফা নির্বাচনী ইশতিহার ঘোষণা করেন চিফ ইলেকশন কোর্ডিনেটর ও বিজিএমইএ'র সাবেক সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সম্মিলিত পরিষদের প্যানেল লিডার এস এম মান্নান (কচি)।

ইশতিহারে বলা হয় - এসএমই শিল্পের টেকসই উন্নয়ন অর্থাৎ আমাদের শিল্পের মূল চালিকা শক্তি হলো ক্ষুদ্র ও মাঝারি কারখানাগুলো। এসব কারখানাগুলোর প্রয়োজনীয় সহযোগিতা বিশেষ করে ক্ষুদ্র মাঝারি কারখানা বান্ধব শিল্পনীতির জন্য প্রস্তাবনা ও বাস্তবায়ন করা।

ব্যবসা সহজীকরণ অর্থাৎ এইচ.এস.কোড. সংক্রান্ত বিরাজমান সমস্যাগুলোর সমাধানের জন্য প্রস্তাবনা ও রপ্তানি মুখী পোশাকশিল্পে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে গ্যাস সংযোগের বিষয়ে ইশতিহারে বলা হয়েছে।

রাজস্ব সংক্রান্ত জটিলতা নিরসন অর্থাৎ রাজস্ব বোর্ড (NBR) সংক্রান্ত জটিলতা নিরসনের জন্য বেশ কিছু প্রস্তাবনা ইশতিহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

শুল্ক/আয়কর/ভ্যাট/নগদ সহায়তা সংক্রান্ত জটিলতা নিরসন অর্থাৎ পোশাক শিল্পের উন্নয়নের নীতি সহায়তা, যএমন- ননকটন পোশাক রপ্তানি উৎসায়িত করতে বিশেষ প্রণোদনা, সোলার সিস্টেম স্থাপনের জন্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদির শুল্কমুক্ত আমদানি সহ বেশ কিছু প্রস্তাবনা ইশতিহারে দেওয়া হয়েছে।

ব্যাংক ও আর্থিক সেবা খাত সংক্রান্ত উদ্যোগ অর্থাৎ রপ্তানিমুখী পোশাক শিল্পের জন্য ব্যাংক ঋণের সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে নিয়ে আসা, ডলারের বিশেষ রেট ধার্য করন ইত্যাদি প্রস্তাবনা ইশতিহারে দেওয়া হয়েছে।

টেকসই শিল্পায়ন, সমৃদ্ধ অর্থনীতি অর্থাৎ ইনোভেশন, ডিজাইন ডেভেলপমেন্ট ইত্যাদি কর্মপরিকল্পনার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করা হবে।

পণ্য ও বাজার বহুমুখীকরণ অর্থাৎ LDC graduation উত্তর রপ্তানি সুবিধা অব্যাহত রাখতে অ্যাপারেল ডিপ্লোমেসিসহ কার্যকরী উদ্যোগ গ্রহণ করা।

অংশীদারমূলক বিজিএমইএ গঠন অর্থাৎ বিজিএমইএ সদস্যদের অংশগ্রহণ বাড়িয়ে একটি অংশগ্রহণমূলক ও জবাবদিহিমূলক বিজিএমইএ সৃষ্টির লক্ষ্যে কাজ করার পরিকল্পনা ইশতিহারে দেওয়া হয়েছে।

সবুজ বিপ্লবের সমৃদ্ধি অর্থাৎ কার্বন নিঃরসন হ্রাসকরনসহ আমাদের পোশাক শিল্পে যে সবুজ বিপ্লব ঘটেছে তাকে পরবর্তী ধাপে নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রস্তাবনা ইশতিহারে দেওয়া হয়েছে।

পোশাক শিল্পের ভাবমূর্তি উন্নয়ন অর্থাৎ পোশাক শিল্পের আন্তর্জাতিক ভাবমূর্তি উন্নয়নে বিভিন্ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কাজ করা।

মধ্যম শ্রেণীর ব্যবস্থাপকদের কর্মদক্ষতা উন্নয়ন অর্থাৎ চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের ধারণাকে সামনে রেখে কারখানাগুলোর মধ্যম শ্রেণী ব্যবস্থাপকদের দক্ষতা উন্নয়নের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের কথা ইশতিহারে বলা হয়েছে।

ব্যাকওয়ার্ড লিংকেজ শিল্পের জন্য প্রণোদনা ও নীতি সহায়তা অর্থাৎ স্বল্পোন্নত দেশ হতে উন্নত দেশে পরিনত হবার কারনে ভবিষ্যতে ব্যাকওয়ার্ড লিংকেজ শিল্পে বিনিয়োগ ব্যবসায় টিকে থাকার জন্য জরুরী। তাই ব্যাকওয়ার্ড লিংকেজ শিল্পের জন্য প্রণোদনা ও নীতি সহায়তার প্রস্তাবনা এখানে উল্লেখ করা হয়েছে।

সার্কুলারিটি ইকোনমি অর্থাৎ সার্কুলারিটি তথা রিসাইক্লিং প্রমোশনের নিমিত্তে কর্মপরিকল্পনার কথা ইশতিহারে বলা হয়েছে। 

ইউনিফাইড কোড অব কন্ডাক্ট অর্থাৎ ইউনিফাইড কোড অব কন্ডাক্ট বাস্তবায়নের জন্য পরিকল্পনার করা ও RSC এর স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণের জন্য উদ্যোগের প্রস্তাবনা করা।

আরএসসই (RSC) সংক্রান্ত জটিলতা নিরসন অর্থাৎ RSC এর স্বচ্ছতা জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণের জন্য উদ্যোগের প্রস্তাবনার কথা ইশতিহারে বলা হয়েছে।

আসন্ন বিজিএমইএ'র নির্বাচনে 'সম্মিলিত পরিষদ' এ প্যানেল লিডার এস এম মান্নান (কচি), আব্দুল্লাহ হিল রাকিব, এম শহিদুল্লাহ আজিম, মোঃ মহিউদ্দিন রুবেল,খন্দকার রফিকুল ইসলাম, শেহরিন সালাম ঐশী, মোঃ শাহাদাত হোসেন, মোঃ রেজাউল আলম (মিরু), মোঃ জাকির হোসেন, মোঃ ইমরানুর রহমান, আশিকুর রহমান (তুহিন), মিরান আলী, নুসরাত বারী আশা, মোঃ নরুল ইসলাম, মোঃ নাসির উদ্দিন, আবরার হোসেন সায়েম, শামস মাহমুদ, মোহাম্মদ সোহেল সাদাত, শোভন ইসলাম, আনোয়ার হোসেন মানিক, সাইফুদ্দিন সিদ্দিকী সাগর, হারুন আর রশিদ, আরশাদ জামাল (দীপু), আসিফ আশরাফ, মেজবাহ উদ্দিন খান, রাজিব চৌধুরী, এম. আহসানুল হক, মোহাম্মদ রাকিব আল নাসের, আমজাদ হোসেন চৌধুরী, রাকিবুল আলম চৌধুরী, মোহাম্মদ মুসা, মোস্তফা সারোয়ার রিয়াদ, গাজী মোঃ শহীদুল্লাহ, মোঃ আবচার হোসেন ও সৈয়দ নজরুল ইসলাম প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন।

এসময় সম্মিলিত পরিষদের প্যানেল লিডার এস এম মান্নান (কচি) বলেন, আমি আশা করি সম্মানিত ব্যবসায়ীরা একজন সৎ যোগ্য প্রার্থীকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন। তাছাড়া নির্বাচনে যেই জয়ী হোক তাদের নিয়ে টেকসই শিল্পায়ন বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে কাজ করবো। স্মার্ট পোশাক শিল্প বিনির্মাণে সম্মিলিত পরিষদের পক্ষে ব্যবসায়ীদের কাছে ভোট প্রার্থনা করেন তিনি।

উল্লেখ্য, আগামী ৯ মার্চ ২০২৪-২০২৬ মেয়াদে 'বিজিএমইএ'র নির্বাচনে 'সম্মিলিত পরিষদ ও ফোরাম এদুটি দল অংশগ্রহণ করবে।

 

 

ঢাকানিউজ২৪.কম / জেডএস/সানি

আরো পড়ুন

Something went wrong!