• ঢাকা
  • সোমবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ২৮ নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রীর অবৈধ মাদক ও দেহব্যবসা ব্যবসা বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শুক্রবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৮:৫১ পিএম
কেন্দুয়া, নেত্রকোণা, অপরাধ,
কেন্দুয়ায় বৃহস্পতিবার মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রীর অবৈধ মাদক ও দেহব্যবসা ব্যবসা বন্ধের দাবিতে বিক

 

ময়মনসিংহ ব্যুরো :  সাম্প্রতিক নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলায় সৈয়দা নাসিমা আক্তার একটি আলোচিত নামে পরিণত হয়েছে। সান্দিকোনা ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতির বাড়িতে চলমান অবৈধ দেহব্যবসা ও মাদক ব্যবসা বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছেন বিক্ষোব্ধ এলাকাবাসী। এছাড়াও সৈয়দা নাছিমা আক্তারের এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে শতাধিক স্থানীয় লোকজনের স্বাক্ষর যুক্ত একটি লিখিত অভিযোগপত্র ১৫ নভেম্বর প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে প্রেরণ করেছেন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো.শামছুদ্দিন।

বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলার সান্দিকোনা ইউনিয়নের ভঙ্গানিয়ার কেন্দুয়া-আঠারবাড়ি সড়কে এলাকাবাসীর ব্যানারে ঘণ্টাব্যাপী এ বিক্ষোভ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এ বিক্ষোভ ও মানববন্ধনে স্থানীয় এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীসহ কয়েক শতাধিক লোকজন অংশগ্রহণ করেন। এ সময় সড়কে যান চলাচলে বিঘœ সৃষ্টি হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে। 

জানা গেছে, মুকুন্দাবাদ গ্রামের মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী সান্দিকোনা ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সৈয়দা নাছিমা আক্তার ৪-৫ বছর ধরে নিজ বাড়িতে নারীদের দেহব্যবসাসহ মাদক ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। এলাকার লোকজন এ ঘটনার প্রতিবাদ জানালে উল্টো তাদের ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছিলেন তিনি। এরই প্রতিবাদে ওই নারীনেত্রীর অপকর্ম বন্ধের দাবিতে বৃহস্পতিবার বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেন এলাকার লোকজন।

মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন- সৈয়দা নাছিমা আক্তারের ভাসুর আলী আজগর, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা মো. শফিকুল ইসলাম, স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. শামছুদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, কেন্দুয়া উপজেলার চিরাং ইউনিয়ন আওয়ামিলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং মানবাধিকার সংস্থা - বাংলাদেশ আইন সহায়তা কেন্দ্র ফাউন্ডেশন (বাসক) কেন্দুয়া উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মামুনুল কবীর খান হলি, স্থানীয় ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম, রিপন, স্থানীয় মুকুন্দাবাদ বালুচর হাফিজিয়া মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা নজরুল ইসলাম, ব্যবসায়ী আফাজ উদ্দিনসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা। 

এছাড়া সৈয়দা নাছিমা আক্তারের এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে এলাকার শতাধিক লোকজনের স্বাক্ষরসহ ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো.শামছুদ্দিন ১৫ নভেম্বর বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

 অভিযোগ অস্বীকার করে সৈয়দা নাছিমা আক্তার বলেন, রাজনীতির সুবাদে অনেক নারী আমার বাড়িতে আসা যাওয়া করেন। এগুলো এলাকার লোকজন ভালো চোখে দেখেনি। গ্রামের কিছু লোকজন মিলে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা দেহব্যবসা ও মাদক ব্যবসার অভিযোগ করেছে।

এলাকাবাসী জানান, গত ১৫ই অক্টোবর, ২০২২ এর সকাল ১১ ঘটিকায় এলাকার যুবকগন সৈয়দা নাসিমা আক্তারের বাড়ি হতে অপরিচিত দুই জন পুরুষ ও দুই জন মহিলাকে দেখতে পেয়ে দুই জন পুরুষকে আটক করেন। কিন্তু মহিলা দুজন কোন রকমে পালিয়ে যেতে সক্ষম হন। এরপর স্থানীয় চেয়ারম্যান আজিজুল ইসলামের নির্দেশে লোক দুজনকে রাগান্বিত যুবকদের হাত থেকে ছাড়িয়ে নেন আবু তাহের, শামসুদ্দিন এবং নজরুল ইসলাম। সবচেয়ে অবাক করা বিষয় টি হলো অনৈতিক কাজ চলা ঘরটির খুব কাছাকাছি একটি মসজিদ এবং একটি মাদ্রাসা অবস্থিত। উক্ত ঘটনার প্রতিবাদে সান্দিকোনা ইউনিয়নবাসী এবং মাদ্রাসার শিক্ষার্থীগণ ১৭ই নভেম্বর কেন্দুয়া-আঠারবাড়ি মহাসড়কে মানববন্ধন করেন যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে লাইভ করেন কেন্দুয়া উপজেলার চিরাং ইউনিয়ন আওয়ামিলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং মানবাধিকার সংস্থা - বাংলাদেশ আইন সহায়তা কেন্দ্র ফাউন্ডেশন (বাসক) কেন্দুয়া উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মামুনুল কবীর খান হলি। 

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কাবেরী জালাল বলেন, সৈয়দা নাছিমা আক্তারের বিরুদ্ধে দায়ের করা এলাকাবাসীর লিখিত অভিযোগটি পেয়েছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য কেন্দুয়া থানার ওসিকে বলা হয়েছে।

এব্যাপারে কেন্দুয়া সার্কেল এএসপি জোনাঈদ আফ্রাদ বলেন, স্থানীদের লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখছি, সত্যতা পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

কেন্দুয়া থানা পুলিশের পরিদর্শক (ওসি-তদন্ত) মো. আশরাফুল ইসলাম বলেন, ওসি স্যার ছুটিতে আছেন। তবে সৈয়দা নাছিমা আক্তারের বিরুদ্ধে এলাকাবাসীর দায়ের করা অভিযোগটির তদন্ত চলছে। থানা পুলিশসহ কেন্দুয়া সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জুনায়েদ আফ্রাদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
 

ঢাকানিউজ২৪.কম / নজরুল/

অপরাধ বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image