• ঢাকা
  • বুধবার, ২৬ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৮ ফেরুয়ারী, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

ফুলবাড়ীতে গোপনে বিদ্যালয়ের কমিটি গঠনের অভিযোগ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০১:২৭ পিএম
ফুলবাড়ীতে গোপনে  
বিদ্যালয়ের কমিটি গঠনের অভিযোগে বিক্ষোভ

জাকারিয়া মিঞা, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার ভাঙ্গামোড় ইউনিয়নের পূর্ব রামরামসেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি নিয়মবহির্ভূত ভাবে গোপনে গঠনের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। বিদ্যালয়টির ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নিজের স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যে গোপনে কমিটি গঠন করছেন উল্লেখ করে অভিভাবকরা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করছেন।

অভিযোগের সূত্র ধরে সরেজমিনে গেলে, বিদ্যালয়টিতে অধ্যয়নরত অনেক শিক্ষার্থীর অভিভাবক কমিটি গঠনের বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। সুলতান আহমেদ নামে এক অভিভাবক বলেন, বিদ্যালয় থেকে মাত্র কয়েক গজ দূরেই আমার বাড়ি। বিদ্যালয়ের কমিটি গঠনের বিষয় আমি কিছুই জানিনা। আমাকে জানানোও হয়নি। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ছমির উদ্দিন গোপনে কয়েক জন কুচক্রী অভিভাবকের পরামর্শে সহকারী শিক্ষা অফিসারের নিকট কমিটি অনুমোদনের জন্য জমা দিয়েছেন। আমরা এই গোপন কমিটি মানি না। সকল অভিভাবকদের জানিয়ে বিদ্যালয়ের কমিটি গঠিত হোক এটাই আমাদের দাবি।

আমরা এ ব্যাপারে ইউএনও এবং শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। গোপন কমিটি গঠনের তীব্র নিন্দা জানিয়ে আফজাল হোসেন, খায়রুল আলম, বেলাল হোসেন, আফছার আলী, আমিনুল ইসলাম সহ বেশ কয়েক জন অভিভাবক বলেন, বিদ্যালয়ের কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে কোন নিয়মই মানা হয় নাই। অভিভাবকদের না জানিয়ে কমিটি গঠনের পিছনে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের অসৎ উদ্দেশ্য রয়েছে। এই বিদ্যালয়ের জমি আব্দুল হাকিম দখল করে রেখেছে। আমরা জানতে পেরেছি বিদ্যালয়ের জমি দখলকারীকেই কমিটির সভাপতি বানোনোর পাঁয়তারা চলছে। আমরা চাই সকল অভিভাবকদের জানিয়ে নতুন করে নির্বাচনের মাধ্যমে কমিটি গঠনের ব্যবস্থা গ্রহন করা হোক।

ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ছমির উদ্দিনের কাছে কমিটিতে বিদ্যালয়ের জমি দখলকারী আছেন কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার কাছে কমিটির কোন কাগজপত্র নাই। সব কাগজপত্র শিক্ষা অফিসে জমা দিয়েছি। যা জানার ওখান থেকে জেনে নিন। কমিটি গঠনের বিষয়ে অভিভাবকদের আপত্তির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি কমিটি গঠন করে অনুমোদনের জন্য জমা দিয়েছি। অভিভাবকদের আপত্তিতে আমার কিছু যায় আসে না।

বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক খাদিজা বেগমের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,  আমার অনুপস্থিতিতে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ছমির উদ্দিন কমিটি গঠন করে অনুমোদনের জন্য জমা দিয়েছেন। আমাকে কমিটি গঠনের বিষয়ে কিছুই জানানো হয়নি। বিদ্যালয়ে এসে দেখি অনেক অভিভাবক গোপনে কমিটি গঠনের ব্যাপারে আপত্তি জানিয়ে বিক্ষোভ করেছেন। অভিভাবকদের আপত্তি বিষয়ে আমি তাৎক্ষণিক মোবাইলে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে জানালে তিনি আমাকে অভিভাবকদের আপত্তির বিষয়টি লিখিতভাবে উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে জানানোর নির্দেশ দেন। আমি এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে লিখিত ভাবে জানানোর প্রস্তুতি নিচ্ছি। বিদ্যালয়ের জমি বেদখলের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিদ্যালয়ের মোট ৩৮ শতাংশ জমির মধ্যে ১৬ শতাংশ জমি বেদখল রয়েছে। জমি উদ্ধারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে   ৬ মার্চ ২০২২ তারিখে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও শিক্ষা অফিসারকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। 

এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার আকবর কবির বলেন, গোপনে কমিটি গঠনের অভিযোগ  পেয়েছি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সহকারী শিক্ষা অফিসারকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বিদ্যালয়ের জমি বেদখল ও দখলকারীকে সভাপতি করার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে আমি কোন অভিযোগ পাইনি। অভিভাবকদের অভিযোগ করতে বলেন।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কোহিনুর

সারাদেশ বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image