• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

জনগণের পেটে লাথি মারার জবাবের সময় হয়ে গেছে: গণফোরাম


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বুধবার, ১০ আগষ্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৫:২৯ পিএম
তোমাদেরও পাওয়ার সময় হয়ে গেছে
কেরোসিন, ডিজেল, পেট্রোল, অকটেন ও সারের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে প্রতিবাদী সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল

নিউজ ডেস্ক : কেরোসিন, ডিজেল, পেট্রোল, অকটেন ও সারের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে প্রতিবাদী সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলে বক্তৃতাকালে মোস্তফা মোহসীন মন্টু বলেন- জ্বালানি তেল ও সারের মূল্য অস্বাভাবিক ভাবে বাড়িয়ে জনজীবনে নাভিশ্বাস উঠিয়ে ছাড়ছে। মানুষ আজ বাঁচবে কি বাঁচবে না সেই প্রশ্ন উঠেছে! মানুষ এতো ব্যয় বহন করে কিভাবে বাঁচবে? আজকে লোডশেডিং হচ্ছে, শুধু কুইক রেন্টালের নামে ৭০ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দেয়া হয়েছে জনগণের টাকা লুট করে। অথচ এই টাকা দিয়ে ৬-৭ টি এক হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র তৈরি করতে পারতাম। ভর্তুকি দিতে দিতে দেশটা শেষ করে ফেলছে এই অবৈধ সরকার। 

বাংলাদেশ ব্যাংক সহ সব ব্যাংক লুট করা হচ্ছে, কোন আসামি গ্রেপ্তার হয় না মূল আসামিদের আড়াল করা হয়। দেশের টাকা পাচার করা হচ্ছে, পাইকারিভাবে যেন পাচারের বেসাতি চলছে। বিশ্ব বাজারে যখন তেলের দাম কমে আসছে তখন জ্বালানি তেলের দাম বাড়িয়ে দেশের বারোটা বাজিয়ে দিচ্ছে। বিদায়ের আগে শেষবারের মতো লুটপাট চালাচ্ছে মহালুটপাটের সরকার। প্রশাসনকে জনগণের মুখোমুখি দাঁড় করিয়েছে ২০১৪ সালের ভোটারবিহীন ও ২০১৮ সালের রাতের ভোটের নির্বাচনের মাধ্যমে।

বারবার প্রশাসনকে ব্যবহার করা হচ্ছে অবৈধ ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে। এইতো সেদিন শিক্ষার্থীরা আন্দোলনের জন্য রাস্তায় নেমেছিল তাদেরকে নির্মমভাবে পিটানো হয়েছে যা নিন্দা করার ভাষা আমাদের নেই। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন যারা মাঠে নামবে তাদের পিটিয়ে সরিয়ে দেও আরে বাবা! এটা কি তোমার বাবার দেশ? এদেশের জনগণ যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছে। মানুষের পেটে যখন লাথি পড়ে এই লাথি চরম লাথি। এই লাথি মারার জবাব আইয়ুব খান পেয়েছে, ইয়াহিয়া খান পেয়েছে, এরশাদ পেয়েছে, তোমাদেরও পাওয়ার সময় হয়ে গেছে। তাই সবাইকে আহবান জানাবো, দলমত নির্বিশেষে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের স্বার্থে যদি এই সরকার সরে না দাঁড়ায় তাহলে জনদাবী নিয়ে আমরা রাজপথে সকল গণতন্ত্রকামী দল নিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে রাজপথে থাকবো, ইনশাল্লাহ জনতার জয় হবেই হবে।

গণফোরামের উদ্যোগে কেরোসিন, ডিজেল, পেট্রোল, অকটেন ও সারের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে আজ ১০ আগস্ট বুধবার সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে গণফোরাম সভাপতি জননেতা মোস্তফা মোহসীন মন্টু’র সভাপতিত্বে প্রতিবাদী সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদী সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলে একাত্মতা প্রকাশ করে অংশগ্রহণ করেন বাংলাদেশ জাসদ ও বাংলাদেশ পিপলস পার্টির নেতৃবৃন্দ।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে গণফোরাম সাধারণ সম্পাদক সিনিয়র এডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বলেন- তিনি জনগণের কথা শুনেন না, তিনি জনগণের দুঃখ দুর্দশা বুজেন না ঐ আমার রিকশাওয়ালা ভাই বললেন এই সরকার বয়রা সরকার। আপনি ১৪ বছর ধরে জনগণের বিপক্ষে কাজ করে যাচ্ছেন। আপনি ভালো কাজ বুঝেন না ষড়যন্ত্র ভালো বুঝেন। আপনি এতো উন্নয়ন করেছেন! কি উন্নয়ন করেছেন! জনভোগান্তির উন্নয়ন করেছেন। আমাদের ব্যাংকগুলো খালি করেছেন, জনগণের পকেট কেটেছেন। জনগণকে ধোঁকা দেওয়ার জন্য ও শাসন-অপশাসন দীর্ঘস্থায়ী করার জন্য এইরকম দুর্নীতির মেগা প্রকল্প আর উন্নয়ন বলে আইওয়াস করেছেন। আমরা বলবো আপনি বাংলাদেশের মানুষকে শোষণ, নির্যাতন-নিপীড়ন করেছেন, শত শত মানুষকে ক্রসফায়ারে হত্যা ও গুম করেছেন। 

বিচারহীনতার সংস্কৃতি চালু করে ভাবছেন রেহাই পেয়ে যাবেন, সকল অপরাধের বিচার দেশের মাটিতেই হবে। জ্বালানি তেল নিয়ে মানুষকে আর ধোঁকা দিবেন না। কিছু হলেই চুরি করে বলেন ইউক্রেন যুদ্ধ, মনে হয় ইউক্রেন-রাশিয়া-বাংলাদেশ এই তিন শক্তির যুদ্ধ চলছে। এগুলো বলে বলে বাংলাদেশকে ফতুর করে দিচ্ছেন। আপনি রাষ্ট্র কে ১০ বছরের শাষনে দুর্নীতি, লুটপাট ও দুঃশাসনের মধ্য দিয়ে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করেছেন। আপনি যদি দেশের জনগণের দাবীতে ক্ষমতা না ছেড়ে দেন তবে ১৮ কোটি মানুষ ঐক্যবদ্ধ হয়ে আপনার বিদায় ঘন্টা বাজাবে।

বাংলাদেশ জাসদের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান বলেন- রাজনীতির অঙ্গনে এমন ঘটনা দেখি নাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বললেন আমরা পেট্রোল ও অকটেন বাই প্রোডাক্ট হিসেবে পাই, বিদেশে রপ্তানি করতে পারি, আমাদের নিজস্ব জিনিস এটা তার সাতদিন পরে দেখলাম রাতের বেলায় ৫০% এর বেশি বাড়িয়ে দিলেন। কি নির্মম নিষ্ঠুর রসিকতা জনগণের সাথে! ভাবতেও অবাক লাগে এইরকম বিনা মেঘের বজ্রপাতের মতো দাম বাড়ানো জনগণকে হত্যা করার শামিল।

বাংলাদেশ পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান বাবুল সর্দার চাখারী বলেন- এক রাতের মধ্যে কিভাবে প্রায় ৫০% জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি করেন। মানুষ কিভাবে চলবে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির কারনে সবকিছুর মূল্যবৃদ্ধি পেয়ে গেছে। আপনার সরকার সারাদেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করেছে। মুক্তিযুদ্ধের সরকার বলে জনগণের চোখে ধুলো দিচ্ছেন ভুয় মুক্তিযুদ্ধাদের ভাতা দিচ্ছেন আর অনেক সত্যিকারের মুক্তিযুদ্ধা রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে না খেয়ে মরছে এটা দুঃখজনক।

আরও বক্তব্য রাখেন গণফোরাম সভাপতি পরিষদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা খান সিদ্দিকুর রহমান, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব খান ফারুক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লতিফুল বারী হামিম, ঢাকা জেলা গণফোরাম সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল হামিদ মিয়া ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হাবিবুর রহমান বুলু, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মোঃ তাজুল ইসলাম, ছাত্র সম্পাদক মোঃ সানজিদ রহমান শুভ।

বাংলাদেশ পিপলস পার্টির মহাসচিব আবদুল কাদের, প্রেসিডিয়াম সদস্য রানী শেখ, এডভোকেট জসিম উদ্দিন, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঢাকা মহানগরের সভাপতি আতিকুর রহমান আতিক, বাংলাদেশ জাসদের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট আনিসুজ্জামান সহ গণফোরাম, বাংলাদেশ পিপলস পার্টি ও বাংলাদেশ জাসদের নেতৃবৃন্দ।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন গণফোরাম ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ রওশন ইয়াজদানী।

সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। নেতাকর্মীরা তখন এই সরকারের দুঃশাসন-অপশাসন, জনগণের পয়সা লুটপাট ও জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে মিছিলে স্লোগান দেয়।
 

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

রাজনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image