• ঢাকা
  • সোমবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৫ ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

বুবলী-শাকিব বললেন, শেহজাদ খান আমাদের সন্তান 


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৩:০৯ পিএম
বুবলী-শাকিবের সন্তান শেহজাদ খান
বুবলী-শাকিব, শেহজাদ খান

বিনোদন ডেস্ক : ফেসবুক স্ট্যাটাসে বুবলী লেখেন, আমরা চেয়েছি একটি শুভ দিনক্ষণ দেখে আমাদের সন্তানকে সবার সম্মুখে আনতে, তবে আল্লাহ যা করেন, ভালোর জন্যই করেন। সেই সুখবরটি জানানোর জন্য আর বেশি দিন অপেক্ষা করতে হয়নি। একই ধরনের স্ট্যাটাস দিয়েছেন শাকিব খানও।

সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে সন্তানের ছবি ও নাম প্রকাশ করেছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়িকা শবনম বুবলী।

সন্তানের বাবা হিসেবে শাকিব খানের নাম জানিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করেছেন এ নায়িকা। পরে একই ধরনের পোস্ট দিয়ে সন্তানের স্বীকৃতি দিয়েছেন শাকিবও।

নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে শুক্রবার বেশ কয়েকটি ছবি প্রকাশ করেন অভিনেত্রী বুবলী। এর মধ্যে শেহজাদকে কোলে নিয়ে শাকিব খানের বসে থাকার ছবিও রয়েছে।

দুপুর ১২টার দিকে বুবলী প্রথমে পোস্ট দেন। এর কয়েক মিনিটের মাথায় ভেরিফায়েড পেজে পোস্ট দেন শাকিবও। তিনিও পোস্ট করেছেন ছেলেকে কোলে নিয়ে বসে থাকার সেই ছবি।

বিয়ে কবে হয়েছে বা সন্তানের জন্ম কবে হয়েছে, তা নিয়ে তারকা জুটির কেউই কোনো তথ্য দেননি। যদিও শেহজাদের বয়স আড়াই বছর হতে পারে বলে খবর বেরিয়েছে আগেই।

ফেসবুকে বুবলী লেখেন, ‘আমরা চেয়েছি একটি শুভ দিনক্ষণ দেখে আমাদের সন্তানকে সবার সম্মুখে আনতে, তবে আল্লাহ যা করেন, ভালোর জন্যই করেন। সেই সুখবরটি জানানোর জন্য আর বেশি দিন অপেক্ষা করতে হয়নি।

শেহজাদ খান বীর, আমার এবং শাকিব খানের সন্তান, আমাদের ছোট্ট রাজপুত্র। আমার সন্তান আমার গর্ব, আমার শক্তি। আপনাদের সবার কাছে আমাদের সন্তানের জন্য দোয়া কামনা করছি।

শাকিব খান ফেসবুক পোস্টে লেখেন, ‘আমরা চেয়েছিলাম একটি শুভ দিনক্ষণ দেখে আমাদের সন্তানকে সবার সম্মুখে আনতে, তবে আল্লাহ যা করেন ভালোর জন্যই করেন। সেই সুখবরটি জানানোর জন্য আর বেশি দিন অপেক্ষা করতে হয়নি।

শেহজাদ খান বীর আমার এবং বুবলীর সন্তান, আমাদের ছোট্ট রাজপুত্র। আমার সন্তান আমার গর্ব, আমার শক্তি। আপনাদের সবার কাছে আমাদের সন্তানের জন্য দোয়া কামনা করছি।

শাকিবের বিয়ে ও সন্তান নিয়ে আলোচনা বেশ কয়েক বছর আগেই শুরু হয়। অপুকে বিয়ে এবং সন্তানের বিষয়টি গোপন রেখেছিলেন তিনি।

এ অবস্থায় ২০১৭ সালের ১০ এপ্রিল একটি বেসরকারি টেলিভিশনে উপস্থিত হয়ে শাকিবের সঙ্গে নিজের গোপন বিয়ের খবর জানান অপু।

সেখান থেকেই জনসমক্ষে আসে ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল বিয়ে হয় তাদের। ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর কলকাতার একটি হাসপাতালে জন্ম শাকিবের বড় ছেলে আব্রাহাম জয়ের। সে সময় টেলিভিশনের পর্দায় অপুর সন্তান কোলে কান্নার ছবি নিয়ে দেশজুড়ে আলোড়ন তোলে।

এ নিয়ে টেলিভিশন টকশোতে এসে শাকিব সন্তানের কথা স্বীকার করলেও বেশ ক্ষোভ ঝাড়েন স্ত্রী অপুর ওপর। ২০১৭ সালের ২২ নভেম্বর আইনজীবীর মাধ্যমে অপুর কাছে তালাকের নোটিশ পাঠান শাকিব। এর তিন মাস পর কার্যকর হয় তাদের বিয়ে বিচ্ছেদ।

শাকিব-অপু নিয়ে পরে আর তেমন কোনো খবর না বের হলেও মাঝেমধ্যে ছেলের সঙ্গে শাকিবকে সময় কাটাতে দেখা যেত। সর্বশেষ গত ২৭ সেপ্টেম্বর ছেলে জয়ের জন্মদিন পালন করেন দুজন। শাকিবের বাড়িতে হওয়া সে অনুষ্ঠানে এসেছিলেন অপু। সে ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন অপু।

এদিনই বেরিয়ে আসে শাকিব-অপু-বুবলীর সম্পর্কের নতুন রসায়ন। হুট করে ফেসবুকে বেবি বাম্পের ছবি পোস্ট করে বুবলী লেখেন, ‘আমি আমার জীবনের সঙ্গে। ফিরে দেখা আমেরিকা।’

এরপর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ নানা মাধ্যমে জোর গুঞ্জন শুরু হয়। কবে বুবলী মা হলেন, এই সন্তানের বাবা কে, সন্তানের নাম কী- এসব নিয়ে হইচই পড়ে যায়। তবে কেউই মুখ খুলছিলেন না।

বুবলী ওইদিন এক সিনেমার শুটিং সেট থেকে সাংবাদিকদের জানান, যা হয়েছে সুন্দর ও শালীনভাবেই হয়েছে। শিগগিরই এ নিয়ে বিস্তারিত জানানোর কথাও বলেন তিনি, তবে এর মধ্যেই এই সন্তানের বাবা হিসেবে শাকিবের নাম আসতে শুরু করে। ঠিকভাবে জানা যাচ্ছিল না কিছুই।

অবশ্য বুবলীর মা হওয়ার গুঞ্জন উঠেছিল ২০২০ সালেই। শাকিব খান প্রযোজিত ও কাজী হায়াৎ পরিচালিত বীর সিনেমায় অভিনয়ের সময় তার মা হওয়ার গুঞ্জন ওঠে।

সিনেমাটির শুটিং শেষ করেই বুবলী পাড়ি জমান যুক্তরাষ্ট্রে। করোনাভাইরাস মহামারির সময় যখন দেশে লকডাউন চলছিল, তখন তিনি দেশটিতে ছিলেন।

গুঞ্জন আছে, যুক্তরাষ্ট্রে সন্তান প্রসব করেছেন এ অভিনেত্রী। সন্তানের বাবার পরিচয় হিসেবে শাকিব খানের নাম শোনা গিয়েছিল সে সময়।

পরবর্তী সময়ে দেশে ফিরে এসবকে গুঞ্জন বলেই জানিয়েছেন বুবলী। নায়ক শাকিব খানের সঙ্গে তার সম্পর্কের গুঞ্জনটিও স্বীকার করেননি তিনি। অবশেষে সেই গুঞ্জনই সত্যি হলো।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

বিনোদন বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image