• ঢাকা
  • শনিবার, ২ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

বাংলাদেশে ২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ রপ্তানির প্রস্তাব নেপালের


ঢাকানিউজ২৪ ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ০৭:০৬ পিএম
নেপালে জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের সম্ভাবনা
বাংলাদেশ-ভারত-নেপাল ত্রিপক্ষীয় সমঝোতা চুক্তি

নিউজ ডেস্ক:    বাংলাদেশে ২০০ মেগাওয়াট জলবিদ্যুৎ রপ্তানির প্রস্তাব দিয়েছে নেপাল। বিদ্যুৎখাতে সহযোগিতা সংক্রান্ত বাংলাদেশ-নেপাল জয়েন্ট স্টিয়ারিং কমিটির তৃতীয় সভায় দেশটি এই প্রস্তাব দিয়েছে। মঙ্গলবার ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।.

এদিকে বিদ্যুৎখাতে সহযোগিতা সংক্রান্ত দুই দেশের জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের সভা সোমবার ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত হয়। জয়েন্ট স্টিয়ারিং কমিটির সভায় বাংলাদেশের পক্ষে বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব মো. হাবিবুর রহমান এবং নেপালের পক্ষে বিদ্যুৎ, পানি সম্পদ ও সেচ সচিব দেবেন্দ্র কার্কি প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন।.

স্টিয়ারিং কমিটির সভায় নেপালে জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের সম্ভাবনা এবং ঋতুভেদে চাহিদার তারতম্যের আলোকে পারস্পরিক বিদ্যুৎ বাণিজ্যের বিষয়ে কথা হয়েছ।.

নেপালে জলবিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিনিয়োগের সম্ভাবনা নিয়ে সভায় আলোচনা হয়। নেপাল সরকার সেদেশে সম্ভাব্য যে পাঁচটি জলবিদ্যুৎ প্রকল্প চিহ্নিত করেছে, যেগুলোতে বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানের বিনিয়োগের সুযোগ থাকবে। এ বিষয়ে নেপাল একটি সমীক্ষা করছে। সমীক্ষার ফল পেলে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।.

সভায় জানানো হয়, নেপালে বিদ্যুৎখাতে বিনিয়োগ, বিদ্যুৎ আমদানি-রপ্তানির পন্থা নির্ধারণে একটি জয়েন্ট টেকনিক্যাল টিম (জেনারেশন) ও জয়েন্ট টেকনিক্যাল টিম (ট্রান্সমিশন) কাজ করছে। তবে সঞ্চালন লাইনের অংশবিশেষ ভারতের উপর দিয়ে নিতে হবে তাই বাংলাদেশ-ভারত-নেপাল ত্রিপক্ষীয় সমঝোতা চুক্তি করতে হবে।.

ভারতের জিএমআর গ্রুপ কর্তৃক নেপালে বাস্তবায়িতব্য ৯০০ মেগাওয়াট আপার কার্নালি জলবিদ্যুৎ কেন্দ্রে থেকে ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ বাংলাদেশে আমদানির অগ্রগতির বিষয়ে সভায় আলোচনা হয়। বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড, জিএমআর এবং এনভিভিএনয়ের মধ্যে এ সংক্রান্ত স্বাক্ষরিতব্য চুক্তিটি চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে বলেও সভায় জানানো হয়।.

সভায় নবায়নযোগ্য জ্বালানির সম্প্রসারণের অভিজ্ঞতা, জ্ঞান ও দক্ষতা বিনিময়ে উভয় দেশের মধ্যে সহযোগিতার বিষয়ে পর্যালোচনা করা হয়।.

জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ ও জয়েন্ট স্টিয়ারিং কমিটির দ্বিতীয় সভা ২০১৯ সালের জুন মাসে কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। কমিটি দুটির চতুর্থ সভা  ২০২২ সালের মার্চ/এপ্রিল নেপালে অনুষ্ঠিত হবে।. .

ঢাকানিউজ২৪ /

জাতীয় বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image