• ঢাকা
  • শুক্রবার, ৭ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ; ২১ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

পর্যটক ধর্ষণে আশিক ৩ দিনের রিমান্ডে


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ০৪ জানুয়ারী, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০১:৩৫ পিএম
আশিক ৩ দিনের রিমান্ডে
আশিক রিমান্ডে

ডেস্ক রিপোর্টার: কক্সবাজারে পর্যটক নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় গ্রেফতার প্রধান আসামি আশিকুল ইসলাম আশিককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের রিমান্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশ জোনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিউদ্দীন আহমেদ জানান, মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) দুপুর সোয়া ১২টায় কক্সবাজারের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আবুল মনসুর ছিদ্দিকী এ আদেশ দেন।

সোমবার (৩ জানুয়ারি) সকালে আশিককে ঢাকা থেকে কক্সবাজার কারাগারে আনা হয়। আশিকুল ইসলাম আশিক কক্সবাজার শহরের বাহারছড়া এলাকার মৃত আব্দুল করিমের ছেলে। সে মামলার প্রধান আসামি।

আশিককে গত ২৬ ডিসেম্বর রাতে মাদারীপুর থেকে আত্মগোপন অবস্থায় গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরে তাকে ঢাকায় নেওয়ার পর আদালতে পাঠানো হয়। আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গত ২২ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের লাবনী পয়েন্ট থেকে ২৫ বছর বয়সী এক পর্যটক নারীকে তুলে নিয়ে স্বামী-সন্তানকে জিন্মি করে কয়েক দফা ধর্ষণের অভিযোগ উঠে স্থানীয় একটি অপরাধী চক্রের বিরুদ্ধে।

ঘটনার পরদিন ওই নারীর স্বামী বাদী হয়ে কক্সবাজার সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় চারজনের নাম উল্লেখ করার পাশাপাশি অজ্ঞাত পরিচয়ের আসামি করা হয় আরো তিনজনের বিরুদ্ধে। মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় ট্যুরিস্ট পুলিশের পরিদর্শক রুহুল আমিনকে।

মামলার প্রধান আসামি আশিকুল ইসলাম আশিক, মেহেদী হাসান বাবু, ইসরাফিল হুদা জয় ও রিয়াজ উদ্দিন ছোটন গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া মামলায় সন্দেহভাজন গ্রেফতার হয় আরো ৩ জন।

মহিউদ্দীন বলেন, আইনগত প্রক্রিয়া শেষে সোমবার সকালে মামলার প্রধান আসামি আশিকুল ইসলাম আশিককে ঢাকা থেকে কক্সবাজার কারাগারে আনা হয়। পরে দুপুরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করেছেন। রিমান্ড আবেদনের শুনানির জন্য আদালত মঙ্গলবার দিন ধার্য করে আদেশ দেন।

শুনানি শেষে আশিককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদেশ দিয়েছেন আদালত।

আশিককে মঙ্গলবার রাতের মধ্যেই পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানান ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহিউদ্দীন।

এর আগে মামলায় গ্রেফতার ৫ আসামিকেও রিমান্ডে নিয়ে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করেছে।

সোমবার রাতে মামলার এজাহারভূক্ত সর্বশেষ পলাতক আসামি মেহেদী হাসান বাবুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে তাকেও আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আইন ও আদালত বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image