• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১১ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

জয় বাংলা স্লোগানে দেশ গড়তে তরুণ প্রজন্মকে সচেষ্ট হতে হবে : স্পিকার


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শুক্রবার, ২৬ আগষ্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১২:৪৬ পিএম
জয় বাংলা স্লোগানে সমৃদ্ধ দেশ গড়তে তরুণ প্রজন্ম
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী

নিউজ ডেস্ক : জয় বাংলা স্লোগান ধারণ করে সমৃদ্ধ দেশ গড়তে তরুণ প্রজন্মকে সচেষ্ট হতে হবে বলেছেন,  স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী । তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধ আমাদের অহংকার, মুক্তিযোদ্ধারা আমাদের সূর্য সন্তান, তাদের আত্মত্যাগের কারণেই আমাদের সামনে এগিয়ে চলা। তাই মুক্তিযুদ্ধ কেন্দ্রিক সকল তথ্য, দলিল সংগ্রহ, সংরক্ষণ করা পবিত্র দায়িত্ব।

রাজধানী ঢাকার শাহবাগস্থ বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মিলনায়তনে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক চলচ্চিত্র "জয় বাংলা ধ্বনি" এর শুভ মহরত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে তিনি আজ এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি চলচ্চিত্রটির মহরত অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা শাজাহান খান এমপি'র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: মকবুল হোসেন পিপিএ এবং বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক মো: কামরুজ্জামান বক্তব্য রাখেন। এ. ওয়ান টেলিমিডিয়ার স্বত্ত্বাধিকারী এবং 'জয় বাংলা ধ্বনি' চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্যকার, পরিচালক ও প্রযোজক খ. ম. খুরশীদ অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক চলচ্চিত্র নির্মাণের মাধ্যমে নবীন প্রজন্মকে মহান মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানানোর মাধ্যমে তাদেরকে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ করতে হবে।  
তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধকে গভীরভাবে অনুভব করা আমাদের একান্ত দায়িত্ব। মুক্তিযুদ্ধের বিজয়গাঁথা বিভিন্ন মাধ্যমে সৃষ্টিশীল উপায়ে তুলে ধরার জন্য সরকারী -বেসরকারি অনুদান বা স্পন্সরশীপের মাধ্যমে বিনিয়োগ করা হলে তা পুরোপুরিভাবেই নতুন প্রজন্মকে উদ্বুদ্ধকরণে ব্যয় হয়। সুতরাং এ ধরণের বিনিয়োগের ‘ইমপ্যাক্ট ও রিটার্ণ’ অনেক উচ্চ। তাই সরকারী-বেসরকারি সকল অনুদান বা স্পন্সরশীপকে তিনি স্বাগত জানান।

স্পিকার বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সাথে নিবিড়ভাবে যুক্ত 'জয় বাংলা' স্লোগান। এই স্লোগানে ভর করেই টুঙ্গিপাড়ার খোকা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পরাধীনতার নাগপাশ ছিন্ন করে আমাদেরকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছিলেন। তাই 'জয় বাংলা' স্লোগানটির উৎপত্তি জানা প্রয়োজন। 'জয় বাংলা ধ্বনি' চলচ্চিত্রটি সকল দেশপ্রেমিক বাঙালীকে সে সুযোগ দেবে বলে তিনি চলচ্চিত্রের কাহিনীকার শাজাহান খান এমপিকে ধন্যবাদ জানান।

তিনি বলেন, ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট জাতির পিতাকে সপরিবারের হত্যার পর মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতির প্রচেষ্টা করা হয়েছে। ১৯৮১ সালে স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস ও দলিল সংরক্ষণে তৎপর হয়েছেন। তারই নেতৃত্বে আমরা স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করেছি।

বীর মুক্তিযোদ্ধা শাজাহান খান এমপি'র কাহিনী অবলম্বনে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক চলচ্চিত্রটির মহরত অনুষ্ঠানে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকতাবৃন্দ, বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীবৃন্দ এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ ও গণমাধ্যমকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

জাতীয় বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image