• ঢাকা
  • শনিবার, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ; ১৩ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম বাংলার জনপ্রিয় আলোর উৎস হারিকেন


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২৮ ফেরুয়ারী, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০৩:৪৮ পিএম
হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম বাংলার
জনপ্রিয় আলোর উৎস হারিকেন

রিপন সরকার, খাগড়াছড়ি: গ্রাম-বাংলার সর্বত্র বিদ‍্যুৎ চলে আসার পর থেকে হ‍ারিকেনের তেমন একটা কদর নেই। এভাবে কালের পরিবর্তনে হারিয়ে যেতে বসেছে একসময়ের জনপ্রিয় প্রাচীনতম আলোর উৎস হারিকেন। 

আগের দিনগুলোতে প্রত‍্যন্ত গ্রামবাংলার প্রায় ঘরে থাকতো হ‍ারিকেন। বাড়িতে ছোট্ট বড় কোন অনুষ্ঠান হলে সকালবেলায় শুরু হত দৌরঝাপ। তারপর সন্ধ‍্যে বেলায় আলো দেয়ার জন্য ব্যাবহার হত এই হারিকেন, ছাত্র-ছাত্রীদের লেখা পড়ার জন্য সর্বোউত্তম আলোর ব্যাবস্থা ছিল এই হারিকেন। আবার কোন কোন পরিবারে হারিকেন কিনে ব্যবহার করারমতো সামর্থ ছিলনা। হারিকেন জ্বালাতে পারতনা সবাই ডাকতে হত ঘরের মুরব্বি অথবা পার্শ্ববর্তি কাউকে। 

বিয়ে-শাদি, পূজা -পার্বণ, যাত্রাপালা, এমন কি ধর্ম সভায়ও হারিকেনই ছিল একমাত্র ভরসা।

বর্ষার শুরতে এবং শীতের শুরুতেই যখন নদী-নালায় পানি কমতে থাকে তখন রাতের বেলায় হারিকেন জ্বালিয়ে অনেকে মাছ শিকার করে। তবে এটা চলে বছরে মাত্র মাস দুয়েক। এই বাতির ব্যবহার অতি প্রাচীন। সাধারণত বাতি বলতে বুঝায় কুপি, টর্চ লাইট, হ্যারিকেন ও হ্যাজাক। বাতি হল সেই সরঞ্জাম যা অন্ধাকার দূর করতে ব্যবহার করা হয়।

প্রাচীনকালে আগুনের ব্যবহারের মাধ্যমে বাতির প্রচলন হয়। প্রযুক্তির ছোঁয়া লেগেছে সবখানেই। ফিলামেন্ট বাতির বদলে এলইডি বাতির চলও নতুন নয়। তবে এলইডির সঙ্গেও এখন যুক্ত হয়েছে নানা রকম প্রযুক্তির বাতিও হয়েছে স্মার্ট। বাজার ঘুরে জানানো হচ্ছে বাসা-বাড়ি, অফিস, কারখানার নানারকম বাতির খোঁজ।

হারিকেন মেরামতকারি অমল ঘোষ এবং মো আবুল হোসেনের সাথে কথা হলে তারা জানান, ২৫ /৩০ বছর আগে হারিকেনের ব্যবহার যতেষ্টো ছিল। তখন হারিকেন ঠিক করে  আয় ভাল হত। দিনে ১৫-২০ টি হারিকেন মেরামত করে ২০০-২৫০ টাকা পর্যন্ত রোজগার করতাম। কিন্তু বর্তমানে হারিকেন নেই বললেই চলে। তাই এখন পেশা পরিবর্তন করে বাইসাইকেল  এর মেরামতের কাজ করি।

আজ থেকে প্রায় ৪০ বছর আগে বিভিন্ন বিয়ে সাদি ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানে হারিকেন  এক রাতের জন্য ৫০/ ১০০ টাকা করে ভাড়া দেওয়া হত, । গ্রামে বিদ‍্যুৎ চলে আসার পর থেকে হারিকেনের কদর তেমনটা নেই। এভাবে কালের পরিবর্তনে হারিয়ে যেতে বসেছে একসময়ের জনপ্রিয় প্রাচীনতম হারিকেন।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image