• ঢাকা
  • রবিবার, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২১ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

চট্টগ্রাম বইমেলায় সাড়া ফেলেছে জয়নুল টিটো'র ‘হানিসাকার ও পয়েন্ট ওয়াই’


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বুধবার, ২১ ফেরুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০৩:৪৯ পিএম
চট্টগ্রাম, বইমেলা, জয়নুল টিটো, হানিসাকার পয়েন্ট ওয়াই

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: গল্পে যদি থাকে জীবনের কথা, লেখকের লেখনি জুড়ে যদি থাকে সাধারণ মানুষের জীবনে ঘটে যাওয়া নানা বাস্তব কাহিনী। তবেই হয়তো সাড়া ফেলে গল্প-উপন্যাসের বই।

এমনই কিছু কাহিনী নিয়ে লেখা জয়নুল টিটো'র এবারের ‘হানিসাকার ও পয়েন্ট ওয়াই’ চট্টগ্রাম বইমেলায় ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

‘হানিসাকার’ গল্পের বইটি পাওয়া যাচ্ছে সিআরবি শিরিষতলার কথা প্রকাশন ও ‘পয়েন্ট ওয়াই’ বইটি মিলছে চন্দ্রবিন্দু প্রকাশনে (মঈন ফারুক)।

‘হানিসাকার’ হার্ডকভার ১১৮ পৃষ্ঠার বইটির মূল্য ৩০০ টাকা। এছাড়াও থ্রিলার উপন্যাস ‘পয়েন্ট ওয়াই’  থ্রিলার উপন্যাসটির হার্ডকভার ১৪৪ পৃষ্ঠার বইটির মূল্য ৩৭৫ টাকা। লেখকের অটোগ্রাফসহ মেলায় ২৫ % ছাড়।

‘পয়েন্ট ওয়াই’ মূলত জঙ্গিবাদের ভুল মতবাদের উপর উপজীব্য করে লেখা থ্রিলার ধাঁচের উপন্যাস। এটি লেখকের প্রথম উপন্যাস হলেও পাঠকদের বুঝার অন্ত নেই! উপন্যাস লেখনিতে লেখক নতুন।

জানা যায়, সাহিত্য জগতে জয়নুল টিটোর এ পর্যন্ত পাঁচটি বই প্রকাশিত হয়েছে। যার মধ্যে তিনটি গল্পের বই, একটি থ্রিলার উপন্যাস ও একটি যৌথ কাব্যগ্রন্থ। 

অতীতে অক্ষরবৃত্ত থেকে প্রকাশিত বই ‘বিউটি বোনে লাল পিঁপড়া (গল্প গ্রন্থ-২০২১), লেখক ও হুমায়রা খানম এর ‘সুখ গেছে বনবাসে, স্বপ্নরা নীল ঘুমে (যৌথ কাব্য-২০২২), খয়েরি কৌটোয় নীল বোতাম (গল্পগ্রন্থ-২০২২)। বইগুলো বেশ জনপ্রিয়তা পাওয়ায় একাধিকবার মুদ্রণ ও মেলায় বেস্ট সেলার হিসেবে সুনাম অর্জন করেছেন।

হানিসাকার সম্পর্কে চট্টগ্রামের আর.এস. এম নিজাম উদ্দিন নামক এক পাঠক বলেন, 'বইটি পড়ে অন্যান্য পাঠকের মতো আমিও অভিভূত। বইটি পাঠককে আকৃষ্ট করতে পারবে। তাতে কোন সন্দেহ নেই। কেননা, হানিসাকার বইটিতে আটটি গল্প রয়েছে। একেকটি গল্প একেক রঙে পাঠকের মনে দোলা দেবে। বিশেষ করে লেখকের শব্দ চয়নটা অসাধারণ। গেরামের মানুষও সহজে পড়তে পারবে। একজন লেখক তখনই স্বার্থক হয়। যখন তাঁর বই একটি বিশেষ শ্রেণিকে ভেদ করে একদম সাধারণ পাঠকের মনিকৌটায় জায়গা করে নেয়।'

আরেক পাঠক সংবাদকর্মী জে. জাহেদ বলেন, 'তুমি নদীর কাছে পৌঁছে সমুদ্রের ঢেউয়ের মতন শব্দকে আশা করতে পারবে না। কিন্তু লেখক জয়নুল টিটোর বই পড়ে তুমি পাশের বাড়ির কাহিনী পাবে। যেন কিছুদিন আগেই ঘটেছে সে ঘটনা। যাঁর রেশ এখনো চলমান। এমন নিখুঁত শব্দ বিন্যাসে ফুটিয়ে তোলেছেন লেখকের গল্প উপন্যাস।'

কথা হলে লেখক জয়নুল টিটো বলেন, ‘মনের আনন্দ ও সামাজিক দায়িত্ববোধ থেকে লেখালেখি করি। পাঠক অল্প সময়ে আমার লেখা পছন্দ করে তাঁদের হৃদয়ে জায়গা দিয়েছেন। তাতেই ধন্য। আমি চাই দেশের লেখক ও প্রকাশকদের মাঝে একটি স্বচ্ছ, সুন্দর সেতুবন্ধন অটুট থাকুক।’

প্রসঙ্গত, লেখক জয়নুল টিটো বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। আটাত্তরে জন্ম। চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের কুমিরায়। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ শেষ করেছেন রাজনীতি বিজ্ঞানে। পেশায় সরকারি চাকুরে। বিসিএস কর্মকর্তা। বর্তমানে পদোন্নতি পেয়ে হয়েছেন পুলিশের এডিশনাল ডিআইজি।

লেখালেখির অভ্যেস কৈশোরকাল থেকে। গল্প, কবিতা, ফিচার ছেপেছে স্থানীয় ও জাতীয় দৈনিকে। করেছেন যুক্ত সাংবাদিকতাও। লেখালেখিতে তিনি চন্দ্ৰমণি সাহিত্য পদক-২০২১ অর্জন করেছেন।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image