• ঢাকা
  • রবিবার, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২১ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

এক যুগ পর রিহ্যাবের নির্বাচন


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২৭ ফেরুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১২:৫৮ পিএম
দীর্ঘ ১২ বছর পর রিহ্যাবের নির্বাচন
রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং এসোসিয়েশন বাংলাদেশ (রিহ্যাব)।

নিজস্ব প্রতিবেদক : দীর্ঘ ১২ বছর পর আবাসন ব্যবসায়ীদের সংগঠন 'রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং এসোসিয়েশন বাংলাদেশের (রিহ্যাব) ২০২৪-২৬ মেয়াদি দ্বিবার্ষিক নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শান্তিপূর্ণভাবে চলছে।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর ফার্মগেটে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (কেআইবি)তে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলে। এতে মোট ভোটার সংখ্যা ৪৭৬ জন। এর মধ্যে ঢাকায় ৪৩২ জন ও চট্টগ্রামে ৪৪ জন। 

নির্বাচনে ঢাকায় ২৬টি পরিচালক পদের বিপরীতে মোট ৮৬ জন ও চট্টগ্রামে রিজিওনাল ৩টি পরিচালক পদের বিপরীতে ৭ জন এবং চট্টগ্রামে রিজিওনাল ৫টি সদস্য পদের বিপরীতে ৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চারটি প্যানেলে হয়েছে। প্যানেলগুলোর মধ্যে রয়েছে- রিহ্যাব সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জাপান গার্ডেন সিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. ওয়াহিদুজ্জামানের নেতৃত্বাধীন ‘আবাসন ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদ’, এই প্যানেলই মূলত নির্বাচনের জন্য লড়াই করেছেন। নির্বাচন না দেওয়ায় সর্বশেষ কমিটির বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। আদালত নির্বাচনের পক্ষে রায় দেওয়ায় এই প্যানেলের নেতারা জানিয়েছেন, যেহেতু তাদের লড়াইয়ের কারণেই এক যুগ পর নির্বাচন হচ্ছে সেহেতু ভোটাররা তাদেরকেই ভোট দেবেন বলে তাদের বিশ্বাস। 

এছাড়া নির্বাচনে অন্য প্যানেলগুলোর মধ্যে রয়েছে সেঞ্চুরি রিয়্যালটির চেয়ারম্যান এম জি আর নাসির মজুমদারের নেতৃত্বে ‘ডেভেলপারস ফোরাম’, রিহ্যাবের সাবেক সহ-সভাপতি নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে ‘নবজাগরণ প্যানেল’ এবং সাবেক জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ও হামিদ রিয়েল এস্টেট কনস্ট্রাকশনের এমডি ইন্তেখাবুল হামিদের নেতৃত্ব ‘জয়ের ধারা প্যানেল’।

ভোটার ও প্রার্থীদের সুষ্ঠু ভোটের বিষয়ে আশ্বস্ত করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার সুব্রত কুমার দে (যুগ্ম সচিব) সাংবাদিকদের বলেছেন, সকাল থেকে খুব সুন্দর পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে। ভোটগ্রহণ এলাকার পুরো রুম সিসিটিভির আওতায় আছে। এ পর্যন্ত নির্বাচন নিয়ে কোন ধরনের অভিযোগ আসেনি। তাছাড়া যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা রোধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পর্যাপ্ত সদস্য উপস্থিত রয়েছে। এছাড়াও ভোটের পরিবেশ নিয়ে ঘণ্টায় ঘণ্টায় গণমাধ্যমকে ব্রিফ করা হবে।’

উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশন প্রথমে ২৪ ফেব্রুয়ারি ভোটগ্রহণের দিন ঘোষণা করলেও পরে তা পিছিয়ে মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) নির্ধারণ করা হয়।

 

ঢাকানিউজ২৪.কম / জেডএস/সানি

আরো পড়ুন

banner image
banner image