• ঢাকা
  • শনিবার, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২২ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

সাবেক আইজিপি বেনজীরকে নিয়ে নতুন চাঞ্চল্যকর তথ্য


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শনিবার, ০১ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০৫:০৮ পিএম
নতুন চাঞ্চল্যকর তথ্য
সাবেক আইজিপি বেনজীর

নিউজ ডেস্ক : এবার দেখালেন নতুন চমক সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদ। সম্পত্তি জব্দের নির্দেশের আগেই সব বেচে দিয়ে গত ৪ মে ঢাকা ছাড়েন তিনি। যাওয়ার আগে নিজের ও পরিবারের সদস্যদের নামে থাকা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে তুলে নিয়েছেন টাকা। বিক্রিও করেছেন ভাটারার বহুতল ভবন ও দুবাইয়ের একটি অ্যাপার্টমেন্ট। দুদকের ডাকে সাড়া না দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন আইনজীবী।

সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদ সময়ের অন্যতম আলোচিত-সমালোচিত নাম। অনুসন্ধানে নেমে তার নামে-বেনামে অঢেল টাকা ও সম্পত্তির খোঁজ পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে আগামী ৬ জুন বেনজীরকে তলব করেছে সংস্থাটি।

আলোচনা-সমালোচনা যখন তুঙ্গে, তখন সবাইকে ফাঁকি দিয়ে পরিবার সমেত দেশ ছেড়েছেন পুলিশের সাবেক এই শীর্ষ কর্মকর্তা। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন পুলিশের রেকর্ড অনুযায়ী গত ৪ মে সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে তিনি ঢাকা ত্যাগ করেন। তবে নিজে তো গেলেন, কিন্তু অঢেল সম্পত্তি কি রেখেই গেলেন? নাকি নিয়ে গেলেন?

জানা গেছে, সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ের প্লাম জুমেরা ও মেরিনা এলাকায় বেনজীরের নামে-বেনামে বেশ কয়েকটি অ্যাপার্টমেন্ট রয়েছে। যার মধ্যে জুমেরা এলাকার ৪০তলা কনকর্ড টাওয়ারে অবস্থিত প্রায় ২৯ কোটি টাকায় একটি অ্যাপার্টমেন্ট কয়েক দিনের মধ্যেই বিক্রি করেছেন। দুবাইয়ের মস্কো নামের একটি বহুতল হোটেলে বেনজীরের যৌথ বিনিয়োগের তথ্যও আছে। 

ঢাকার ভাটারা থানাধীন একটি অভিজাত আবাসিক এলাকায় বেনজীরের একটি সাততলা ভবন ছিল, সেটাও সম্প্রতি বিক্রি করে দিয়েছেন। অনুসন্ধান শুরু হওয়ার পর এসব সম্পদ বিক্রি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে দুদক।

সূত্র বলছে, ব্যাংক অ্যাকাউন্টগুলো এখন প্রায় শূন্য। ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করার আগেই অ্যাকাউন্টের অধিকাংশ টাকা তুলে নেয়া হয়েছে। শুধু ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ফাঁকা করেই থেমে থাকেননি। সাম্প্রতিক সময়ের মধ্যে ঢাকায় একটি বাড়ি ও দুবাইয়ের একটি অ্যাপার্টমেন্ট বিক্রিও করেছেন এমন তথ্যও পাওয়া গেছে।
 
দুদক আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম বলেন, যেহেতু বেনজীর আহমেদকে ৬ জুন দুদকে তলব করা হয়েছে তাই সে পর্যন্ত অপেক্ষা করবে দুদক। যদি নির্ধারিত সময়ে না আসেন, তাহলে আইনানুযায়ী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল বলেন, ‘তাকে দেশত্যাগের ব্যাপারে এখনও কোনো নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়নি। তার আগেই তিনি দেশ ছেড়ে চলে গেছেন বলে শুনেছি। যদিও তার যাওয়ার ব্যাপারে আমি জানি না। বিস্তারিত জেনে এ বিষয়ে কথা বলব।’

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image