• ঢাকা
  • বুধবার, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ; ২১ ফেরুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

সংসদ নির্বাচনে ৬ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে অধিকাংশ প্রতিনিধি


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০২:৩৫ পিএম
সংসদ নির্বাচনে ৬ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে অধিকাংশ প্রতিনিধি
স্বতন্ত্র প্রার্থী ডা. আজিজুল হক চৌধুরী

বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : আসন্নবর্তী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দিনাজপুর ৬ আসনে বর্তমান এমপি শিবলী সাদিক এর বিপক্ষে অধিকাংশ প্রতিনিধি দেখা যায়। পক্ষান্তরে স্বতন্ত্র প্রার্থী ডা. আজিজুল হক চৌধুরীর পক্ষে ৩ উপজেলা চেয়ারম্যান সহ জনসমর্থনের চিত্র ফুটে উঠেছে। 

শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) আসন্নবর্তী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দিনাজপুর ৬ আসনে পর্যবেক্ষণে জানা যায়,এমপি শিবলী সাদিক এর বিপক্ষে অধিকাংশ প্রতিনিধি সমর্থনে দেখা যায়। 

পক্ষান্তরে স্বতন্ত্র প্রার্থী ডা. আজিজুল হক চৌধুরীর পক্ষে ৩ উপজেলা চেয়ারম্যান সহ বিরলরুপে জনসমর্থনের চিত্র ফুটে উঠেছে। দিনাজপুর-৬ আসনে এমপি শিবলীর বিপক্ষে অধিকাংশ জনপ্রতিনিধি চিত্র প্রকাশ পেয়েছে। 

দিনাজপুর-৬ আসনে এমপি শিবলী সাদিকের বিপক্ষে অধিকাংশ জনপ্রতিনিধি ট্রাক প্রতীকের পক্ষে গণসংযোগে রয়েছেন বলে জানা যায়। 

এর মধ্যে নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান ও বিরামপুর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান পারভেজ কবীরসহ আওয়ামী লীগের অন্যান্য নেতারা।

দিনাজপুর-৬ আসনে চার উপজেলার মধ্যে তিন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং বর্তমান ও সাবেক জনপ্রতিনিধিদের একটি বড় অংশ স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য প্রার্থী সাবেক এমপি আজিজুল হক চৌধুরীর ট্রাক প্রতীকের পক্ষে প্রচারে নেমেছেন। এই আসনে এবার আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন বর্তমান সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য আজিজুল হক চৌধুরী। 

এছাড়াও এই আসনে আরও তিনজন প্রার্থী রয়েছেন। তারা হলেন- তৃণমূল বিএনপির মোফাজ্জল হোসেন, জাসদের শাহ আলম বিশ্বাস ও স্বতন্ত্র প্রার্থী অ্যাডভোকেট শাহ নেওয়াজ শুভ। স্হানীয় ভাবে জানা যায়, ভোটাররা নৌকা ও ট্রাক প্রতীককে প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে বিবেচনা করছেন। ট্রাক প্রতীকের প্রার্থী সাবেক এমপি আজিজুল হক চৌধুরীর পক্ষে মাঠে নেমেছেন বর্তমান ও সাবেক জনপ্রতিনিধি এবং আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী। উল্লেখযোগ্য নেতারা হলেন, বিরামপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক খায়রুল আলম রাজু,সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান পারভেজ কবীর, সাবেক পৌর মেয়র লিয়াকত আলী সরকার টুটুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমান মণ্ডল, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক গোলজার হোসেন, পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি রুহুল আমীন সরদার, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সহ প্রমূখগন। 

নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও সাবেক উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান,উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক,নবাবগঞ্জ থেকে নির্বাচিত জেলা পরিষদের সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক একরামুল হক, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শেফালী বেগম, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হোসনে আরা বেবী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান, উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক রজব আলী, সাবেক ছাত্রনেতা নিজামুল হাসান শিশির, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ফয়সাল হোসেন প্রমূখ। 

ঘোড়াঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রাফায়েল খন্দকার শাহেন শাহ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বুলাকীপুর ইউপি চেয়ারম্যান সদের আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কোয়েল। 

হাকিমপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) এমদাদুল হক চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মোস্তফা মুকুল,পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি নূরুল ইসলাম ডাবলু,পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি জনার্ধন চন্দ্র। 

এছাড়া চার উপজেলার উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের বর্তমান ও সাবেক অনেক জনপ্রতিনিধি ট্রাক প্রতীকের প্রার্থী আওয়ামী লীগের সাবেক এমপি আজিজুল হক চৌধুরীর পক্ষে মাঠে নেমেছেন। 

এ ব্যাপারে বিরামপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক খায়রুল আলম রাজু বলেন, বর্তমান এমপি একজন বাণিজ্যিক এমপি। তিনি বিরামপুরের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করেছেন। 

নেতৃত্ব পরিবর্তনের লক্ষ্য নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুল হক চৌধুরীর পক্ষে অবস্থান নিয়েছি। নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান বলেন,এই আসনে নৌকা মার্কার প্রার্থী অনেক দুনীতি করেছেন। প্রধানমন্ত্রী জনপ্রিয়তা যাচাইয়ের জন্য স্বতন্ত্র প্রার্থীদের ব্যাপারে উদার রয়েছেন। এ কারণে আমরা এই আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও আওয়ামী লীগের সাবেক এমপি শিক্ষিত ও সৎ ব্যক্তি আজিজুল হক চৌধুরীর পক্ষে নির্বাচনে নেমেছি। আমরা আশা করছি বিপুল ভোটে আমাদের প্রার্থী বিজয় লাভ করবে।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image