• ঢাকা
  • শনিবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ; ০২ মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

নির্বাচনকালীন মন্ত্রিসভার আকার ছোট হতে পারে


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০৫:০৮ পিএম
মন্ত্রিসভার আকার ছোট হতে পারে
মন্ত্রিসভার বৈঠক

নিউজ ডেস্ক:  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মেনে গত ২০ নভেম্বর পদত্যাগপত্র জমা দেন টেকনোক্র্যাট নিয়োগ পাওয়া ওই মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপদেষ্টারা। নির্বাচনকালীন মন্ত্রিসভার আকার ছোট করার কথা ভাবছে বলে জানা গেছে। সরকারের গুরুত্বপূর্ণ এক মন্ত্রী এমন আভাস দিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রিসভার বর্তমান সদস্য ৪৮ জন। এর মধ্যে ২৫ মন্ত্রী, ১৯ প্রতিমন্ত্রী এবং ৩ জন উপমন্ত্রী। তিনজনের পদত্যাগের পর মন্ত্রিসভায় থাকবেন ৪৫ জন।

পদত্যাগকারীরা হলেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান, ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রীর অর্থনীতিবিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান; বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী এবং আন্তর্জাতিক সম্পর্কবিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।

সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের তপশিল ঘোষণা হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে টেকনোক্র্যাট দুই মন্ত্রী, এক প্রতিমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর তিন উপদেষ্টা পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। তবে পদত্যাগপত্র জমা দিলেও তা কার্যকর না হওয়া পর্যন্ত তাদের অফিস করতে বাধা নেই।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, পদত্যাগপত্র কার্যকর করার পদ্ধতি আছে, সেই প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।  পদত্যাগপত্র গ্রহণ করে অনুমোদন নিয়ে গেজেট হবে, পদ যখন খালি হবে তখন শূন্য পদের মন্ত্রণালয় ভাগ করা প্রধানমন্ত্রীর এখতিয়ার। তবে জানা গেছে, আগামী সোমবার মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী ও উপদেষ্টাদের জমা দেওয়া পদত্যাগপত্র গ্রহণ হবে।

গত দুই নির্বাচনের আগে ছোট হয়েছিল মন্ত্রিসভার আকার। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে টেকনোক্র্যাটসহ ৩০ জন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী ও উপদেষ্টা পদত্যাগ করেন। ২০১৮ সালের নির্বাচনের আগেও অনির্বাচিত মন্ত্রী ও উপদেষ্টারা পদত্যাগ করেন। জানা গেছে, এবারও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না।

ওবায়দুল কাদের জানান, নির্বাচনকালীন মন্ত্রিসভায় টেকনোক্র্যাট মন্ত্রী-উপদেষ্টারা থাকছেন না। ফলে মন্ত্রী ও উপদেষ্টাদের মধ্যে কে থাকছেন আর কে থাকছেন না– তা জানা যাবে আগামীকাল।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, প্রধানমন্ত্রী সিদ্ধান্ত নেবেন নির্বাচনকালীন তাঁর কতজন মন্ত্রী প্রয়োজন। যদি তিনি মনে করেন ছোট আকারে, করতে পারেন। এটি তাঁর সিদ্ধান্ত। সংবিধান তাঁকে সেই ক্ষমতা দিয়েছে।

ঢাকানিউজ২৪.কম /

আরো পড়ুন

banner image
banner image