• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ১৮ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

জামালপুরের আতিথিয়েতায় মুগ্ধ ব্যারিস্টার সুমন এবং মাতালেন মাঠ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ২৫ ফেরুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০২:০২ পিএম
জামালপুরের আতিথিয়েতায় মুগ্ধ
ব্যারিস্টার সুমন মাতালেন মাঠ

জামালপুর প্রতিনিধি : আমি আপনাদের আতিথিয়েতায় খুবই মুগ্ধ। আমার কাছে মনে হচ্ছে না যে আমি সিলেটের হবিগঞ্জ থেকে জামালপুরে খেলতে এসেছি। সারা দেশে আমরা ফুটবলের একটি গণজোয়ার তৈরী করতে চাই।

২৪ ফেব্রুয়ারি (শনিবার) জামালপুর পৌরসভার আমন্ত্রনে খেলতে এসে ব্যারিস্টার ছায়েদুর রহমান সুমন এমপি এসব কথা বলেন।

বিকেল ৪ টায় ব্যারিস্টার ছায়েদুল হক ফুটবল একাডেমি বনাম জামালপুর পৌরসভার মধ্যে  বীরমুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট আব্দুল হাকিম স্টেডিয়ামে এই ফুটবল প্রীতিম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়।

সরেজমিনে দেখা যায়, এই খেলা দেখার জন্য দুপুর থেকে হাজার হাজার দর্শনার্থী স্টেডিয়ামে জরো হতে শুরু করে। খেলা শুরু হওয়ার সময় স্টেডিয়ামে ভিতর-বাহিরে এবং গ্যালারি কানায়কানায় পরিপূর্ণ ছিল।

প্রীতিম্যাচের শুরুতে বক্তব্য রাখেন, জামালপুর সদর আসনের সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদ, ব্যারিস্টার সৈয়দ ছায়েদুর হক সুমন এমপি, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ, জামালপুর পৌরসভার মেয়র ছানোয়ার হোসেন ছানু, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক বাবু বিজন কুমার চন্দ, সহ-সভাপতি মির্জা সাখাওয়াতুল আলম মনি প্রমূখ।

এসময় বক্তারা বলেন, দেশে ফুটবলের একসময় জোয়ার ছিল, উত্তেজনা ছিল কিন্তু এটা মাঝখানে চাপা পড়ে যায় কিন্তু সেই জোয়ার ফিরিয়ে আনতে বর্তমান সরকার চেষ্টা করে যাচ্ছে। ব্যারিস্টার সুমন হবিগঞ্জ সিলেট ছাড়াও সারা বাংলাদেশ দাপিয়ে বেড়াচ্ছে ফুটবলের হারানো জনপ্রিয়তা ফিরিয়ে আনতে।

জামালপুর সদর আসনের সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদ বলেন, ব্যারিস্টার সুমন যেভাবে ফুটবলকে জনপ্রিয় করার চেষ্টা করছে আমরাও জামালপুরে এই প্রচেষ্টা চালিয়ে যাব জেলা ক্রীড়া সংস্থার মধ্যমে। সুমন একটি প্রেরণার নাম। আমি এবং সুমন যেহেতু পার্লামেন্টের সদস্য তাই আমরা সংসদে ফুটবলের হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে কথা বলবো।

খেলাটি ১-১ গোলে ড্র হয়। বিদায় বেলা ব্যারিস্টার সুমন জামালপুরবাসীকে অনুপ্রেরণা দিয়ে বলেন, সবাই বলে এমপিরা মাঠে নেমে খেলে না। আমি রাজনীতির মাঠেও খেলি, ফুটবল মাঠেও খেলি। আমি রাজনীতির মাঠে ঢাকার খেলোয়ারকে হারিয়ে হবিগঞ্জ-২ আসনের এমপি হয়েছি। হবিগঞ্জে ২৪ টি চা বাগান রয়েছে।জামালপুরবাসীকে আমন্ত্রণ দিয়ে গেলাম হবিগঞ্জে চা বাগান দেখাতে যাওয়ার জন্য। গিয়ে শুধু বলবেন জামালপুর থেকে এসেছি। এরপর অতিথিয়েতার দায়িত্ব আমার।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image